ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬
৩৪ °সে

নালিতাবাড়ীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

হুমকিতে বেড়িবাঁধ
নালিতাবাড়ীতে অবৈধভাবে  বালু উত্তোলন
নালিতাবাড়ী (শেরপুর):কাচিমৌ এলাকায় চেল্লাখালী নদী তীরবর্তী বেড়িবাঁধ সংলগ্ন আবাদি জমি খুঁড়ে উত্তোলন করা হচ্ছে বালু —ইত্তেফাক

নালিতাবাড়ী উপজেলায় নদী তীর ধ্বংস করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে করে হুমকির মধ্যে রয়েছে নন্নী ইউনিয়নের কাচিমৌ এলাকায় চেল্লাখালী নদী ও নদী তীর রক্ষায় নির্মিত বেড়িবাঁধটি।

সরেজমিনে জানা গেছে, উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান বন-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক নয়াবিল ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান কবীর হোসেন দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে পরিবেশ রক্ষার পরিবর্তে চালিয়ে আসছেন ধ্বংসযজ্ঞ। কবীর নয়াবিল ইউনিয়নের মানুপাড়া ও সিধুলী এলাকায় সমতল ভূমি ও আবাদি জমি খুঁড়ে গর্ত করে শত শত ট্রাক বালু উত্তোলন করেছেন। প্রতিনিয়ত ট্রাকে করে ২০-৩০ টন ওজনের বালু বহনের ফলে নয়াবিল থেকে মানুপাড়া পর্যন্ত পাকা সড়কটি প্রায় দুই বছর যাবত্ চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

এদিকে গত অন্তত ছয় মাস যাবত্ চেল্লাখালী নদী ও তীর রক্ষায় নির্মিত বেড়িবাঁধ ঘেঁষে কবীর হোসেনসহ অন্তত ১০ জন বালু ব্যবসায়ী অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। এ এলাকায় নদীতে বালু না থাকলেও নদী তীরবর্তী বেড়িবাঁধ ঘেঁষে সমতল উর্বর আবাদি জমি লিজ নিয়ে ১২-১৫টি মেশিনে প্রতিনিয়ত গভীর গর্ত খুঁড়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। ফলে একদিকে ভাঙছে নদী তীর, অপরদিকে বিধ্বস্ত হচ্ছে বেড়িবাঁধ। এদিকে কবীর হোসেনের কাছে জানতে চাইলে বালু উত্তোলনের বিষয়টি স্বীকার করে অবৈধ সুবিধা প্রদানের লোভ দেখিয়ে বলেন, সবাইকে তো চলতে হবে।

অপর বালু ব্যবসায়ী হামিদুল জানান, আমি ব্যক্তিগত জায়গা থেকে বালু উত্তোলন করছি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন