ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
৩০ °সে


ছবি তুলতে...

ছবি তুলতে...

সুমী নূর

ঢাকা মানেই যেন যানজট, উঁচু-মাঝারি ভবন, জীবনের তাগিদে ছুটে চলা। এসবে অভ্যস্ত হয়ে যাওয়া মানুষগুলোও ছুটির দিনে ভালোভাবে নিঃশ্বাসটুকু ফেলতে চায়। ‘কিন্তু সে সুযোগ কি আছে?’ অনেকেরই প্রশ্ন। আছে, মিরপুরেই। ঢাকাবাসীর কাছে এবং ঢাকা শহরে প্রথমে যারা আসেন, তাদের প্রথম দর্শনীয় স্থান হলো বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানা।

কিন্তু আমরা ঠিক সে উদ্দেশ্য নিয়ে চিড়িয়াখানায় যাইনি! ঢাকার ফটোগ্রাফি প্রতিষ্ঠান ‘পাঠশালা’র বেসিক ৫৬ ব্যাচের ১৪ জন শিক্ষার্থী আউটডোর প্র্যাকটিসের জন্য গেলাম চিডিয়াখানায়। প্রথমে সবাই স্থান নিয়ে ভাবলাম সেখানে গিয়ে কী ফটোগ্রাফি করব, সেখানকার পরিবেশ তো ভালো না!

তবুও পরিকল্পনা মতো সকাল ৮টায় রওনা দিয়ে কথামতো সবাই মূল ফটকে অপেক্ষা করলাম মেন্টর আশরাফ স্যারের জন্য! সবাই আসার পর মাত্র ৩০ টাকা প্রবেশ মূল্য দিয়ে শুরু করলাম আমাদের ফটোগ্রাফারদের কাজ। গেটেই দেখা হলো একদল শিক্ষার্থীর সঙ্গে, যাদের স্কুল থেকে বেড়াতে নিয়ে আসা হয়েছে! অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে তারা খুব উত্সাহের সঙ্গে বানর, ভালুক, ময়ূর, উটপাখির খাঁচার সামনে মজা করে সেলফি তুলছিল! আমরা এর ফাঁকেই ফটোশুট প্র্যাকটিস করছিলাম আর তাদের আনন্দ দেখছিলাম! আরেকটু ভিতরে যেতেই আমরা যেন এক অন্য ঢাকা চিড়িয়াখানা আবিষ্কার করলাম! ঠিক ছবির মতো বড় পরিসরে টলটলে পানির লেক, প্রাচীন কয়েকটি অদ্ভুত সুন্দর গাছ, যার বিশাল শাখাগুলো খালের মাঝ বরাবর পর্যন্ত বিস্তৃত হয়ে আছে! পুরো দস্তুর যেন ঢাকার বুকে অজপাড়ার ছবি পেয়ে গেলাম! পেয়ে গেলাম মনমতো ছবি যান্ত্রিক ঢাকাতেই!

ছবি :লেখক

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৩ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন