হাঁটলে কি মন ভালো থাকে  

হাঁটলে কি মন ভালো থাকে  
ছবি : শেহতাজ শরীফ 

শরীর ও মন, একটি অন্যটির সঙ্গে গভীর ভাবে সম্পৃক্ত। ভগ্ন মন বা ভগ্ন শরীর দুটিই খারাপ। যান্ত্রিক জীবনে খুব বেশি প্রয়োজন শারীরিক ও মানসিক যত্নের। তাছাড়া করোনাকালে অনিশ্চিত সময়ে অর্থনৈতিক-সামাজিক নানান বিষয় মনের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব সৃষ্টি করছে। তাই বলে তো জীবন থেমে থাকবে না, প্রয়োজন মনকে সুস্থ রাখা। আর এটি সম্ভব হাঁটার মাধ্যমে।

বিস্ময়কর ঠেকলেও এটিই সত্যি প্রমাণিত করেছন ডাবলিন ট্রিনিটি কলেজের নিউরোলজি বিভাগের অধ্যাপক শেন ও’মারা। সম্প্রতি তার গবেষণাপত্রে হাঁটার সঙ্গে মনের সম্পর্ক নিয়ে একটি নিবন্ধ প্রকাশ করেছেন। সেখানে তিনি দাবি করেছেন, প্রতি দিন নিয়ম করে ১৫ মিনিট থেকে আধাঘণ্টা হাঁটলেই শরীর অনেক ভালো থাকে। শুধু তাই নয়, হাঁটার প্রভাবে মনও ভালো থাকে। কীভাবে মন ভালো থাকবে হাঁটলে, চলুন জেনে নেওয়া যাক।

  • নিয়মিত হাঁটলে মস্তিষ্কে রক্ত চলাচলের পরিমাণ বাড়ে। এর প্রভাবে মস্তিষ্কের কোষের মৃত্যুর হার কমে যায়। ফলে মস্তিষ্ক অনেক বেশি সচল থাকে। তাতে মন খারাপ কিছুটা কমে।
  • বিভিন্ন হরমোনের প্রভাবে মানসিক অবসাদ দেখা দিতে পারে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যারা নিয়মিত আধাঘণ্টা হাঁটেন, তাদের মন ভালো রাখার হরমোনগুলোর ক্ষরণ বাড়ে। পাশাপাশি অবসাদের জন্য যে হরমোনগুলো দায়ী, সেগুলোর পরিমাণ কমে।

  • নিয়মিত হাঁটলে হজমশক্তি বাড়ে। তাতে মনও ভালো থাকে।
  • প্রতিদনি ১৫ থেকে ৩০ মিনিট হাঁটলে উদ্বেগের সমস্যা কমে যায়, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এর ফলে যেমন মন ভালো হয়, তেমনই হৃদরোগের আশঙ্কা কমে।

  • আপনি যদি কোনো একটি সমস্যার সমাধান খুঁজে না পেয়ে থাকেন, তাহলে শেন ও’মারার গবেষণা বলছে, এমন পরিস্থিতিতে যদি হাঁটতে শুরু করেন, তা হলে সমাধান খুঁজে পাওয়া সহজ হবে। মানে শরীরকে সচল রাখতে হবে। হাঁটার সময়ে মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ে। তাতে সমস্যার সমাধান খুঁজে পাওয়া সহজ হয়। মানসিক চাপ কমে, এতে মনও ভালো থাকে।

ইত্তেফাক/আরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x