ঢাকা বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬
২৭ °সে


থমকে যাননি পেদ্রো আলমদোভার!

থমকে যাননি পেদ্রো আলমদোভার!

ধ্রুপদ

বিনোদন ডেস্ক

বয়স কম হয়নি, ৭০ বছর বয়সেও বেশকিছু দারুণ সিনেমা উপহার দিতে চান পেদ্রো আলমদোভার। স্প্যানিশ এই পরিচালকের সর্বশেষ সিনেমা ‘পেইন অ্যান্ড গ্লোরি’। চলতি বছরের ১৩ মার্চ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে মুক্তি পায় এটি। এরপর গুঞ্জন উঠেছিল, তিনি আর সিনেমাই বানাবেন না। কিন্তু সম্প্রতি সবার ধারণা ভুল প্রমাণ করতে যাচ্ছেন পেদ্রো আলমদোভার।

পেদ্রো বলেন, ‘পেইন অ্যান্ড গ্লোরি দেখে অনেকার ধারণা জন্মেছিল আমি রূপালি জগত্ থেকে বিদায় নিয়েছি। কিন্তু এটা ঠিক নয়। আগামীকাল কী ঘটবে আমি জানি না। কিন্তু না, আমি নিশ্চিতভাবেই ছবি বানানো চালিয়ে যেতে চাই। কারণ এটা শুধু আমার নেশা নয়, দর্শকদেরও নেশা। পার্থক্য হচ্ছে আমি বানাচ্ছি, তারা দেখছে।’

পেদ্রো যে সিনেমার কাজে হাত দিয়ে, তা একেবারেই নতুন গল্প। তিনি এও জানিয়েছেন, কোনো গল্প বা চলচ্চিত্রের কোনো অংশের সঙ্গে মিলবে না। জানা গেছে, এক আমেরিকান লেখকের ৫টি গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবির কাহিনি। ছবির পটভূমি টেক্সাস, ওকল্যান্ড ও মেক্সিকো। সঙ্গে তিনি আরো দুটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের পরিকল্পনাও করেছেন। এর একটি ১ ঘণ্টার, অন্যটি ২০ মিনিটের। এ ছবি দুটি আগামী বছর পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে হাত দেওয়ার আগেই শেষ করতে পারবেন বলে মনে করছেন।

তার সর্বশেষ সিনেমা ছবি ‘পেইন অ্যান্ড গ্লোরি’ কিছুদিন আগে আমেরিকায় মুক্তি পেয়েছে। নিউ ইয়র্কে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আমার এ ছবির ক্ষেত্রে মনে হয়েছে অতীতের চেয়ে এ ছবিতে আমি দর্শকদের কাছে সরাসরি পৌঁছাতে পেরেছি। তাদের প্রতিক্রিয়া এমন, তারা প্রত্যাশা করছে একই স্বাদের এ রকম আরেকটি ছবি যেন আমি বানাই। কিন্তু আমার সাধারণ অনুভূতি এর বিপরীত।’

পেইন অ্যান্ড গ্লোরি ছবির গল্পে ফুটে ওঠে স্প্যানিশ চলচ্চিত্র পরিচালক সালভাদর মালোর জীবন। যার ভূমিকায় আমরা ভগ্ন স্বাস্থ্যের অ্যান্তোনিও বান্দেরাসকে দেখি। যাকে অনায়াসেই পেদ্রো আলমদোভারের কমিক আইকন হিসেবেও ধরে নেওয়া যায়, যে লড়াই করেছে মাদকাসক্তির বিরুদ্ধে, নিজের ভেতরের কপটতার সঙ্গে এবং প্রায় বুড়িয়ে আসা শরীরকে সচল রাখার সঙ্গে। ফলে চলচ্চিত্র বোদ্ধা ও দর্শক-সমালোচকদের এ ছবি দেখে মনে হতেই পারে ৭০ বছরের পরিচালক এখন চূড়ান্ত বিদায় লগ্নে এসে হাজির হয়েছেন। কিন্তু সবার ধারণাই ভুল! পেদ্রো ভবিষ্যত্ পরিকল্পনা নিয়ে বলেন, ‘যেকোনোভাবেই হোক, আমার মনে হচ্ছে আমি নতুন এক পর্ব শুরু করতে যাচ্ছি, হয়তো এ পরিক্রমা আমার অতীত কর্মকাণ্ডের চেয়েও অনেক সাহসী হতে চলেছে। দেখি কী হয়।’

পেদ্রো আলমদোভার

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৬ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন