বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চির স্মরণীয় রাখতে পরিকল্পনা গ্রহণের পরামর্শ

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চির স্মরণীয় রাখতে পরিকল্পনা গ্রহণের পরামর্শ
ফাইল ছবি

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহত বৃটিশ সৈন্যদের মতো দেশের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চির স্মরণীয় রাখতে পরিকল্পনা গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

কমিটির সভাপতি শাজাহান খানের সভাপতিত্বে আজ রবিবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় এ পরামর্শ দেয়া হয়।

কমিটির সদস্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক এবং কাজী ফিরোজ রশীদ সভায় অংশগ্রহণ করেন।

সভায় মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট এবং জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের আয়-ব্যয় এবং ব্যাংকে গচ্ছিত তহবিলের হিসাব সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

২য় বিশ্বযুদ্ধে নিহত বৃটিশ সৈন্যদের যুক্তরাজ্য যেভাবে আজও স্মরণ করছে বাংলাদেশের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সেভাবে চিরস্মরণীয় করে রাখতে পরিকল্পনা গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়কে কমিটি থেকে সুপারিশ করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ও চেতনা বাস্তবায়নে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের গৃহীত পদক্ষেপ হিসেবে সাধারণ শিক্ষায় অধ্যয়নরত প্রতিজনকে এক হাজার টাকা এবং মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিং-এ অধ্যয়নরত প্রত্যেককে এক হাজার পাঁচশত হারে ২০১২-১৩ অর্থবছর থেকে ২০১৭-১৮ অর্থ বছর পর্যন্ত মোট ৩৪৬০ জনকে ছাত্রবৃত্তি প্রদান করা হয়েছে বলে সভায় জানানো হয়।

বৃত্তিপাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ও চেতনা কতটুকু বাস্তবায়িত হয়েছে তা যাচাই বাছাইয়ের ভবিষ্যত পরিকল্পনা গ্রহণের লক্ষ্যে বৃত্তিপ্রাপ্তদের বিস্তারিত তথ্য মন্ত্রণালয়কে আগামী সভায় উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়।

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের আয় ও ব্যয়ের বিস্তারিত হিসাব বিবরনী এবং আয়-ব্যয়ের অডিট প্রতিবেদনসহ আগামী সভায় উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়।

মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে যে চিকিৎসা খরচ প্রদান করা হয় মুক্তিযোদ্ধাদের কষ্ট লাঘবের উদ্দেশ্যে প্রয়োজন অনুযায়ী তা মাসিক হারে প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভায় সুপারিশ করা হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধারা যেন স্বচ্ছলভাবে জীবন যাপন করতে পারেন সে লক্ষ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ২০২০-২১ অর্থবছর থেকে মাসিক সম্মানী আট হাজার টাকা বৃদ্ধি করে মোট বিশ হাজার টাকা করার প্রস্তাব সম্প্রতি অর্থ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে বলে সভায় জানানো হয়।

মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের মহাপরিচালকের বিরুদ্ধে প্রাপ্ত কিছু অনিয়ম ও নানা অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযোগগুলোর সত্যতা যাচাইয়ের লক্ষ্যে গঠিত ৩ সদস্য বিশিষ্ট সংসদীয় সাব-কমিটির প্রতিবেদন আগামী ২ মাসের মধ্যে মূল কমিটিতে উপস্থাপন করা গবে বলে সভায় জানানো হয়। এছাড়া সভায় ৩নং সাব-কমিটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

সভায় মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টে বিভিন্ন সময়ে নিয়োগপ্রাপ্তদের বিস্তারিত তথ্য আগামী বৈঠকে উপস্থাপন এবং কল্যাণ ট্রাস্টের অর্গানোগ্রামকে যুগোপযোগী করার লক্ষ্যে একটি কমিটি গঠনের সুপারিশ করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিভিন্ন সংস্থার প্রধানসহ মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন। বাসস

ইত্তেফাক/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত