মৃত্যুকে যদি ভয়ই পেতাম তাহলে রাজনীতি করতাম না: ইকবাল হোসেন অপু 

মৃত্যুকে যদি ভয়ই পেতাম তাহলে রাজনীতি করতাম না: ইকবাল হোসেন অপু 
বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের শরীয়তপুর সদর উপজেলা শাখা কর্তৃক আয়োজিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি পরিচিতি সভায় বক্তব্য রাখছেন শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ইকবাল হোসেন অপু।

শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ইকবাল হোসেন অপু বলেছেন, এ পর্যন্ত অনেক ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেছি পাশাপাশি অনেকবার মৃত্যুর মুখোমুখি হয়েছি। এখন আর মৃত্যুকে ভয় পাই না। মৃত্যুকে যদি ভয়ই পেতাম তাহলে রাজনীতি করতাম না। রাজনীতি করি মানুষের দুঃখ- কষ্টে পাশে থাকার জন্য এটাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ।

শনিবার (২৪ অক্টোবর) বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের শরীয়তপুর সদর উপজেলা শাখা কর্তৃক আয়োজিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি পরিচিতি সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ইকবাল হোসেন অপু বলেন, আজ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ শরীয়তপুরের মধ্যে অন্যতম শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে প্রমাণিত করেছে। এই স্বেচ্ছাসেবক লীগ সংগঠন অনেক আগের তৈরি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের তৈরি। এই স্বেচ্ছাসেবক লীগ ছিল স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী। এই স্বেচ্ছাসেবক বাহিনীর প্রতিষ্ঠাতা ও আহ্বায়ক ছিলেন সাবেক প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান। পরে এই বাহিনীর প্রধান ছিলেন আব্দুর রাজ্জাক। পরবর্তীতে এই স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নামকরণ করেন মাদারীপুরের কৃতি সন্তান বাহাউদ্দিন নাসিম। স্বেচ্ছাসেবক লীগ আজ শুধু শরীয়তপুরেই নয়, সারা বাংলাদেশে প্রমাণ করেছে এই সংগঠন আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের মধ্যে অন্যতম।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার গণতন্ত্রকে শক্তিশালীকরণের পাশাপাশি গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপদানে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে উল্লেখ করে ইকবাল হোসেন অপু বলেন, দেশ সমৃদ্ধির পেছনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে এই শেখ হাসিনার সরকার। করোনাকালে প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে দেশ আজ বিশ্বে রোল মডেল। এখন যে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণে জনগণকে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে। দেশকে অধুনিকায়ন এবং সঠিকভাবে এগিয়ে নিতে জনগণ ও তরুণদের চিন্তা ভাবনাকে মূল্যায়ন করা হচ্ছে।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আব্দুর রব মুন্সী, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, শরীয়তপুর পৌরসভা মেয়র রফিকুল ইসলাম কোতোয়াল, জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য এড. আলমগীর মুন্সী, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা,জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহবায়ক এড. তাইজুল ইসলাম মুন্সি, জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুল সালাম খান, জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক তাইজুল ইসলাম সরকার, শরীয়তপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাবিনা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ফাহাদ হোসেন তপু, জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মহসিন মাদবর, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাসেদ উজ্জামানসহ জেলা, উপজেলা, থানা এবং পৌরসভা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ইত্তেফাক/এমএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত