নোয়াখালীতে বিএনপি প্রার্থীদের সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশ : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নোয়াখালী: গণগ্রেফতার ও প্রচারণায় হামলা-ভাঙচুর এবং ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শনের প্রতিবাদে জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ছয় প্রার্থী —ইত্তেফাক

নোয়াখালী প্রতিনিধি

জেলা আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে শনিবার সংবাদ সম্মেলন করেছেন নোয়াখালীর ৬টি সংসদীয় আসনের বিএনপি প্রার্থীরা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী এবং সমর্থকদের গণগ্রেফতার, মিথ্যা মামলা দায়ের, নির্বাচনী গণসংযোগকালে প্রার্থীদের ওপর হামলা, গাড়ি, মাইক ভাঙচুর ও ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ এবং প্রশাসনের পক্ষপাতমূলক ভূমিকার প্রতিবাদে তারা এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

নোয়াখালী জেলা বিএনপি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম হায়দার। এ সময় বক্তব্য রাখেন, নোয়াখালী-১ আসনের বিএনপি প্রার্থী দলের যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকন, নোয়াখালী-২ আসনের বিএনপি প্রার্থী দলের চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদীন ফারুক, নোয়াখালী-৩ আসনের বিএনপি প্রার্থী দলের ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্যা বুলু, নোয়াখালী-৪ আসনের বিএনপি প্রার্থী দলের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান, নোয়াখালী-৫ আসনের বিএনপি প্রার্থী দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও নোয়াখালী-৬ আসনের বিএনপি প্রার্থী ফজলুল আজিম।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ তার বক্তব্যে বলেন, এ প্রহসনের নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত বিএনপি প্রার্থীরা মাঠে থাকবে। এ সময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, নোয়াখালী-৫ আসনটি আওয়ামী লীগের মতো ঐতিহ্যবাহী একটি দলের সাধারণ সম্পাদকের নির্বাচনী এলাকা, এটি আমারও নির্বাচনী এলাকা। এ এলাকায় সুষ্ঠু ও সুন্দর একটি নির্বাচনী পরিবেশ বিরাজ করার কথা থাকলেও তা নেই। আমাকে নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দেয়া হচ্ছে ও আমার দলের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালানো হচ্ছে।

আরেক প্রার্থী বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান বলেন, তার নির্বাচনী এলাকায় যুবলীগের এক নেতার হত্যাকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে দলের কয়েকশ’ নেতাকর্মীকে মিথ্যা মামলায় আসামি করা হয়েছে। নির্বাচনী প্রচারকালে দলীয় নেতাকর্মীদের ওপর হামলা, প্রচারে বাধা, মাইক ভাঙচুর ও বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ভোটারদের হুমকি দেয়া হচ্ছে। এতে করে আমার নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় বাধার সৃষ্টি হচ্ছে এবং নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে।

এ সময় নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণার সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনারের প্রতি জোর দাবি জানান বিএনপির প্রার্থীরা।