ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
৩০ °সে


দেশে নতুন সবজি ব্রাসেলস স্প্রাউ০ট

দেশে নতুন সবজি  ব্রাসেলস  স্প্রাউ০ট

g আবুল কাসেম ভূঁইয়া

বিশেষ করে শীত প্রধান দেশের অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং সুস্বাদু সবজি হচ্ছে ব্রাসেলস স্প্রাউট। ইউরোপ, আমেরিকাসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ব্রাসেলস স্প্রাউট উত্পন্ন হয়ে থাকে। শীত প্রধান দেশের মানুষেরা তাদের খাদ্য তালিকায় এই সবজিকে বিশেষ প্রাধান্য দিয়ে থাকে। আনন্দের খবর হলো শীত প্রধান দেশের জনপ্রিয় সবজি ব্রাসেলস স্প্রাউট এখন আমাদের বাংলাদেশে উত্পন্ন হচ্ছে। শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল কৃষি গবেষক এই নতুন জাতের সবজি আমাদের দেশে উত্পাদন করতে সক্ষম হয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে তারা এই সবজি চাষের ব্যাপারে গবেষণা চালিয়ে আসছেন। তারা বৃটেন থেকে ব্রাসেলস স্প্রাউট এর বীজ এনে পরীক্ষামূলক চাষ করেন। এবারের শীতের মৌসুমে প্রথমবারের মত ব্রাসেলস স্প্রাউট উত্পাদনে সফল হয়েছেন। শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদল বাংলাদেশে ব্রাসেলস স্প্রাউট সবজি চাষের ব্যাপারে বেশ আশাবাদী। যদিও আমাদের দেশ শীত প্রধান দেশ না হলেও আমাদের দেশে স্বল্প সময়ের জন্য যে শীত পড়ে এই সময় এই সবজি চাষের উপযুক্ত সময়। আমাদের দেশের জলবায়ু এবং মাটি এই সবজি চাষের জন্য বেশ উপযোগী। গবেষকদল আমাদের দেশে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ব্রাসেলস স্প্রাউট চাষের ব্যাপারে উদ্যোগ নিতে যাচ্ছেন। এব্যাপারে সারা দেশের কৃষকদেরকে এই জনপ্রিয় সবজি চাষের ব্যাপারে প্রশিক্ষণ প্রদান এবং শীতের মৌসুমে চারা বীজ সরবরাহের মাধ্যমে কৃষকদেরকে উত্সাহিত করা হবে। শীতের মৌসুমের আগে এই সবজির চারা রোপণ করা গেলে অধিক ফলনের আশা করা যায়।

ব্রাসেলস স্প্রাউট কপি জাতীয় সবজি। দেখতে অনেকটা বাঁধা কপির মত। প্রতিটি পাতার গোড়ায় বাঁধাকপির মত একটি করে ছোট্ট কুড়ি হয়। এই কুড়ি বাডটি হলো ব্রাসেলস স্প্রাউট। যা সবজি হিসেবে খাওয়া হয়। এমনিতেই কপি জাতীয় সবজিসমূহের মধ্যে ক্যান্সার প্রতিরোধী উপাদান বেশি থাকে। আমাদের দেশে উত্তরাঞ্চলে শীত দীর্ঘদিন স্থায়ী হওয়ায় সেখানে এই সবজি চাষ খুবই উপযোগী। এই সবজি আগাম চাষ করতে পারলে ফলন ভালো হবে। তাপমাত্রা বৃদ্ধির সাথে সাথে এর ফলন কমতে থাকে। ব্রাসেলস স্প্রাউট সবজির চাষাবাদ পদ্ধতি অনেকটা বাঁধা কপির মত। এর বীজ দেখতেও বাঁধা কপির মত। বীজ থেকে চারা হয়। এর চারা পরবর্তীতে মূল জমিতে লাগাতে হয়। গাছের উচ্চতা জাত ভেদে ২ থেকে ৪ ফুট বা তারও বেশি হতে পারে। ফসলের আয়ুস্কাল জাতভেদে ৯০ থেকে ১৬০ দিন। চারা রোপণের পর সাধারণত দুমাস পর থেকে গাছে ব্রাসেলস স্প্রাউট আসতে শুরু করে। প্রতিটি গাছে ৪০ থেকে ৬০টি ব্রাসেলস স্প্রাউট আসে। গাছে যতগুলো পাতা থাকে ততগুলো ব্রাসেলস স্প্রাউট হয়। স্প্রাউটগুলো ৭-১০ সেন্টিমিটার আকারের এবং ওজন প্রতিটি ৫০ থেকে ৭০ গ্রাম হয়।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৩ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন