বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭
৩৩ °সে

পুলিশ সদর দফতরে ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’  স্থাপিত

পুলিশ সদর দফতরে ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’  স্থাপিত
‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’ উদ্বোধন করছেন পুলিশ প্রধান (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। ছবি : ইত্তেফাক

পুলিশ সদর দফতরে প্রবেশ মুখেই বঙ্গবন্ধুর তর্জনী উচিয়ে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের ছবি। সেদিন রেসকোর্স ময়দানে লাখো মানুষের বিশাল জনসমুদ্রে বঙ্গবন্ধু ঘোষণা করেছিলেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।

ভেতরে দেয়ালে দেয়ালে বঙ্গবন্ধুর ঘটনাবহুল সংগ্রামী রাজনৈতিক ও পারিবারিক জীবনের দুর্লভ আলোকচিত্র। একপাশে শোভা পাচ্ছে বঙ্গবন্ধুর লেখা ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ও ‘করাগারের রোজনামচা’। রয়েছে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রচিত বিশিষ্ট লেখকদের বিভিন্ন বই। প্রতিটি নিদর্শনের শৈল্পিক উপস্থাপনা ও নান্দনিকতা যোগ করেছে ভিন্ন যাত্রা। এভাবেই শ্রদ্ধা ও ভালবাসার ছোঁয়ায় সযত্মে তুলে ধরা হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে। গড়ে তোলা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ উপলক্ষে পুলিশ সদর দফতরে স্থাপিত হলো ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’।

পুলিশ প্রধান (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ সদর দফতর মূল ভবনের নিচ তলায় স্থাপিত ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’ উদ্বোধন করেন। এ সময় আইজিপি বলেন, শতবর্ষের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি সম্মান জানানোর জন্য পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে স্থাপন করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’।

তিনি বলেন, পুলিশ সদর দফতরে আগত দর্শনার্থীরা ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’ ব্যবহার করবেন। তারা এখানে বসবেন। বঙ্গবন্ধুকে জানার চেষ্টা করবেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসরণ করবেন। ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’ উদ্বোধনের পর ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের শাহাদতবরণকারী সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

আরো পড়ুন : করোনা ভাইরাস ঠেকাতে শিবচরে দোকানপাট-গণপরিবহন বন্ধের সিদ্ধান্ত

অনুষ্ঠানে র‌্যাবের মহাপরিচালক ড. বেনজীর আহমেদ, অতিরিক্ত আইজি (এএন্ডও) ড. মো. মইনুর রহমান চৌধুরী, এসবি প্রধান অতিরিক্ত আইজি মীর শহীদুল ইসলাম, শিল্পাঞ্চল পুলিশের অতিরিক্ত আইজি আবদুস সালাম, এন্টি টেররিজম ইউনিটের অতিরিক্ত আইজি মোহাম্মদ আবুল কাশেম, রেলওয়ে রেঞ্জের অতিরিক্ত আইজি মো. মহসিন হোসেন, ডিএমপি কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, টিএন্ডআইএম’র অতিরিক্ত আইজি মো. ইকবাল বাহার, এপিবিএন’র অতিরিক্ত আইজি মোশারফ হোসেন, অতিরিক্ত আইজি (এইচআরএম) বিশ্বাস আফজাল হোসেন, অতিরিক্ত আইজি (অর্থ) মোঃ শাহাব উদ্দীন কোরেশী, পুলিশ স্টাফ কলেজের রেক্টর (অতিরিক্ত আইজি) শেখ মুহম্মদ মারুফ হাসান, সিআইডি প্রধান অতিরিক্ত আইজি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, হাইওয়ে পুলিশের অতিরিক্ত আইজি ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান, এসবিতে কর্মরত অতিরিক্ত আইজি মাহবুব হোসেন, ঢাকাস্থ বিভিন্ন ইউনিটের প্রধানগণ, ডিআইজিবৃন্দ এবং পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ইত্তেফাক/ইউবি

ঘটনা পরিক্রমা : মুজিববর্ষ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত