বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ৩০ আষাঢ় ১৪২৭
৩০ °সে

স্বাস্থ্য বিধি মেনে চালু হবে নৌ যাত্রী পরিবহন

ভয় নয়, সচেতনতায় জয়: খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

ভয় নয়, সচেতনতায় জয়: খালিদ মাহমুদ চৌধুরী
নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

স্বাস্থ্য বিধি মেনে নৌ যাত্রী পরিবহন চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, "আমরা ত থেমে যেতে পারি না।.. এখানে যে কথাটা সবচেয়ে বেশি প্রযোজ্য তা হল, 'ভয় নয়, সচেতনতায় জয়।" বৃহস্পতিবার এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ কথাগুলো বলেন।

এ সময় তিনি বলেন, ৩১ তারিখ থেকে সীমিত আকারে গণ পরিবহন চলাচল শুরু। এতে স্বাস্থ্য ঝুঁকি থেকে যাচ্ছে। কিন্তু ভয় বা ঝুঁকির কথা চিন্তা করে সব কিছু ত থামিয়ে রাখা যায় না। একদিকে স্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করতে হবে। আরেকদিকে অর্থনীতির কথাও চিন্তা করতে হবে। কারণ উন্নয়নশীল একটা দেশ হিসেবে আমরা এগিয়ে যাচ্ছিলাম। আর সেই মুহূর্তে করোনা ভাইরাস সংক্রামিত হওয়ার পর আমাদের যাত্রা কিছুটা থমকে গেছে।

নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ আমরা করতে চাই। এখানে যে কথাটা সবচেয়ে বেশি প্রযোজ্য তা হল, 'ভয় নয়, সচেতনতায় জয়। এখন পর্যন্ত যেহেতু প্রতিষেধক আবিষ্কৃত হয়নি, কাজেই আমাদের সচেতনতার সঙ্গে এটিকে জয় করতে হবে এবং সেই আলোকেই আমরা গণ পরিবহন গুলো চালুর ব্যবস্থা করব।

এ সময় তিনি সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা সকলে যেন স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলি। মালিক-শ্রমিক সকলের সঙ্গে আমাদের বিআইডব্লিউটিএ-র সঙ্গে কথা হবে। সেখানে কিভাবে আমাদের স্বাস্থ্য বিধি মানা যায় (তা নিয়ে কথা হবে)। যেখানে ৫০০ জন যাত্রী যেতে পারে, সেখানে হয়ত আমরা ২০০ জন যাত্রী পরিবহন করব। সেক্ষেত্রে পরিবহন খরচটা উঠে আসবে কিনা? সেটাও একটা বিষয়। সেক্ষেত্রে আমরা মালিকদের সঙ্গে বসে শ্রমিকদের সঙ্গে বসে আলোচনা করে সেই সিদ্ধান্ত নিতে পারি। কিন্তু স্বাস্থ্য বিধিটা মেনেই আমাদের পরিবহন চালু করতে হবে।

এ সময় মানুষকে সচেতন করতে ও স্বাস্থ্য ঝুঁকি কমাতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম প্রসঙ্গে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, মার্চের ৮ তারিখ থেকে আমরা লিফলেট বিতরণ করে আসছি। নদী বন্দরগুলোতে থার্মাল (স্ক্যানার) দিয়ে আমরা প্রাথমিকভাবে তাপমাত্রা পরীক্ষা শুরু করেছিলাম। আমরা প্রথম থেকেই যাত্রীদের সচেতন করতে এ ধরণের জিনিস নিয়ে হাজির হয়েছি। এ ছাড়াও আমরা মেডিকেল সেন্টার স্থাপন করার পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলাম। যেটার আলোকে সদরঘাট, বরিশাল ও চাঁদপুরে (মেডিকেল ক্যাম্প) চালু হয়েছিলো। কাজেই, আমরা চাই যেন আমাদের শ্রমিক ও যাত্রীরা ঝুঁকির মধ্যে না পড়ে। সে জন্য আলোচনার ভিত্তিতে কিভাবে বিষয়টিতে সামঞ্জস্য আনা যায়, স্বাস্থ্য সম্মতভাবে এবং সেই সঙ্গে পরিবহন খরচটাও কিভাবে মেটানো যায়, সেটা বিবেচনায় নিয়ে যাত্রী পরিবহন শুরু করব।

ইত্তেফাক/আরএ

ঘটনা পরিক্রমা : করোনা ভাইরাস

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত