বিতরণের অনুমতি পেলে বিভিন্ন জেলায় পৌঁছে যাবে টিকা: পাপন

বিতরণের অনুমতি পেলে বিভিন্ন জেলায় পৌঁছে যাবে টিকা: পাপন
সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন নাজমুল হাসান পাপন। ছবি: সংগৃহীত

বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, ‘বিতরণের অনুমতি পেলে চার থেকে পাঁচ দিন পর সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী বিভিন্ন জেলায় করোনার টিকা পাঠানো হবে।’

ভারত থেকে ৫০ লাখ ডোজ করোনার টিকা দেশে পৌঁছানোর পর সোমবার সকালে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘তাদের নয়টি ফ্রিজার ভ্যানে করে বিমানবন্দর থেকে টিকার বাক্সগুলো নিয়ে যাওয়া হচ্ছে টঙ্গীতে বেক্সিমকোর ওয়্যারহাউজে।’

এর আগে সকাল ১০টা ৫৮ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে টিকাবাহী এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ ফ্লাইটটি।

আরও পড়ুন: দেশে পৌঁছালো আরও ৫০ লাখ ডোজ করোনার টিকা

জানা গেছে, বাংলাদেশের কোম্পানি বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে ক্রয়চুক্তি সই করেছে। যার মাধ্যমে আগামী ৬ মাসে বাংলাদেশে আসবে ৩ কোটি ডোজ টিকা। আর তার প্রথম চালানে এ টিকা দেশে পৌঁছালো।

টিকা বহনের জন্য বেক্সিমকোর ফ্রিজার ভ্যান বিমানবন্দরে প্রবেশ করছে। ছবি: সংগৃহীত

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা উদ্ভাবিত এই টিকা আনা হচ্ছে বাংলাদেশে সেরাম ইনস্টিটিউটের ‘এক্সক্লুসিভ ডিস্ট্রিবিউটর’ বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মাধ্যমে।

আরও পড়ুন: টিকা রাখা হবে বেক্সিমকোর ওয়্যারহাউজে

এর আগে গত ২১ জানুয়ারি ভারতের জনগণের পক্ষ থেকে ২০ লাখ টিকা বাংলাদেশের জনগণের জন্য উপহার পাঠানো হয়। এই ৭০ লাখ টিকা দেশে রাখা ও বিতরণের সব প্রস্তুতি ইতিমধ্যেই নেওয়া হয়েছে।

আগামী ২৭ ও ২৮ জানুয়ারি ঢাকায় ৪০০ থেকে ৫০০ জনের মধ্যে পরীক্ষামূলক টিকা প্রয়োগ হবে। তারপর ৮ ফেব্রুয়ারি টিকাদান শুরু হবে সারাদেশে।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x