৭ মার্চের ভাষণ বাঙালির মুক্তির সনদ: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী

৭ মার্চের ভাষণ বাঙালির মুক্তির সনদ: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী
পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম। ফাইল ছবি

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, ৭ মার্চ বাঙালি জাতির জীবনের শ্রেষ্ঠ দিন। এ দিন স্বাধীনতার মহাকাব্য পাঠ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যে স্বাধীনতার জন্য ত্রিশ লাখ মানুষ প্রাণ দিয়েছে, লাখ লাখ মা-বোনের ওপর জুলুম-অত্যাচার করা হয়েছে। এই স্বাধীনতা অর্জন ও নিপীড়িত মানুষের অধিকারের কথা বলতে গিয়ে বারবার কারাগারে যেতে হয়েছে বাঙালির মহান নেতা বঙ্গবন্ধুকে। সেই স্বাধীনতা অর্জনের পর মুক্তভূমিতে প্রাণ ভরে নিঃশ্বাস নেয় বাঙালি। আর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের মহান ভাষণ ছিল আমাদের বাঙালি জাতির জেগে ওঠার ও মুক্তির চূড়ান্ত সনদ।

সোমবার (৮ মার্চ) বিকেলে শরীয়তপুরের সখিপুর থানার ডিএমখালী ইউনিয়নের চরচান্দা উচ্চ বিদ্যালয়ে মাঠে ৬ ও ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সম্মেলনে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে তিনি তার বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

এনামুল হক শামীম বলেন, ষড়যন্ত্র ও হত্যার রাজনীতির মধ্য দিয়ে বিএনপির জন্ম হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে তারা স্বাধীনতার ইতিহাস বিকৃতি করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় বিএনপি এবার ৭ মার্চ পালনের নামে আবারও ইতিহাস বিকৃতির চেষ্টা করছে। তবে এদেশের জনগণ তথা নতুন প্রজন্ম জানে বিএনপি গণতান্ত্রিক দলের নাম দিয়ে স্বাধীনতা বিরোধী উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর এজেন্ডা বাস্তবায়নের পৃষ্ঠপোষকতা করে যাচ্ছে। একারণেই জনগণ বিএনপিকে বারবার প্রত্যাখ্যান করছে। তারা উন্নয়ন ও অগ্রগতির প্রতীক জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আস্থাশীল।

এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি সফিউদ্দিন বেপারীর ও ৯ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক নবি হোসেন মোল্যার সঞ্চালনায় সম্মেলনের উদ্বোধন করেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জসিম মুন্সী। বিশেষ অতিথি ছিলেন, সখিপুর থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান মানিক সরকার, জেলার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক কাওসার আহমেদ তকি, থানার উপদেষ্টা ফিরোজ সরদার, আজাহারুল ইসলাম ঢালী, আহমদ উল্যাহ খান, সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন বালা, নাসির সরদার, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক এবং ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন হক আবু, সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন সিকদার, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক কবির সরকার, সহ-দপ্তর সম্পাদক মজিবুর রহমান, সদস্য আলী আহম্মদ ভূঁইয়া, মাহবুব মাল। প্রধান বক্তা ছিলেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক বেপারী।

উপমন্ত্রী শামীম আরও বলেন, স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশকে একটি সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলায় পরিণত করাই ছিল বঙ্গবন্ধুর আজীবনের লালিত স্বপ্ন। আর বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে ২০৪১ সালে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করতে ‘রূপকল্প-২০২১’ ও ‘রূপকল্প-২০৪১’ ঘোষণা করেছেন। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে তাদের (বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার) স্বপ্ন বাস্তবায়নে দলমত-নির্বিশেষে সকলকে কাজ করার আহবান জানাচ্ছি।

ইত্তেফাক/এমএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x