পুরুলিয়া উপজেলা গঠনে ২০ বছরেও প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি পূরণ হয়নি

পুরুলিয়া উপজেলা গঠনে ২০ বছরেও প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি পূরণ হয়নি
নড়াইল জেলার মানচিত্র। ছবি: সংগৃহীত

নড়াইল জেলায় পুরুলিয়া নামক একটি উপজেলা গঠনে গত ২০ বছরেও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন হয়নি। নতুন ওই উপজেলা গঠন করা হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী। অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় একজন প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধির অনৈতিক হস্তক্ষেপে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন হচ্ছে না।

জানা যায়, ২০০১ সালের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কালিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফাসহ ২৩ জন ব্যক্তি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আবেদন করেন। আবেদনটি পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণের জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিবকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে নির্দেশনা প্রধান করা হয়। নতুন উপজেলা গঠনের বিষয়ে নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সমর্থন করে পত্র দেন স্থানীয় সরকার বিভাগে। শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, সংরক্ষিত আসনের এমপি ফজিলাতুন্নেছা বাপ্পী অনানুষ্ঠানিক পত্র দেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বরাবর। কিন্তু কোন কিছুতেই এগোচ্ছে না। ইতিমধ্যে উপজেলা বাস্তবায়ন কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপিও দিয়েছেন।

জানতে চাইলে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ জানান, তিনি দায়িত্ব নেওয়ার আগেই বিষয়টি কার্যকর করতে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারকে নির্দেশনা দেয়া আছে। স্থানীয় সরকার বিভাগ বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বিধায় গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারকে পত্র পাঠায়।

সূত্র জানায়, স্থানীয় সরকার বিভাগ হতে ২০১২ সালের ১৭ এপ্রিলের পত্রের প্রেক্ষিতে তৎকালীন খুলনা জেলা প্রশাসক অকুস্থল সরজমিন পরিদর্শন স্কেস ম্যাপসহ প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক কার্যাদি সম্পন্ন করেন। এবং ওই সময়েই ১২ সালের ২২ এপ্রিল প্রতিবেদন খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের অফিসে প্রেরণ করেন। বিভাগীয় কমিশনার সেটি ২৬ এপ্রিল স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রেরণ করেন। স্থানীয় সরকার বিভাগ ৭টি ইউনিয়ন নিয়ে পুরুলিয়া উপজেলা গঠনের প্রস্তাব নাকচ করে দেয়। ২০১৪ সালের ২৪ অক্টোবরের মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের নীতিমালা অনুযায়ী পৌরসভা না থাকলে কমপক্ষে ৮টি উপজেলা নিয়ে উপজেলা গঠনের বিধান রয়েছে।

এরকম বাস্তবতায় নড়াইল জেলার কালিয়া উপজেলার মাউলি, বাবরা-হাছলা, পুরুলিয়া, চাচুড়ি, পেড়ুলি, পাঁচ গ্রাম ও নড়াইল সদর উপজেলার বিছালি ও সিংগাশোলপুর এই ৮টি উপজেলা নিয়ে নতুন উপজেলা গঠনের পক্ষে মতামত দেয় স্থানীয় সরকার বিভাগ।

স্থানীয় সরকার বিভাগের এই নির্দেশনা খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে আটকে আছে। কোন কার্যক্রম নেয়া হচ্ছে না। একজন প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধির হস্তক্ষেপে বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x