ঢাকা শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬
২৯ °সে


নির্মাণের ১৫ দিনের মাথায় গার্ডওয়াল ভেঙে সড়কে ধস

নির্মাণের ১৫ দিনের মাথায়  গার্ডওয়াল ভেঙে সড়কে ধস
শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) : কালীঘাট-কমলগঞ্জ সড়কের বিলাসছড়া এলাকায় গার্ডওয়াল ভেঙে সড়কে ধস —ইত্তেফাক

চরম দুর্ভোগে স্থানীয়রা

অনুজকান্তি দাশ, শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) সংবাদদাতা

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে কালীঘাট থেকে কমলগঞ্জে যেতে বিলাসছড়া এলাকার সড়ক বেহাল বলে জানা গেছে। সম্প্রতি এলজিইডি কর্তৃক রাস্তার পাশে বিভিন্ন স্থানে গার্ডওয়াল নির্মাণের কাজ সম্পন্ন হলেও ১৫ দিনের মাথায় গার্ডওয়াল ভেঙে বিলাসছড়া এলাকায় রাস্তায় ধস দেখা দিয়েছে। ফলে এ রাস্তা দিয়ে যান চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এছাড়া রাস্তাটিতে ধস সৃষ্টি হওয়ায় শহরে যাতায়াত করতে বিলাসছড়া, হারপাছড়া, হোসেনাবাদ, নন্দরানী, জঙ্গলবাড়ী, ৬নং, ১২নং ও ১৭নং পুঞ্জির কয়েক হাজার মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

জানা যায়, শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালীঘাট চা বাগান হতে কমলগঞ্জের ধলই ও পাত্রখোলা চা বাগানের সাথে বিকল্প রাস্তা হিসেবে দীর্ঘ ১০ কিলোমিটারের এই সড়কটিতে প্রতিদিন ছোট-বড় কয়েকশ যানবাহন চলাচল করে। এসব যানবাহনে করে স্থানীয়রা প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে স্কুল, কলেজ, হাসপাতালসহ হাটবাজারে যাতায়াত করে থাকেন। রাস্তায় ধসের ফলে তাদের স্বাভাবিক চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানায়, মাসখানেক আগে রাস্তাটিতে সংস্কার কাজ করার সময় বিভিন্ন স্থানে রাস্তার পাশে গার্ডওয়াল নির্মাণ করা হয়। এ সময় কাজের সঠিক তদারকি না করায় ঠিকাদার তার ইচ্ছেমতো কাজ করে চলে যায়। এর প্রায় দুই/তিন সপ্তাহ পরেই বৃষ্টির পানিতে গার্ডওয়ালগুলো ভেঙে পড়ে।

এলাকার হারপাছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জয়নাল আবেদীন বলেন, শুধু বিলাসছড়া নয়, এই রাস্তার অধিকাংশ স্থানেই এ রকম অনেকগুলো ভাঙন দেখা দিয়েছে। তাছাড়া এ রাস্তায় ঝুঁকিপূর্ণ কয়েকটি ছোট ব্রিজ রয়েছে, যা দ্রুত মেরামত করা না হলে এ রাস্তা দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাবে। পার্শ্ববর্তী নন্দরানী চা বাগানের বাসিন্দা মনোরঞ্জন দাশ মনু ও জঙ্গলবাড়ি চা বাগানের ফারুখ মিয়া বলেন, উপজেলার বিভিন্ন চা বাগানের রাস্তা পাকাকরণ করা হলেও আমাদের এই রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরেই অবহেলায় পড়ে আছে। প্রশাসনে কেউ এদিকে নজর দিচ্ছেন না। রাস্তার বেহাল দশার কারণে এসব এলাকার অসুস্থ রোগীদেরকে নিয়ে যাতায়াতে বিরাট অসুবিধা হয়।

এলাকার কলেজ ছাত্র সঞ্জয় মুন্ডা, সুজিত রাজবংশী ও জামাল মিয়া বলেন, রাস্তাটিতে ভাঙনের ফলে কখনো কখনো এখানে যানবাহনের চাকা আটকে গিয়ে যানচলাচল বিঘ্নিত হয়। তখন অনেক দূর হেঁটে কলেজে যাতায়াত করতে হয়।

কালীঘাট চা বাগানের ২নং ওয়ার্ড সদস্য মো. শামছুল হক শামছু বলেন, আমরা স্থানীয়ভাবে রাস্তাটির বিভিন্ন ভাঙনে মাটির বস্তা দিয়ে সাময়িক মেরামতের ব্যবস্থা করেছি। এবার রাস্তার পাশে গার্ডওয়াল নির্মাণ করায় আমাদের আশা ছিল রাস্তাটি উন্নত হবে। কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই গার্ডওয়ালটি ভেঙে যাওয়ায় নতুন করে স্থানীয়দের মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী সঞ্জয় মোহন সরকার বলেন, সত্যিকারভাবে এখানে পানির বেগ সম্পর্কে আমাদের ধারণা ছিল না। তবে বিলাসছড়ায় খুব দ্রুত কাজটি পুনরায় সম্পন্ন করা হবে।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন