ঢাকা শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
১৮ °সে

সমাজই বাংলা একাডেমির ভিত্তি ও অবস্থান

সমাজই বাংলা একাডেমির  ভিত্তি ও অবস্থান
বাংলা একাডেমির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে গতকাল বেলুন উড়িয়ে কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয় —ইত্তেফাক

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে অধ্যাপক আনিসুজ্জামান

ইত্তেফাক রিপোর্ট

নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বাংলা একাডেমির ৬৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন করা হয়েছে। একাডেমির রবীন্দ্রচত্বরে ‘বাংলা একাডেমি ও আমাদের সমাজ’ শীর্ষক বাংলা একাডেমি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বক্তৃতা-২০১৯ প্রদান করেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী। স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলা একাডেমির সচিব মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রয়াত ভাষাসংগ্রামী রওশন আরা বাচ্চুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, বাংলা একাডেমির মতো প্রতিষ্ঠান সমাজকে সংস্কৃতিপ্রিয় হতে সাহায্য করে। সমাজের সংস্কৃতির প্রতি ভালোবাসার একটা ক্ষেত্র থাকতে হবে, তবেই তার মধ্যে অবস্থিত প্রতিষ্ঠান থেকে সে গ্রহণ করতে সমর্থ হবে। বাংলা একাডেমি নিঃসঙ্গ দ্বীপের মতো নয়। সমাজে তার অবস্থান, সমাজেই তার ভিত্তি। সেই ভিত্তিটা যত শক্ত হয়, উভয়ের ততই মঙ্গল।

সভাপতি মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী বলেন, ‘ছয় দশকের পরিক্রমায় বাংলা একাডেমি আজ এক আলোক-বৃক্ষের নাম। বাংলা একাডেমিকে ঘিরে সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা এতটাই বিপুল যে, আমাদের সীমিত সাধ্যে তা তাত্ক্ষণিকভাবে পূরণ করা সম্ভব নয়, তবু আমরা বাঙালির এই প্রাণের প্রতিষ্ঠানকে জাতির মনন-আকাঙ্ক্ষার উপযুক্ত করে গড়ে তোলার জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’

সন্ধ্যায় আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে স্মৃতিচারণ, সংবর্ধনা জ্ঞাপন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। স্মৃতিচারণে অংশ নেন একাডেমির প্রাক্তন মহাপরিচালক, সচিব, পরিচালক ও উপপরিচালকবৃন্দ। গুণীজনদের একাডেমি পরিবারের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা জ্ঞাপন করা হয়।

স্মৃতিচারণে অংশ নেন—একাডেমির বর্তমান সভাপতি অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, একাডেমির প্রাক্তন সভাপতি ও মহাপরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ, প্রাক্তন মহাপরিচালক অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, অধ্যাপক মনসুর মুসা, অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, অধ্যাপক আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ; প্রাক্তন পরিচালক—ফরহাদ খান, আব্দুল হান্নান ঠাকুর, জাকিউল হক, নুরুল ইসলাম, এনায়েত করীম এবং প্রাক্তন উপপরিচালক আনোয়ার হোসেন, আব্দুল মজিদ, মুর্শিদুদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

সকালে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন একাডেমির সভাপতি আনিসুজ্জামান ও মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী। এরপর মহান ভাষা আন্দোলনের অমর শহিদদের স্মৃতির প্রতি কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে এবং বাংলা একাডেমির স্বপ্নদ্রষ্টা ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্র সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয়।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন