ঢাকা রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬
২৭ °সে

#ট্র্যাশট্যাগ

#ট্র্যাশট্যাগ

ভিন্নচোখে ডেস্ক

গত কয়েকবছর ধরে একের পর এক ট্রেন্ডে আক্রান্ত হচ্চে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা। নিজের ১০ বছর আগের ছবির পাশে বর্তমান সময়ের একটি ছবির কোলাজ করা, চলন্ত গাড়ি থেকে লাফ দিয়ে নেমে পড়ে গানের তালে তালে নাচা, নিজের মাথায় বরফ পানি ঢেলে দেওয়াসহ আরো কত রকমের অর্থহীন চ্যালেঞ্জের দেখা মিললো সাম্প্রতিক সময়ে! এসব দেখে বিরক্ত হয়ে ওঠেন অনেকেই। অনেকেই বলেন, এমন কোনো ট্রেন্ড হতে পারে না? যেটা পৃথিবীটাকে আরেকটু সুন্দর করে দেবে।

পৃথিবীটাকে আরেকটু সুন্দর করে দেখতে চাওয়া মানুষগুলোর জন্য ‘ট্র্যাশট্যাগ’ নামের একটি চ্যালেঞ্জ শুরু হয়। এই চ্যালেঞ্জের মাধ্যমে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা আশেপাশের মানুষকে পরিবেশের ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করতে উত্সাহিত করছেন। ট্র্যাশট্যাগ চ্যালেঞ্জ বিষয়টা অনেকটা এমন, প্রথমে আপনার একটা জায়গা নির্বাচন করতে হবে যেখানে অনেক ময়লা আবর্জনা আছে। জায়গাটার একটি ছবি তুলতে হবে। তারপর পুরো জায়গাটা পরিষ্কার করে সব আবর্জনা বস্তাবন্দি করে ফেলতে হবে। তারপর বস্তাবন্দি আবর্জনাসহ জায়গাটার আরেকটি ছবি তুলতে হবে। এরপর ছবি দুটো জোড়া দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘#Trashtag’ হ্যাশট্যাগে পোস্ট করলেই হয়ে যাবে। আপনিও চ্যালেঞ্জে অংশ নিয়ে ফেললেন। পাশাপাশি অন্য একজন বন্ধুকে ট্যাগ করে একই কাজ করার জন্য চ্যালেঞ্জ জানাতে হবে।

পরিবেশের জন্য উপকারী এই ট্রেন্ডটি এবার শুরু হয় ‘দ্য সায়েন্টিস্ট’ নামের ইনস্টাগ্রাম পেজ থেকে। কিন্তু এই চ্যালেঞ্জের বীজ বোনা হয়েছিল ২০১৫ সালে। সেসময়ে একটি কোম্পানি #ট্র্যাশট্যাগ চ্যালেঞ্জকে জনপ্রিয় করার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু খুব বেশি মানুষ এটা আমলে নেয়নি। কয়েকদিন আগে ‘দ্য সায়েন্টিস্ট’ নামের ইনস্টাগ্রাম পেজ থেকে পোস্ট করা হয় একটি কোলাজ ছবি, যেটার ওপরের অংশে দেখা যায় একটি যুবক অত্যন্ত নোংরা একটি জায়গায় বসে আছে। নিচের অংশে ওই যুবক একই স্থানে দাঁড়িয়ে এবং জায়গাটি পরিষ্কার, বস্তায় বন্দি জঞ্জালসমূহ। ছবির সাথে লেখা ছিল ‘একঘেঁয়েমি থেকে বাঁচতে টিনএজারদের জন্য একটা নতুন চ্যালেঞ্জ। এমন একটা জায়গার ছবি তুলুন যেখানটা পরিষ্কার করার দরকার। পরের ছবিতে দেখান যে, আপনি ওই জায়গাটির ভোল কতটা পাল্টালেন।’

এর ফলশ্রুতি হিসেবে ইনস্টাগ্রাম, টুইটার, রেডিট ভরে উঠেছে অবর্জনাময় জায়গা পরিষ্কার করার আগে ও পরের ছবিতে। শুধু নিজের, নিজের বাড়ির চারদিকে নয়, রাস্তাঘাটে বা বেড়াতে গিয়েও ট্র্যাশ বা আবর্জনা দেখলে তা নিজেরা উদ্যোগ নিয়ে পরিষ্কার করছেন দেশ-বিদেশের বহু মানুষ।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন