বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওয়াহাব মেয়র পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওয়াহাব মেয়র পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী
বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওয়াহাব। ছবি: সংগৃহীত

নওগাঁ পৌরসভার মেয়র পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী জেলা কৃষক লীগের আহ্বায়ক ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আব্দুল ওয়াহাব। আসন্ন নওগাঁ পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা শুরু করেছেন দৌড়ঝাঁপ। এবার মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী নওগাঁ জেলা কৃষক লীগের আহ্বায়ক আব্দুল ওয়াহাব ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছেন নৌকার প্রচারণা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করে ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে আসা, কৃষকদের কাছে আইকন বলে পরিচিত এবং সর্বদা অসহায় দরিদ্রদের পাশে থাকা আব্দুল ওয়াহাব ব্যাপক গণসংযোগ করছেন। দিন রাত সমান তালে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। মেয়র পদ প্রত্যাশী হিসেবে তিনি জনগণের ভালোবাসা পাচ্ছেন অনেক। প্রতিদিন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গিয়ে জনসংযোগ করছেন। ভোটারদের কাছে নৌকার পক্ষে ভোট চাওয়ার পাশাপাশি চাচ্ছেন দোয়া ও ভালোবাসা। অনেকে বুকে জড়িয়ে ধরে করছেন আদর, কেউবা মাথায় হাত বুলিয়ে দিচ্ছেন দোয়া ও ভালোবাসা।

আব্দুল ওয়াহাব নওগাঁ সদরের চকপ্রাণ এলাকায় ১৯৫২ সালের ২৪ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম মৃত মফিজ উদ্দিন সরদার, তিনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। আব্দুল ওয়াহাবের মায়ের নাম মৃত কফিজান বিবি। তার শৈশব ও কৈশোর কেটেছে নওগাঁ শহরে। দুই সন্তানের জনক আব্দুল ওয়াহাব ছাত্র জীবন থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতি মনে প্রাণে ধারণ করেন। ১৯৭৩ সালে উদ্ভিদ বিদ্যায় বিএসসি পাশ করেন। ১৯৮৭ সালে দ্বিতীয় কন্যা ইফফত আরার প্রথম শ্রেণিতে পড়াকালীন সময়ে আব্দুল ওয়াহাবের সহধর্মিণী মারা যান।

কিন্তু আওয়ামী লীগের রাজনীতিকে ওতপ্রোতভাবে জড়িত থাকার পাশাপাশি জনগণের সেবায় নিয়োজিত থাকায় তিনি দ্বিতীয় বিবাহ করেননি। পারিবারিক সূত্রে আওয়ামী লীগের একনিষ্ঠ কর্মী আব্দুল ওয়াহাব ১৯৯৪ সালে নওগাঁ থানা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ১৯৯৬ সালে নওগাঁ জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ক্লিন ইমেজের নেতা আব্দুল ওয়াহাব ২০১৮ সাল থেকে নওগাঁ জেলা কৃষকলীগের আহ্বায়ক পদে নিযুক্ত আছেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতে গিয়ে ট্রেনিং গ্রহণ করেন। আব্দুল ওয়াহাব একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। ১৯৯৩-১৯৯৯ সাল পর্যন্ত নওগাঁ পৌরসভার কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০৪ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত নওগাঁ পৌরসভার কাউন্সিলর, ২০১০-২০১৫ সাল পর্যন্ত নওগাঁ পৌরসভার কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়রের দায়িত্ব পালনকারী আব্দুল ওয়াহাব চকপ্রাণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও চকপ্রসাক ইসলামীয়া আলিয়া মাদ্রাসার সভাপতি। এছাড়া তিনি চকপ্রাণ জোকাবিলা দক্ষিণ পশ্চিম পাড়া জামে মসজিদের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। আব্দুল ওয়াহাব নীতিতে অটল। দুর্নীতি ও অনিয়মের সাথে তিনি আপোষ করেন না।

দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে আব্দুল ওয়াহাব বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সঠিক সিদ্ধান্তই নিবেন। যোগ্য ব্যক্তিকেই মনোনয়ন দিবেন। তিনি বলেন, করোনাকালীন সময় থেকে আমি নিজের এবং পরিবারের কথা চিন্তা না করে কর্মহীন হয়ে পড়া প্রায় ৫০ হাজার অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে খাবার সামগ্রী বিতরণ করেছি। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে আমার সাধ্যমত সহযোগিতা করে থাকি। আমি সব সময় দরিদ্র কৃষকের পাশে থেকেছি। অসহায় দরিদ্র জনগণের পাশে থাকা আমার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। বলতে পারেন এটা আমার নেশা। এলাকার জনগণ আমাকে নির্বাচন করতে উৎসাহ দিচ্ছেন। তাদের আশা পূরণের জন্য আমি নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী। আশা করছি দল আমাকে মনোনয়ন দিবে। নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে জয়ী হওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অংশীদার হয়ে পৌরবাসীর সেবা নিশ্চিত করতে চান আব্দুল ওয়াহাব।

১৯৬৩ সালের ৭ ডিসেম্বর ৩৮ দশমিক ৩৬ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে যাত্রা শুরু করা নওগাঁ পৌরসভাটি প্রথম শ্রেণির পৌরসভায় উন্নীত হয় ১৯৮৯ সালের ১৩ মে। বর্তমানে ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত এ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ১৬ হাজার ৯১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫৭ হাজার ১৭৫ জন এবং নারী ভোটার ৫৮ হাজার ৯১৬ জন।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x