‘ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড করার পরও এই অপরাধ কমেনি’

‘ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড করার পরও এই অপরাধ কমেনি’
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড করার পরও এই অপরাধ কমেনি। ফাঁসি দিয়ে পৃথিবীর কোথাও কোনো পরিবর্তন হয়নি।’

শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন পদ্ধতি বাতিলের দাবি পরিষদ’ অয়োজিত মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তিনি।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, সংবিধানে কথা বলার, রাজনীতি করার, সংগঠন করার অধিকার আছে। কিন্তু তা করতে দেওয়া হচ্ছে না। জনগণকে প্রকৃত মানবিক এবং সুষ্ঠু গণতন্ত্র দিতে হবে। সবাইকে কথা বলার অধিকার দিতে হবে। সুষ্ঠু ও মানবিক গণতন্ত্র ছাড়া মুক্তির কোনো পথ নেই।

সম্প্রতি গ্রেপ্তার হওয়া সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজী এবং সংগ্রাম পত্রিকার সম্পাদক আবুল আসাদের (কারাগারে থাকা) বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের ধারা ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলার বিষয়ে জাফরুল্লাহ অভিযোগ করেন, ‘শুধু কথা বলার কারণে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অথচ যারা লাখো-কোটি টাকা পাচার করেছে, তাদের জামিন আগেই হয়ে যায়।’

রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন পদ্ধতি বাতিলের দাবি পরিষদের আহ্বায়ক সৈয়দ হারুন অর রশিদের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য দেন ভাসানী ফ্রন্টের চেয়ারম্যান মমতাজ চৌধুরী, বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভুইয়া প্রমুখ।

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত