ঢাকা রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬
২৮ °সে


বিষয়টি আমাদের জন্যও শিক্ষণীয় বটে

বিষয়টি আমাদের জন্যও শিক্ষণীয় বটে

প্রবাদ আছে—কুসন্তান যদিও হয়, কুমাতা কদাপি নয়। সৃষ্টির সেরা জীব মানুষের জন্যই এই প্রবাদ। যদিও অত্যন্ত বিরল কিছু ক্ষেত্রে কুমাতারও আবির্ভাব ঘটে। তবে উহাকে কেবল ব্যতিক্রমই নহে, পারিপার্শ্বিক বিভিন্ন পরিস্থিতি বিচারে মনস্তাত্ত্বিক ভাবে অসুস্থ অভিধায় ভূষিত করা হইয়া থাকে। কেবল মানুষের ক্ষেত্রেই নহে, প্রকৃতিতে মাতৃত্বকে এক অপার শক্তি হিসাবে বিবেচনা করা যায়। প্রতিটি প্রাণী বাচ্চা প্রসবের পর নির্দিষ্ট সময়কাল অবধি তাহার বাচ্চাকে আগলাইয়া রাখে নিজের জীবন বাজি রাখিয়া। জীব প্রজাতি টিকিয়া থাকিবার ক্ষেত্রে ইহা প্রকৃতিজগতের অন্যতম বড়ো বৈশিষ্ট্য; কিন্তু কোনো শাবককে যদি তাহার মাতা জন্মদানের পর খাইয়া ফেলে তবে তাহা কেবল ভয়ংকর এক অভিঘাতই নহে, প্রকৃতিবিরুদ্ধও বটে। গত ৫ আগস্ট বার্লিনের চিড়িয়াখানায় এমনই একটি ঘটনা ঘটিয়াছে। বাচ্চা জন্ম দেওয়ার তিন দিন পর একটি সিংহী খাইয়া ফেলিয়াছে তাহার শাবক দুইটিকে। বার্লিন চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষ পুরা ঘটনাটিতে বিস্মিত হইয়াছে প্রবলভাবে। ঐ চিড়িয়াখানার মুখপাত্র মারিয়া সাগিবার্থ বলিয়াছেন যে, বাচ্চাগুলিকে খাইবার পূর্বে সিংহীর আচার-আচরণে কোনো অস্বাভাবিকত্ব চোখে পড়ে নাই। এমনকি বাচ্চাগুলিকে খাইবার পরও স্বাভাবিকভাবেই খাওয়া-দাওয়া করিয়াছে সে।

বিভিন্ন জীবজন্তু তাহার শাবককে সব বিপদ হইতে আগলাইয়া রাখিবার দুর্দান্ত সব ভিডিও ফুটেজ অ্যানিমেল প্লানেট এবং ন্যাটজিও চ্যানেলে বিশ্বব্যাপী কোটি কোটি মানুষ দেখিয়া থাকে প্রতিনিয়ত। যদিও বিড়াল জাতীয় প্রাণীর ক্ষেত্রে পুরুষগোত্রীয়রা মাঝে-মধ্যে তাহার স্বজাতিকে ভক্ষণ করিয়া থাকে। তবে এইক্ষেত্রে কোনো বিড়াল, বাঘ বা সিংহ যখন তাহার প্রতিদ্বন্দ্বীর নিকট নিহত হয়, তখন নূতন দলনেতা তাহার দখলকৃত স্ত্রীদের পূর্ব দলনেতার ঔরসজাত শাবকদের হত্যা করিয়া ফেলে নূতন করিয়া নিজস্ব বংশ বিস্তারের জন্য; কিন্তু কোনো সিংহ কিংবা সিংহীকে নিজের শাবক হত্যা করিতে দেখা যায় না। যদিও ডার্বি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞ মারেন হাক মনে করেন, বাচ্চা যদি কোনো অস্বাভাবিক আচরণ করে বা অসুস্থ হয়, তাহা হইলে সিংহীর মধ্যে মাতৃত্বভাব সেইভাবে জাগিয়া উঠিতে নাও পারে। ফলে, শাবককে খাবার ভাবিয়া খাইয়া ফেলিতে পারে। প্রথম মাতৃত্বের ক্ষেত্রেই সাধারণত এই ঘটনার সম্ভাবনা বেশি থাকে। বার্লিনের সিংহীটিও প্রথমবার মা হইয়াছিল। তবে বন্দিদশায় সিংহী যদি কোনো কারণে বিরক্ত বা অবসাদগ্রস্ত থাকে, তবে বাচ্চা খাইয়া ফেলিবার ঘটনা অস্বাভাবিক নহে বলিয়া মনে করেন ডার্বি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞ। এই বিষয়টি বিশেষভাবে উল্লেখ করিবার মতো। অর্থাত্ পশুদের মনের ওপর যদি প্রবল চাপ পড়ে তবে তাহারাও প্রকৃতিবিরুদ্ধ আচরণ করিতে পারে।

এই জগতে যত প্রকৃতিবিরুদ্ধ ঘটনা দেখা যায়, বহু ক্ষেত্রেই তাহার নেপথ্যে রহিয়াছে মানসিক যন্ত্রণা। প্রকৃতির সুষমা ও সুশৃঙ্খলার ভিত্তি ভাঙিয়া পড়িতে পারে কোনো প্রাণীর মন বিগড়াইয়া গেলেও। আর তাহা ঘটে দীর্ঘদিনের নিষ্পেষণে বা প্রবল চাপে। এই বিষয়টি আমাদের জন্যও শিক্ষণীয় বটে।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৮ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন