ঘরেই হোক ঈদের সাজ

ঘরেই হোক ঈদের সাজ
মডেল: সুজানা। ছবি: সাফাওয়াত খান সাফু

কাল ঈদ। কোভিডের কারণে বাঁধভাঙ্গা আনন্দটা নেই, আছে স্বাস্থ্যবিধির কড়াকড়ি, আছে নিষেধ ঘর থেকে বের হতে। কিন্তু মনকে ভালো রাখতে একটু তো সাজা যায়ই। ঈদের খুশিতে নিজেকে সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তুলতে এবারের সাজটা হবে ঘরকেন্দ্রিক। ঈদের ঘরোয়া সাজ কেমন হবে, চলুন জেনে নেওয়া যাক।

অতিমারিতে অনিশ্চয়তা, অস্থিরতা, আতঙ্ক আছে বলেই ঈদটা ঘরোয়া পরিবেশেই উদযাপন করতে হবে। তাই সাজটা হতে হবে খুব সহজ, যেনো বাড়াবাড়ি না থাকে। যে সাজে নিজেকে সতেজ, প্রাণবন্ত ও আকর্ষণীয় দেখাবে সেটাই বেছে নিন। কারণ ঈদের সাজগোজ পুরোটাই হলো নিজের ভালো লাগার জন্য।

সাজটা হালকা হওয়াই ভালো। প্রয়োজনে কন্সিলার ব্যবহার করে তার ওপরে পাউডার মেখে চেহারায় সতেজভাব নিয়ে আসুন। তবে কন্সিলার বা ফাউন্ডেশন অবশ্যই ত্বকের রঙের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বাছাই করা উচিত। ফাউন্ডেশন মুখে, গলায় ও ঘাড়ে ভালোভাবে মিশয়ে নিতে ভুল করবেন না। পোশাকের সাথে মিল রেখে চোখের সাজে উজ্জ্বল রঙয়ের আইশ্যাডো ব্যবহার করতে পারেন। সঙ্গে চিকন করে আইলাইনার এবং মাশকারাও ব্যবহার করতে পারেন। এতে প্রাণবন্ত লাগবে।

ঈদের সাজে হাইলাইটার বা শিমার পাউডারের সীমিত ব্যবহার হতেই পারে। ত্বকের সঙ্গে মানিয়ে বেছে নিন হাইলাইটার। পছন্দ করুন যেকোনো আরামদায়ক কাপড়ে তৈরি পোশাক। আর পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে ঠোঁটে হালকা রঙের লিপস্টিক বেছে নিন দিনের বেলার সাজে। গাঢ় ও উজ্জ্বল রঙয়ের লিপস্টিক ব্যবহার করতে পারেন বিকাল বা সন্ধ্যায়। এতে জমকালো ভাবটা ফুটে উঠবে।

ঈদের সকালে কাজের ঝক্কি তুলানামূলক বেশি থাকে এবং রান্নাবান্না ও পরিবেশনের কাজে থাকতে হয়, তাই চুল বেঁধে রাখাই ভালো। বিকাল বা সন্ধ্যার দিকে ইচ্ছে হলে চুল খোলা রাখতে পারেন। পনিটেইল কিংবা উঁচু করে হাত খোঁপাও করতে পারেন। আবার ঘাড়ের ওপর লুজ হাত খোঁপা করে বেলি কিংবা পছন্দমতো কোনো ফুল কিংবা ফুলের মালা জড়িয়ে রাখলেও স্নিগ্ধতায় ভরে উঠবে চারপাশ। এছাড়া চুল স্ট্রেইট করে নিচের দিকটা কার্ল করে রাখতে পারেন। চুলের সাজে টুইস্ট, সাইড বান, ফ্রেঞ্চ বেণি, কার্ল করে বাঁধলে ভালো দেখাবে।

ইত্তেফাক/আরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x