‘স্ত্রী যদি সমর্থন না দিতেন তাহলে সেলিম ওসমান হতে পারতাম না’

প্রকাশ : ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:১১ | অনলাইন সংস্করণ

  নারায়ণগঞ্জ, স্টাফ রিপোর্টার

সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। ছবি: স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেছেন, এ সরকারের আমলে আপনাদের এলাকায় যতদ্রুত উন্নয়ন হয়েছে এর কৃতিত্ব এই এলাকার চেয়ারম্যান মতিউর রহমান বা আমি এমপি সেলিম ওসমানেরও নয়। এই কৃতিত্ব বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় আলীরটেক ইউনিয়নবাসীর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে কুড়েরপার শেখ রাসেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

সেলিম ওসমান বলেন, নারায়ণগঞ্জে আমার দাদার বাড়িতে আওয়ামী লীগের জন্ম। দাদা বাবা ভাই সবাই আওয়ামী লীগের এমপি ছিলেন এবং সবাই এই এলাকায় কাজ করেছেন। এখন আমিও আপনাদের গোলামী করছি। কিন্তু একটু কষ্ট আমি উনাদের মত আওয়ামী লীগের এমপি হতে পারি নাই। কিন্তু যেখানে নৌকা নাই সেখানে লাঙ্গলই শেখ হাসিনার মার্কা এটা শুনে খুব আনন্দ লাগে। তবে আমি আশা করছি আগামীতে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনেই নৌকা প্রতীকের প্রার্থী দেওয়া হবে। 

এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা আপনাদের সন্তানদের স্কুলে পাঠাবেন। তাদেরকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করবেন তাহলে দেখবেন আগামীতে কাকে এমপি বানাবেন সেই মানুষটিকে আপনাদের খুঁজতে হবে না।

তিনি আরো বলেন, এখানকার মানুষের সুবিধা হলো এখানে ইন্ডাস্ট্রির চেয়ে কৃষি কাজ ভালো হয়। এখানে আলুর ফলন ভালো হয়। কিন্তু এখানে কোনো আলুর চিপস বানানোর কারখানা নেই। যদি এখানে চিপসের কারখানা থাকতো তাহলে এলাকার মানুষের কর্মসংস্থান হতো। আপনারা আপনাদের বাড়ির মহিলাদের সম্মান দেন। তাদের সহযোগিতা করেন। আমার স্ত্রী যদি আমাকে সমর্থন না দিতেন তাহলে আজ আমি সেলিম ওসমান হতে পারতাম না। তিনি মহিলাদের সমবায়ের ভিত্তিকে কাজ করার আহ্বান জানান।

আরো পড়ুন: কিশোর ছাত্রকে নগ্ন ছবি পাঠানোর দায়ে মার্কিন শিক্ষিকা গ্রেপ্তার

মতবিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সাবেক কমান্ডার মোহাম্মদ আলী, বিকেএমইএ প্রথম সহ সভাপতি মনসুর আহম্মেদ, জেলা পিপি অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন, জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক আবুল জাহের, মহানগর জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব আকরাম আলী শাহীন, আলীরটেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতিউর রহমান ও সাবেক চেয়ারম্যান জাকির হোসেনসহ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গরা।

ইত্তেফাক/জেডএইচ