ঢাকা রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬
২৪ °সে

যে কারণে বাসা-বাড়িতে গ্যাস দিতে চাইছে না সরকার

যে কারণে বাসা-বাড়িতে গ্যাস দিতে চাইছে না সরকার
ছবি: সংগৃহীত।

বাসা-বাড়িতে রান্নার কাজে ব্যবহারের জন্য সবচেয়ে বেশি চাহিদা প্রাকৃতিক গ্যাসের। কিন্তু এই গ্যাস চুলায় পুড়িয়ে যে পরিমাণ লাভ হয়, তার থেকে বরং ক্ষতিই বেশি হয়। এমনটিই বলছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। তাই রান্নার কাজে গ্যাস সরবরাহ কমিয়ে শিল্প-কারখানায় গ্যাস দেওয়ার বিষয়টি অগ্রাধিকার দিচ্ছে সরকার।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, মহামূল্যবান গ্যাস সকলেই চান তাদের বাসার চুলায় নিতে। কিন্তু আমরা এ থেকে বিরতি নিতে চাইছি। আমরা কোন খাতে গ্যাস দেব? যদি গ্যাস দিয়ে বিদ্যুৎ তৈরি করি, তাহলে সেখানে যে এনার্জি তৈরি হয় সেটার এফিশিয়েন্সি ৬৫ শতাংশ। আর বাসার চুলায় গ্যাস ব্যবহার করে যে রান্না করি তার এফিশিয়েন্সি মাত্র ৫ শতাংশ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাসার দুটি চুলায় এক মাসে যে পরিমাণ গ্যাস ব্যবহার করা হয়, সেটা দিয়ে যদি গার্মেন্টসের ব্রয়লার চালানো হয়, তাহলে একশ লোকের কর্মসংস্থান হয়। কাজেই বুঝতে হবে গুরুত্বটা কোথায়?

গ্যাসের চাহিদা মেটাতে শেখ হাসিনার সরকার প্রায় ছয় হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিচ্ছে বলে জানান নসরুল হামিদ।

তিনি বলেন, প্রাকৃতিক গ্যাস উত্তোলন করতে খরচ হয় ৯ টাকা আর সেই গ্যাস আমরা বিক্রি করছি গড়ে ৭ টাকায়।

শিল্প এলাকায় গ্যাস সরবরাহ অগ্রাধিকার পাবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, গ্যাসের ব্যবহার বিষয়ে ২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে, ভোলায় বিদ্যুৎ কেন্দ্র ব্যতীত অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানে গ্যাস সরবরাহের প্রয়োজন নেই। সেখানে নির্মিতব্য বিদ্যুৎ কেন্দ্র দ্বৈত জ্বালানিভিত্তিক হবে। যদি গ্যাস ফুরিয়ে যায়, যাতে তেল দিয়েও সেটি চালানো যায়।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন