বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহাবুব উদ্দিন খোকন গুলিবিদ্ধ

প্রকাশ : ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:৪০ | অনলাইন সংস্করণ

  নোয়াখালী প্রতিনিধি

গুলিবিদ্ধ হয়ে চিকিৎসাধীন মাহবুব উদ্দিন খোকন। ছবি: নোয়াখালী প্রতিনিধি

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। শনিবার বিকালে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি সদরে এ ঘটনা ঘটে। তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালী-১ (চটাখিল-সোনাইমুড়ী একাংশ) আসনে বিএনপির প্রার্থী মাহবুব উদ্দিন খোকন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক।

মাহবুব উদ্দিন খোকনের পিঠে ও মুখের নিচে ৬টি গুলিবিদ্ধ হয়। হাসপাতালের আরএমও মহিউদ্দিন আজিম জানান, তার শরীরে ৬টি গুলির ক্ষত রয়েছে। তবে তিনি এখন আশঙ্কা মুক্ত।

বিএনপি এই প্রার্থী অভিযোগ করে বলেন, বিকাল ৫টার দিকে কয়েক হাজার নেতাকর্মী সমর্থক নিয়ে তিনি নির্বাচনী মিছিল করছিলেন। মিছিলের শেষ পর্যায়ে সোনাইমুড়ী থানার ওসি আবদুল মজিদ পুলিশ নিয়ে এসে সামনে দাঁড়িয়ে  মিছিল শেষ করতে বলেন। মিছিল শেষ করছি বলার পর ওসি তা না শুনে মিছিলের উপর গুলি চালান। আমি সামনে যেতে থাকলে আমাকে লক্ষ্য করে পিছন দিক থেকে  গুলি চালান তিনি। 

আহত মাহবুব উদ্দিন খোকন। ছবি: ফেসবুক

মাহবুব উদ্দিন খোকন আরো জানান, এখানে অন্য দলের সঙ্গে কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। আমি আগেই ওসির কাছে নিরাপত্তা চেয়েছিলাম।

ঘটনার বিষয়ে জানতে থানার ওসিকে ফোন করা হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। 

আরো পড়ুন: বিয়ের পরের অভিজ্ঞতা জানালেন দীপিকা

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ জানান, দুইদলের মধ্যে সংঘর্ষ থামাতে ও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণের জন্য পুলিশ শটগানের গুলি ছুঁড়ে।  তবে ওসির বাড়াবাড়িতে এ ঘটনা হয়েছে কিনা তা তদন্তের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তার রির্পোট পাওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

এদিকে এ ঘটনার পর সোনাইমুড়ী উপজেলা সদরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমর্থরা একে অপরের কয়েকটি দোকান, নির্বাচনী অফিস ও হাসপাতালে ভাঙচুর চালায় বলে জানা যায়।

ইত্তেফাক/জেডএইচ