মূর্তি ও ভাস্কর্যের বিরোধ সৃষ্টি ষড়যন্ত্রের অংশ: এম এ আউয়াল

মূর্তি ও ভাস্কর্যের বিরোধ সৃষ্টি ষড়যন্ত্রের অংশ: এম এ আউয়াল
সভায় অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম খানসহ কেন্দ্রীয় কমিটির কয়েকজন নেতা উপস্থিত ছিলেন। ছবি : সংগৃহীত

মূতি ও ভাস্কর্যের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি করা বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী গণতান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যান, সাবেক সংসদ সদস্য এম এ আউয়াল। তিনি বলেন, ‘মূর্তি হচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের উপাসনার অংশ, ভাস্কর্য সভ্যতার ধারাবিবরণী। মুসলিম সভ্যতাসহ পৃথিবীর সভ্যতার একটি বড় নিদর্শন মানুষের সামনে উন্মোচিত হয়েছে ভাস্কর্য-শিল্পের মধ্য দিয়ে। যারা আধুনিক পৃথিবীর শিক্ষা-শিল্পকলা সম্পর্কে অজ্ঞান, তাদেরকে ব্যবহার করেই এই ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।’

আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর কলাবাগানে ইসলামী গণতান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দলের এক সভায় এসব কথা বলেন এম এ আউয়াল। এসময় দলের মহাসচিব অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম খানসহ কেন্দ্রীয় কমিটির কয়েকজন নেতা উপস্থিত ছিলেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নিমার্ণের বিরুদ্ধে কয়েকজন আলেমের হুমকি-ধামকির প্রতিবাদ জানিয়ে এম এ আউয়াল বলেন, ‘আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, কিছু আলেম দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করে ভিন্ন কোনো পক্ষের এজেন্ডা বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছে। তারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যকে মূর্তির সঙ্গে তুলনা করার ধৃষ্টতা দেখাচ্ছে।’

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা করা দেশের শান্তি বিনষ্টের ষড়যন্ত্রের অংশ উল্লেখ করে সাবেক এমপি এম আউয়াল বলেন, ‘বাংলাদেশের সৃষ্টি যার হাত ধরে, দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানের জন্য যার প্রাণ নিবেদিত, তার ভাস্কর্যকে মূর্তির সঙ্গে তুলনা করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করা। মহান মুক্তিযুদ্ধের অবমাননা করার নামান্তর।’

গত কয়েকদিনে যেসব আলেমপরিচয়ধারী বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙে ফেলার হুমকি দিয়েছে, এদের সঙ্গে উগ্রপন্থী-জঙ্গিদের কোনো সম্পর্ক আছে কিনা, তালেবানদের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক আছে কিনা, তা খতিয়ে দেখতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান এম এ আউয়াল।

তিনি বলেন, দেশের মানুষ যখন করোনা মোকাবিলা করছে, জননেত্রী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্থনীতি দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে, ওই সময় কিছু চিহ্নিতমহল ভাস্কর্যকেন্দ্র করে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। দেশের মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি, প্রকৃত ইসলামের ধর্মপ্রাণ মানুষকে এদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

ইত্তেফাক/কেকে

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত