এ বছরের যত আলোচিত ঘটনা

এ বছরের যত আলোচিত ঘটনা
ছবি: সংগৃহীত

ভালো-মন্দ মিলিয়ে শেষ হতে চলেছে আরো একটি বছর। অনেক ঘটনা, আলোচনা, পর্যালোচনা ও সমালোচনায় মুখর এই বছর দেশের বিভিন্ন খবর নিয়ে দৈনিক ইত্তেফাকের সঙ্গে ছিলো প্রায় ১৭ কোটির বেশি পাঠক। একনজরে দেখে নেয়া যাক সংবাদগুলো।

চতুর্থবারের মতো আওয়ামী লীগের সরকার গঠন: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ নিরঙ্কুশভাবে জয় পায়। নির্বাচনে বাংলাদেশের বড়ো দুটি দল, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) নেতৃত্বে গঠিত মহাজোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট জোটসহ বাংলাদেশের নিবন্ধিত সর্বমোট ৩৯টি দল অংশগ্রহণ করে। ১হাজার ৮৪৮ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। যার মধ্যে ১২৮ জন ছিল স্বতন্ত্র। ২০১৯ সালে ৭ জানুয়ারি টানা তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়ে রেকর্ড গড়েন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। ইতিমধ্যে সবচেয়ে বেশি সময় প্রধানমন্ত্রী থাকা ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা থাকার রেকর্ডও গড়েছেন তিনি। ওই দিন বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রীকে শপথ পাঠ করান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। পরে অপর মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ করানো হয়। এ নিয়ে চতুর্থবারের মতো মন্ত্রিসভা গঠন করেছে আওয়ামী লীগ।

চকবাজারে অগ্নিকাণ্ড ও বনানীতে এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ড: ২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের ঢাকায় চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সেখানে একটি গ্যাস সিলিন্ডারের বিস্ফোরণ হতে সৃষ্ট আগুন পার্শ্ববর্তী ভবনসমূহে ছড়িয়ে পড়ে এবং বৈদ্যুতিক ট্রান্সমিটার বিস্ফোরিত হয়ে এলাকাটি বিদ্যুৎ-সংযোগবিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। দমকল বাহিনী পাঁচ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হলেও (সরকারি হিসাব মতে) ততক্ষণে ঘটনাস্থলে অগ্নিদগ্ধ হয়ে ৭৮ জন মারা যান।

২৮ মার্চ দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে রাজধানীর বনানীতে এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অন্তত ২৬ জন নিহত এবং আহত হয়েছেন ৭০ জনেরও বেশি মানুষ। আগুন লাগার ঘটনায় করা মামলায় গ্রেপ্তার হন দুই মালিক এস এম এইচ আই ফারুক ও তাসভীর-উল ইসলাম। গত ৩১ মার্চ বনানীর আগুনের ঘটনায় এস এম এইচ আই ফারুক ও তাসভীর-উল ইসলামকে সাত দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দেন আদালত। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত ওই আদেশ দেন। এ মামলার এজাহারে নাম থাকা আসামি রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী খান মুকুল আজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়। উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে আদালত ২০ হাজার টাকা মুচলেকায় আসামির জামিন মঞ্জুর করেন। এর আগে গত ৬ মে এই মামলায় ঢাকার আদালত থেকে জামিন পান জমির মালিক এস এম এইচ আই ফারুক। আর গত ১১ এপ্রিল জামিন পান বিএনপি নেতা তাসভীর-উল ইসলাম।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন: দীর্ঘ ২৮ বছরেরও বেশি সময় পর গত ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন। ঘোষিত ফলাফলে কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্ল্যাটফর্ম ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’ প্যানেলের নুরুল হক নুর ১১ হাজার ৬২ ভোট পেয়ে সহ-সভাপতি (ভিপি) পদে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সম্মিলিত শিক্ষার্থী সংসদের ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন পেয়েছেন ৯ হাজার ১২৯ ভোট। এছাড়া জিএস পদে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ১০ হাজার ৪৮৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাধারণ কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা রাশেদ খান পান ৬ হাজার ৬৩ ভোট। এজিএস পদে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন ১৫ হাজার ৩০১ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা ফারুক হোসেন পেয়েছেন ৫ হাজার ৮৯৬ ভোট।

নুসরাত হত্যাকাণ্ড: যৌননিপীড়নের প্রতিবাদ করায় গত ৬ এপ্রিল নুসরাতের শরীরে আগুন দেয়া হয়। ১০ এপ্রিল রাজধানীর একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। তার হত্যার বিচারের দাবিতে পুরো দেশ উত্তাল হয়ে ওঠে। ২৪ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আলোচিত নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যা মামলায় ১৬জন আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করে। আসামিদের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে বলে জানাযন আদালত। ফেনী জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ এই রায় ঘোষণা করেন। অভিযুক্ত ১৬ জন আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেওয়া হয়েছে। এই মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় ২১ ব্যক্তিকে। তাদের মধ্যে ৫ জনকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। আসামিদের মধ্যে ১২ জন ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দেন। ৯২ জন সাক্ষীর মধ্যে ৮৭ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হল- সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসার বরখাস্ত হওয়া অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলা, সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সভাপতি রুহুল আমিন, সোনাগাজী পৌরসভার কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম, মাদ্রাসার শিক্ষক হাফেজ আবদুল কাদের, প্রভাষক আফসার উদ্দিন, মাদ্রাসার ছাত্র নুর উদ্দিন, শাহাদাত হোসেন শামীম, সাইফুর রহমান মোহাম্মদ যোবায়ের, জাবেদ হোসেন ওরফে সাখাওয়াত হোসেন জাবেদ, কামরুন নাহার মনি, উম্মে সুলতানা পপি ওরফে তুহিন, আবদুর রহিম শরিফ, ইফতেখার উদ্দিন রানা, ইমরান হোসেন মামুন, মোহাম্মদ শামীম ও মহি উদ্দিন শাকিল। মামলার সাত মাসেরও কম সময়ের মধ্যে, ৬১ কার্যদিবস শুনানির পর এ রায় ঘোষণা করা হয়।

রূপপুরের বালিশকাণ্ড: টেন্ডার আহ্বানের আট মাস আগেই রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের অন্তত তিনটি ভবনের জন্য ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স আইটেম, ওয়াশিং মেশিন, ইলেকট্রিক্যাল আয়রন, বালিশ, তোশক ও আসবাবপত্র সরবরাহ করা হয়। পাশাপাশি প্রতিটির দাম বাজারের তুলনায় অস্বাভাবিক ধরা হয়। গত মে মাসে প্রকাশ্যে আসে সেই দূর্নীতি।

এই প্রকল্পে একটি বালিশ কিনতে ৫ হাজার ৯৫৭ টাকা বিল করা হয়। আর প্রতিটি বালিশ ভবনের উপরে উঠতে ৭৬০ টাকা করে ধরা হয়। একেকটি বিছানা কেনার বিল করা হয় ৫ হাজার ৯৮৬ টাকা আর বিছানা উপরে উঠাতে খরচ দেখানো হয়েছে ৯৩১ টাকা। এছাড়াও ওয়্যারড্রোব কেনা হয় ৫৯ হাজার ৮৫৮ টাকা দিয়ে এবং এগুলোকে উপরে উঠাতে প্রতিটির খরচ দেখানো হয়েছে ১৭ হাজার ৪৯৯ টাকা। একেকটি ফ্রিজার কেনা হয়েছে ৯৪ হাজার ২৫০ টাকায় এবং প্রতিটি ফ্রিজার উপরে উঠাতে খরচ দেখানো হয়েছে ১২ হাজার ৫২১ টাকা। একেকটি টেলিভিশন কেনায় খরচ দেখানো হয় ৮৬ হাজার ৯৭০ টাকা এবং প্রতিটি টেলিভিশন উপরে উঠাতে বিল করা হয় সাত হাজার ৬৩৮ টাকা। খাট কেনা হয় ৪৩ হাজার ৩৫৭ টাকায় এবং প্রতিটি খাট উপরে উঠাতে খরচ দেখানো হয় ১০ হাজার ৭৭৩ টাকা। একটি ইলেকট্রিক আয়রন (ইস্ত্রি) কেনা হয় চার হাজার ১৫৪ টাকায় এবং এগুলো ভবনের উপরের তলায় তুলে দিতে প্রতিটির জন্য খরচ দেখানো হয় দুই হাজার ৯৪৫ টাকা।

প্রকাশ্য দিবালোকে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যা: গত ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজ রোডে স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে জখম করা হয় রিফাত শরীফকে। পরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরবর্তীতে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যার সেই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে তা পুরো দেশবাসীকে নাড়িয়ে দেয়। হত্যাকাণ্ডের প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড গত ২ জুলাই পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। এরপর তদন্ত করে গত ১ সেপ্টেম্বর বহুল আলোচিত এ মামলায় ২৪ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন পুলিশ। আদালত এ আসামিদের দুই ভাগে ভাগ করেন। এদের মধ্যে ১০ জন প্রাপ্তবয়স্ক ও বাকি ১৪ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক। মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের আদেশের দিন ধার্য করা হয়েছে ১ জানুয়ারি।

রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক আসামিরা হলেন, রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজি (২৩), আল কাইউম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), রেজওয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় (২২), মো: হাসান (১৯), মো: মুসা (২২), আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি (১৯), রাফিউল ইসলাম রাব্বি (২০), মো: সাগর (১৯) ও কামরুল ইসলাম সাইমুন (২১)। এ মামলার চার্জশিটভুক্ত প্রাপ্তবয়স্ক আসামিদের মধ্যে মো: মুসা এখনো পলাতক রয়েছেন। এছাড়া সাক্ষী থেকে আসামি হওয়া নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি উচ্চ আদালতের নির্দেশে জামিনে রয়েছেন। আর অন্য সব আসামি কারাগারে রয়েছেন।

মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির বিরুদ্ধে নতুন করে চার্জ গঠনের তারিখ নির্ধারণ করেছেন আদালত। তবে বাদী ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীদের সময় বাড়ানোর আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত চার্জ গঠনের জন্য ৮ জানুয়ারি নতুন দিন ধার্য করেছেন।

জিআরপি থানায় গৃহবধূকে গণধর্ষণ: গত ২ আগস্ট যশোর থেকে ট্রেনে খুলনায় যাওয়ার পথে খুলনা রেল স্টেশনে কর্তব্যরত জিআরপি পুলিশের সদস্যরা এক গৃহবধূকে মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে আটক করে। গভীর রাতে ওসি উছমান গনি পাঠান ও এসআই গৌতম কুমার পালসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য তাকে জিআরপি থানার মধ্যে ধর্ষণ করেন। পরদিন ৩ আগস্ট তাকে পাঁচ বোতল ফেনসিডিলসহ একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে খুলনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত ফুলতলায় পাঠানো হয়। গত ৪ আগস্ট আদালতে জামিন শুনানিকালে জিআরপি থানায় গণধর্ষণের বিষয়টি আদালতের সামনে তুলে ধরেন তিনি। এরপর আদালতের নির্দেশে ৫ আগস্ট (সোমবার) তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের স্বার্থে ৭ আগস্ট বুধবার সকালে তাদের খুলনা জিআরপি থানা থেকে পাকশী জেলা রেলওয়ে পুলিশ লাইনসে প্রত্যাহার করা হয়। ১৮ আগস্ট খুলনার জিআরপি (রেলওয়ে) থানা হাজতে গণধর্ষণের শিকার গৃহবধূর বিরুদ্ধে দায়ের করা মাদক মামলায় জামিন আবেদন না মঞ্জুর করেন আদালত। সব শেষে ২৮ আগস্ট গণধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে ফেনসিডিল মামলায় জামিন দেন আদালত। খুলনার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফুলতলা আমলি আদালতের বিচারক ওই গৃবধূকে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা খুলনার কো-অর্ডিনেটর অ্যাডভোকেট মোমিনুল ইসলামের জিম্মায় জামিন প্রদান করেন।

ক্যাসিনো কাণ্ড: গত ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন শহরের স্পোর্টিং ক্লাবগুলোতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযান পরিচালনা করে। ১৮ সেপ্টেম্বর ক্যাসিনো ব্যবসার বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে র্যাব। মতিঝিলের ইয়ংমেনস ক্লাব, মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়াচক্র, ওয়ান্ডারার্স ও বনানীর গোল্ডেন ঢাকা ক্লাব, কলাবাগান ক্রীড়াচক্র, ধানমণ্ডি ক্লাব, মোহামেডান স্পোর্টিং, ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব, আরামবাগ ও দিলকুশা ক্লাবে অভিযান চালানো হয়। ওই সব ক্লাব থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ক্যাসিনো বোর্ডসহ বিপুল পরিমাণ জুয়া খেলার সামগ্রী, নগদ টাকা, অস্ত্র, মদ ও বিয়ার জব্দ করে। আটক করা হয় ক্যাসিনো ব্যবসার সঙ্গে জরিত অসংখ্য যুবলীগ নেতাকর্মীকে। ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে আলোচিত ইসমাইল হোসেন সম্রাটকে ৬ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

২০ সেপ্টেম্বর যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক এসএম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জিকে শামীমকে রাজধানীর নিকেতন থেকে আটক করেছে র্যাব।

এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে তাকে ১৪ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। তার নিকেতনের অফিস থেকে এক কোটি ৮০ লাখ নগদ টাকা, ১৬৫ কোটি টাকার ওপরে এফডিআর-এর কাগজপত্র এবং মাদক ও আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়া যায়। মাদক, অস্ত্র ও মানিলন্ডরিং আইনে তিনটি মামলা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। ঢাকায় সরকারি বিভিন্ন কাজের দরপত্রের নিয়ন্ত্রক হিসেবে পরিচিত তিনি। একই দিনে আটক কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতি শফিকুল ইসলাম ফিরোজ দুই মামলায় ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। পরে দফায় দফায় রিমান্ডে নেওয়ার পর তাদের কাছে থেকে বেরিয়ে আসে ক্যাসিনো কাণ্ডের সঙ্গে জরিত মূল্যবান তথ্য।

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যা: ৬ অক্টোবর রাতে শেরেবাংলা হলে নিজের কক্ষ থেকে আবরারকে ডেকে নিয়ে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। পরের দিন তার বাবা বরকতুল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এ ঘটনায় ২৫ জনকে আসামি করা হয়। তাদের মধ্যে ২১ আসামি কারাগারে রয়েছেন।

এর মধ্যে এজাহারভুক্ত ১৬ জন এবং এজাহারের বাইরে পাঁচজন আসামি রয়েছেন। এ ছাড়াও পলাতক চার আসামির সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দেয় আদালত। এ ঘটনায় বুয়েট থেকে আজীকন নিষিদ্ধ হন ১৯ জন। সেই সঙ্গে বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়।

আসামিদের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডের নির্মম বর্ণনা এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের রুখে দাড়াবার প্রত্যয়ে ভিন্ন এক মাত্রা পায় এই হত্যাকাণ্ড।

পেঁয়াজের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি: দেশে সবচেয়ে বেশি আলোচিত কৃষিপণ্যের নাম পেঁয়াজ। দফায় দফায় দাম বেড়ে যাওয়ায় হালি কিংবা জোড়া হিসেবেও বিক্রি হয়েছে পেঁয়াজ। একটি বড় আকারের পেঁয়াজের দাম ৮ থেকে ১০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে। চার মাসে পেঁয়াজের মূল্য বেড়েছে ৪০০ গুণ। পেঁয়াজের এমন অস্বাভাবিক দামে হিমশিম খেতে হয়েছে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত ভোক্তাদের। দেশের ইতিহাসে এই প্রথম পেঁয়াজের দাম এত বেশি হওয়ায় এক ধরনের দুর্লভ বস্তুতে পরিণত হয়েছে পণ্যটি।

জুলাইয়ের শুরু থেকে হঠাৎ করেই বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যায়। তখন সরবরাহ ও আমদানি স্বাভাবিক থাকলেও একদিনেই এর দাম কেজিপ্রতি ৩০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৪৫ টাকা করা হয়। সেই থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত চার মাসে মোট ২৪ বার পেঁয়াজের দাম ওঠানামা করেছে। সব শেষে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ২৮০ টাকা দরেও বিক্রি হয়েছে। বর্তমানে পেঁজের বাজার স্থিতিশীল রয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনা: ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথে ‏ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দভাগ রেলস্টেশনে ১২ নভেম্বর দিবাগত রাত তিনটার দিকে বড় ধরনের ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটেছে। চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী আন্তনগর তূর্ণা নিশীথা সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী আন্তনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের মাঝামাঝি বগিতে ঢুকে পড়লে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় ১৬ জন প্রাণ হারান। দুর্ঘটনায় তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেস ট্রেনের লোকোমাস্টার তাছের উদ্দিন, সহকারী লোকোমাস্টার অপু দে এবং গার্ড মো. আবদুর রহমানকে দায়ী করেছে এই ঘটনায় গঠিত তিনটি তদন্ত কমিটি। তাদের ইতিমধ্যে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়।

মিথিলা-ফাহমির অন্তরঙ্গ ছবি ভাইরাল ও মিথিলার দ্বিতীয় বিয়ে: নির্মাতা ও পরিচালক ইফতেখার আহমেদ ফাহমির সঙ্গে অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলার অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। ৪ নভেম্বর কয়েকটি ফেসবুক গ্রুপে দুটি ছবি পোস্ট করা হয়। এরপর ৬ ডিসেম্বর কলকাতার জনপ্রিয় পরিচালক সৃজিত মুখার্জিকে বিয়ে করেন মিথিলা।

সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধ: ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব গোপন করায় বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-২০ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক এবং অলরাউন্ডার হিসেবে বছরের আইসিসি র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকা সেরা সাকিব আল হাসানকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। আইসিসির দুর্নীতিবিরোধী কোডের তিনটি আইন লঙ্ঘনের অপরাধ সাকিব মেনে নেওয়ার পর এ শাস্তি দেওয়া হয়।

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত