ঢাকা শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
৩৪ °সে


লেটুস পাতা চাষে অধিক লাভ

লেটুস  পাতা চাষে অধিক লাভ

আমাদের দেশে লেটুস পাতার বেশ কদর রয়েছে। লেটুস পাতা কাঁচা অবস্থায় গাজর, টমেটো, বিট, পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ, লেবু ধনিয়াপাতা, লবণ মিশিয়ে সালাদ তৈরি করে খাওয়া যায়। ফলে এর পুষ্টিগুণ অটুট থাকে। ফাস্ট ফুডের দোকানে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। দেশে লেটুস পাতার বেশ চাহিদা থাকায় অনেক কৃষক বাণিজ্যিক ভিত্তিতে লেটুস পাতার চাষ করছেন। লেটুস পাতা সাধারণত আমাদের দেশে শীতের মৌসুমে উত্পন্ন হয়ে থাকে। ১৫ থেকে ২৫ সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় লেটুস পাতার ভালো ফলন হয়। বছরের সেপ্টেম্বর মাসের দিকে লেটুসের বীজ বপন করতে হয়। বীজ বপন অথবা চারা রোপণ করে লেটুসের চাষ করা যায়। শুষ্ক দোআঁশ মাটিতে লেটুসের ভালো ফলন হয়।

লেটুস সাধারণত দুই ধরনের হয়ে থাকে। একজাতের লেটুস বাঁধাকপির মত পাতা বাঁধে। যেমন, কিং ক্রাউন, কুইন ক্রাউন ইত্যাদি। অন্যজাতের লেটুস গাছেরপাতা ঢিলা, কোঁকড়ানো। যেমন, হোয়াইট বোস্টন, ব্লাক সিডেড সিম্পসন। এছাড়াও লেটুসের বিভিন্ন জাত রয়েছে। এসবের মধ্যে বারিলেটুস-১, বিগবোস্টন, প্যারিস হোয়াইট, গ্রান্ড ব্যাপিড, নিউইয়র্ক-৫১৫, ইম্পিরিয়াল-৫৪, সিম্পসন, কিং ক্রাউন, কুইন ক্রাউন, ডার্ক, গ্রিন, গ্রেটলেক প্রভৃতি। লেটুসের চাষ বাড়ীর আঙ্গিনায়, ছাদবাগান ও বারান্দায় চাষ করা যায়। ব্যাপক ভিত্তিতে লেটুসের চাষ করতে হলে জমিতে লেটুসের চাষ করা যায়। লেটুস চাষের জন্য জমি অবশ্যই উর্বর হতে হবে। মাটি হতে হবে ঝুরঝুরে। হাল্কা চাষ করে জমি তৈরি করতে হবে।

লেটুসের বীজ খুব ছোট হওয়ায় বীজ বপনের সময় বীজের সঙ্গে মাটির কনা অথবা ছাই ব্যবহার করা উচিত। প্রতি শতক জমির জন্য বীজ লাগবে এক গ্রাম। এতে চারা হবে ৩৫০ থেকে ৪০০টি। জমিতে গোবর, ইউরিয়া, টিএসপি এবং এমওপি সার প্রয়োগ করতে হবে। লেটুস চাষের জমিতে নিয়মিত সেচ দিতে হবে। মাটিতে রস না থাকলে সেচ দেওয়া জরুরি। আবার জমিতে পানি জমে থাকলে সাথে সাথে নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে হবে। তবে জমি স্যাঁতসেঁতে রাখা যাবে না। আশানুরূপ ফলন পেতে জমিকে সবসময় আগাছামুক্ত রাখতে হবে। লেটুসের চারা রোপণের একমাস পর খাওয়ার উপযুক্ত হয়। লেটুস পাতার বাজার দর বেশ চড়া হওয়ায় চাষিরা লেটুসের চাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান হয়ে থাকে। স্বল্প পুঁজি বিনিয়োগ করে এবং অল্প শ্রম দিয়ে লেটুসের চাষ করা যায়। বাড়ীর ছাদে অথবা বারান্দায় যারা লেটুসের চাষ করেন তারা তাদের নিত্য চাহিদা পূরণ করতে পারেন।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন