মেয়াদ দেখে মেকআপ করুন

মেয়াদ দেখে মেকআপ করুন
ছবি: আদিত্য শ্রীবাস্তব

ভীষণ পছন্দ বলে অল্প ব্যবহার করে দীর্ঘদিন জমিয়ে রাখছেন আপনার প্রিয় লিপস্টিক? মাশকারা কবে কিনেছিলেন শেষ ভুলেই গেছেন? ব্রাশ সেট তো নতুন করে কেনাই হয়না। এই যদি হয় অবস্থা ত্বকের বারোটা বাজতে কিন্তু দেরি নেই। জেনে রাখুন, চোখ ধাঁধানো মেকআপ সামগ্রীতেও কিন্তু জীবাণু বাসা বাঁধে। মেয়াদোত্তীর্ন প্রসাধন সামগ্রী ব্যবহারে হতে পারে ত্বকের নানা অসুখ, আক্রান্ত হতে পারে চোখ। তাই মেকআপ ব্যবহারে হতে হবে সর্তক। এক্সাপায়ারি ডেট সম্পর্কে রাখতে হবে পরিষ্কার ধারণা। চলুন জেনে নেই কতদিন ব্যবহার করবেন আপনার প্রিয় প্রসাধন সামগ্রী-

লিপস্টিক

নারীদের কাছে সবচেয়ে প্রিয় সামগ্রীটি হলো লিপস্টিক। ঠোঁটেট এই প্রসাধনে পুরো সাজটাই পূর্ণতা পায়। এই উপাদানটির আয়ুকাল থাকে মোটামুটি বছর খানেক। ঠোঁটের সামগ্রী গুলো যেমন, লিপ লাইনার, লিপ গ্লস, লিপ বাম ইত্যাদি মোটামুটি যত্ন করে ব্যবহার করলে এক বছর পর্যন্ত ব্যবহার করা যায়। তবে অবশ্যই শীতল পরিবেশে রাখতে হবে।

কনসিলার

সাধারণত ত্বকে অবাঞ্ছিত দাগ কিংবা ডার্ক সার্কেল মুছতে কনসিলার ব্যবহৃত হয়ে থাকে। মনে রাখবেন নিখুঁত ত্বক পেতে ব্যবহৃত এই প্রসাধন সামগ্রীটিও কিন্তু এক বছরের বেশি সময় ব্যবহার করা একদমই উচিত নয়।

আই লাইনার

জেল কিংবা তরল আইলাইনার খুব অল্প দিনই ব্যবহার করা চলে। ব্রান্ডের ক্ষেত্রে আয়ুকাল তারতম্য করে। সাধারণত তিন মাস থেকে তিন বছরের মধ্যে আই লাইনার ব্যবহার করা যায়। তবে পেন্সিল লাইনার হলে অবশ্য দীর্ঘদিন ব্যবহার করা যায়।

আইশ্যাডো

চোখের সাজের অন্যতম উপাদান আইশ্যাডো। নানা রংয়ের বাহারি শেডে কেনা এই প্রসাধন কিন্তু দু বছরের বেশি একদমই ব্যবহার করা চলবে না। নতুবা চোখের ক্ষতি হতে পারে।

নেইলপলিশ

নেইলপলিশ ব্যবহারেও হতে হবে সতর্ক। নেইলপলিশের রং পরিবর্তন হয়ে গেলে সেই নেইলপলিশ ব্যবহার করা উচিত নয়। খেয়াল রাখবেন একবার খোলার পর দুবছরের বেশি একটি নেইলপলিশ ব্যবহার করবেন না।

ইত্তেফাক/এআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x