ঢাকা সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬
২৯ °সে


নাচে গানে ছায়ানটের বসন্ত উদযাপন

নাচে গানে ছায়ানটের  বসন্ত উদযাপন
গতকাল ছায়ানট ভবনে বসন্তের অনুষ্ঠানে গীতনৃত্য পরিবেশন —সামসুল হায়দার বাদশা

রবীন্দ্র, নজরুল ও অতুলপ্রসাদ সেনের গান আর গানের সঙ্গে নাচের পরিবেশনা দিয়ে ছায়ানট সাজিয়েছিল তাদের বসন্তের অনুষ্ঠান। নতুন পাতা আর বসন্তের ফুলের যে রঙ গাছে গাছে সে আনন্দের আলো সবার মাঝে ছড়িয়ে আহ্বান জানালেন শিল্পীরা গানে, নাচের ছন্দে।

সমবেত কণ্ঠে ‘আজি দখিন-দুয়ার খোলা; এ গানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। এরপরেই একক গান নিয়ে আসেন সঞ্চারী অধিকারী। তিনি শোনান ‘আজ সবার রঙে রঙ মিশাতে হবে’, শারবিন খন্দকার শোনান ‘আকাশ আমায় ভরল আলোয়’, কৌশিক সাহা গাইলেন কাজী নজরুল ইসলামের ‘নতুন পাতার নুপূর বাজে’, সুস্মিতা দত্ত সৃষ্টি ও তাসফিয়া আহমেদ অত্রি দ্বৈত কণ্ঠে শোনান ‘ওরে ভাই ফাগুন লেগেছে বনে বনে’।

এরপর সম্মেলক কণ্ঠে গানের সঙ্গে নাচের সঙ্গে শিল্পীদের পরিবেশনা ‘ফাগুন, হাওয়ায় হাওয়ায় করেছি যে দান’, অর্পিতা সরকার গাইলেন ‘ওরা অকারণে চঞ্চল’, সমুদ্র শুভম গেয়ে শোনান নজরুলসঙ্গীত ‘আসে বসন্ত ফুলবনে’, তাসনিয়া আশরাফ শোনান ‘এই মৌমাছিদের ঘরছাড়া কে করেছে রে’, নৃত্য-গীতে শিল্পীরা এরপরে পরিবেশন করেন ‘সব দিবি কে সব দিবি পায়’, সংহিতা ঢালী খেয়া ‘ওরে গৃহবাসী, খোল দ্বার খোল’।

স্বর্ণালী রানী চন্দ ও ফাবিহা আবার দ্বৈত কণ্ঠে গেয়ে শোনান নজরুলসঙ্গীত ‘আয় বনফুল ডাকিছে মলয়’, আভেরি রহমান শোনান ‘সহসা ডালপালা তোর উতলা যে’, এরপরেই সম্মেলক কণ্ঠের পরিবেশনা ‘বসন্তে ফুল গাঁথলো’, নিশাত আঞ্জুম সাকি শোনালেন ‘ও মঞ্জরী, ও মঞ্জরী’, কর্নিকা দাশগুপ্তা শোনালেন নজরুলসঙ্গীত দোল ফাগুনের দোল লেগেছে’, শৌনক দেবনাথ ঋক ও তাওসিফুজ্জামান অনন্ত যুগল কণ্ঠে পরিবেশন করেন ‘বসন্তে কি শুধু কেবল’।

সম্মেলক কণ্ঠে অতুলপ্রসাদ সেনের একটি গানই পরিবেশন করেন শিল্পীরা ‘মোরা নাচি ফুলে ফুলে’। নৃত্য-গীতে শেষ পরিবেশনা ছিল ‘রাঙিয়ে দিয়ে যাও’। পরে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শেষ হয় অনুষ্ঠান।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন