হেফাজতের বৈঠকের পর নেতারা কে কী বললেন

হেফাজতের বৈঠকের পর নেতারা কে কী বললেন
ছবি: সংগৃহীত

বিতর্ক আর সমালোচনা যেনো হেফাজতে ইসলামকে ছাড়ছেই না। ইতিমধ্যে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নেতাদের কর্মকাণ্ড দেশব্যাপী সমালোচনায় মুখর। এসব সমস্যা নিরুপণে রবিবার (১১ এপ্রিল) সংগঠনটির জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

চট্টগ্রামের দারুল উলুম হাটহাজারী মাদ্রাসায় অনুষ্ঠিত বিশেষ এ জরুরি সভা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী। এসময় বাবুনগরী মামুনুল হকের দ্বিতীয় বিয়ে ‘শরীয়তসম্মত’ উল্লেখ করেন এবং হেফাজতের পরবর্তী কর্মসূচিও ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে ইত্তেফাককে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী জানান, সভাশেষে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, মামুনুলের বিয়ের বিষয়টি একান্তই তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার। এই বিয়ে শরীয়তসম্মতভাবেই হয়েছে।

সভায় করোনার অজুহাত দিয়ে দেশের কওমী মাদরাসাগুলো বন্ধ করার প্রতিবাদ জানানো হয়েছে উল্লেখ করে আজিজুল হক ইসলামাবাদী জানান, করোনার অজুহাতে মাদরাসা বন্ধের ষড়যন্ত্র দেশের তৌহিদী জনতা কোনো মতেই মেনে নেবে না। করোনা থেকে মুক্তির জন্য মহান আল্লাহর দরবারে কুরআন তিলাওয়াত, জিকির, তাসবি পাঠ ও দোয়া ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। সুতরাং আল্লাহর সাহায্য পাওয়ার জন্য মাদরাসা খোলা রাখা সরকারেরই নৈতিক দায়িত্ব বলে হেফাজতে ইসলাম মনে করে।

এক প্রশ্নের উত্তরে আজিজুল হক ইসলামাবাদী বলেন, ইতিমধ্যে দারুল উলুম হাটহাজারী মাদরাসায় পরীক্ষা গ্রহণ শেষ হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা মেনে গত বৃহস্পতিবার শিক্ষার্থীরা মাদরাসা ত্যাগ করেছে। আগামী ২৯ মে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে জাতীয় ওলামা-মাশায়েখ সম্মেলন আয়োজন করা হবে বলে জানান মাওলানা আজিজুল হক।

বৈঠক শেষে আগামী ২৯ মে জাতীয় ওলামা মাশায়েখ সম্মেলন ঘোষণা করা হয়। এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলা ও গ্রেফতারের নিন্দা জানান বাবুনগরী। রমজানে মকতব হিফজ বিভাগগুলো খোলার অনুমতি প্রদানের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানানো হয়।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জুনায়েদ আল হাবিব, কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক মুনির কাসেমী প্রমুখ।

ইত্তেফাক/এসজেড/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x