ঢাকা শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
৩২ °সে


নৌপথে ফেরি সংকট

নৌপথে ফেরি সংকট

গতকাল ইত্তেফাকে প্রকাশিত একটি খবরে বলা হইয়াছে যে, ফেরি সংকটে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে শত শত গাড়ি আটকা পড়িয়াছে। ইহাতে শুরু হইয়াছে তীব্র যানজট। বাস যাত্রীরা চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়িয়াছেন। পণ্যবাহী ট্রাকে বিশেষত শাক-সবজির মতো দ্রুত পচনশীল পণ্য নষ্ট হইবার উপক্রম হইয়াছে। এই দুর্ভোগকে কেন্দ্র করিয়া কেহ কেহ অনৈতিক চাঁদাবাজিতেও লিপ্ত হইতেছে। প্রতি বত্সর বিভিন্ন সময় এই গুরুত্বপূর্ণ ঘাটটিতে এমন দুর্ভোগ সৃষ্টির কারণ মূলত দুইটি। প্রথমত নাব্য সংকটে ফেরি চলাচল বন্ধ হইয়া গেলে বা ব্যাহত হইলে এই সংকট মারাত্মক আকার ধারণ করে। বর্ষাকালে নৌপথগুলি সচল থাকিলেও অন্যসময় উজান হইতে আসা পলিবালু জমিয়া নৌচ্যানেল অনেকটা ভরাট ও সরু হইয়া যায়। চ্যানেলের বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয় ডুবোচর। আবার নদীর পানি কমিবার কারণেও নৌপথে দেখা দেয় এই নাব্য সংকট। দ্বিতীয়ত খোদ ফেরি সংকটও এই সমস্যাকে করিয়া তোলে প্রকট। বর্তমানে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে যে সংকট বিরাজ করিতেছে তাহা ফেরির স্বল্পতারই ফল। ইহার কারণ চলাচলকারী অনেক ফেরিই পুরাতন ও লক্কর-ঝক্কর প্রকৃতির। এই কারণে বিভিন্ন সময় দেখা দিতেছে যান্ত্রিক ত্রুটি এবং তাহা ঘন ঘন বিকল হইয়া পড়িতেছে। ইহাতে ব্যাহত হইতেছে স্বাভাবিক ফেরি চলাচল। ইহা যাত্রী ও পরিবহনশ্রমিকদের জন্য অসহনীয় ও বহুমুখী দুর্দশা ডাকিয়া আনিতেছে।

বিআইডাব্লিউটিসির সূত্র মতে, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথ দিয়া প্রতিদিন কয়েক হাজার বিভিন্ন গাড়ি ফেরি পারাপার করা হয়। এই ফেরি বহরে রহিয়াছে দশটি রো রো (বড়) ফেরি। তন্মধ্যে বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান, বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান ও কেরামত আলী নামের তিনটি বড় ফেরি কয়েক কয়েক মাস যাবত্ বিকল হইয়া আছে। মেরামত কাজের জন্য এই তিনটি ফেরিকে পাঠানো হইয়াছে নারায়ণগঞ্জ ডকইয়ার্ডে। শাহ পরাণ নামে অপর একটি বড় ফেরি দৌলতদিয়া ঘাট হইতে প্রত্যাহার করিয়া স্থানান্তর করা হইয়াছে মাওয়ায়। ইহার পাশাপাশি কে-টাইপ ফেরি কুমারী যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বিকল হওয়ায় তাহা পাটুরিয়ার ভাসমান কারখানা মধুমতিতে রহিয়াছে। সেখানে চলিতেছে তাহার মেরামত কাজ। এভাবে ছোট-বড় মিলিয়া চারটি ফেরি বিকল থাকায় এবং একটি বড় ফেরি প্রত্যাহার করায় এই নৌপথে ফেরির সংকট বড় হইয়া দেখা দিয়াছে। দুই ঘাটেই ফেরির টিকিট সিরিয়ালে আটকা পড়িতেছে বিভিন্ন যানবাহন।

শুধু দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথেই নহে, মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি হইতে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়াসহ দেশের বিভিন্ন নৌপথে প্রায়শ ফেরি ও নাব্যতা সংকট দেখা দেয়। এই সরকারের আমলে ব্যাপক হারে নদ-নদীর ড্রেজিং করায় নাব্য সংকট বলিতে গেলে এখন তেমন একটা নাই। কিন্তু প্রায় সব নৌপথেই এখন রহিয়াছে পর্যাপ্ত ফেরির অভাব। দেখা যাইতেছে আমরা সড়ক-মহাসড়কে জীর্ণশির্ণ ও লক্করঝক্কর গাড়ি তুলিয়া লইবার ব্যাপারে যতটা সচেতন, ততটা নৌপথের জাহাজ ও ফেরির ব্যাপারে নই। পুরাতন ফেরির বদলে নূতন ফেরি দেওয়া সময়ের দাবি। তাহা ছাড়া এইসব ফেরি নিয়মিত রক্ষাণাবেক্ষণ করিতে হইবে যাহাতে তাহা দ্রুত নষ্ট না হয়। আমরা আশা করি, দেশের সব নৌপথের উন্নয়নে ও দুর্ঘটনা এড়াইতে যথাযথ স্থানে সাইন-সিম্বল দিতে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যথাযথ ও কার্যকর পদক্ষেপ নিবেন।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন