ঢাকা মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২৭ °সে


পেঁয়াজ বিমানে উঠে গেছে আর চিন্তা নেই :প্রধানমন্ত্রী

অসত্ অর্থে ফুটানি করলে মানুষ বরদাশত করবে না দুর্নীতি সন্ত্রাস মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে
পেঁয়াজ বিমানে উঠে গেছে আর চিন্তা নেই :প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী গতকাল স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনের উদ্বোধন করেন —ফোকাস বাংলা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘পেঁয়াজ বিমানে উঠে গেছে। চাহিদা মেটাতে কার্গো বিমান ভাড়া করে পেঁয়াজ আনা হচ্ছে। কাজেই আর চিন্তা নেই। আগামীকাল বা পরশুর (রবি বা সোমবার) মধ্যেই পেঁয়াজ এলে দাম কমে যাবে।’ গতকাল শনিবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহ-রাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। দীর্ঘ প্রায় সাত বছর পর গতকাল অনুষ্ঠিত হলো সংগঠনটির তৃতীয় ত্রিবার্ষিক সম্মেলন।

পেঁয়াজের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধিতে সন্দেহ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘এর পেছনে কোনো কারসাজি কিংবা ষড়যন্ত্র আছে কি না, মূল্যবৃদ্ধির পেছনে কারা জড়িত তা খুঁজে বের করতে হবে। কারণ বাংলাদেশ যতই এগিয়ে যায়, মানুষ ভালো থাকে, তখন একটা না একটা ইস্যু তৈরি করে মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করা হয়।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখন পেঁয়াজ নিয়ে একটা সমস্যা। প্রায় সব দেশেই পেঁয়াজের দাম বেড়েছে এটা ঠিক। কিন্তু আমাদের দেশে কেন এবং কী কারণে এত অস্বাভাবিকভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে দাম বাড়ছে জানি না। যে কারণে আমি ব্যবস্থা নিয়েছি, এখন আমরা বিমানে করে, বিমানের কার্গোতে আমরা পেঁয়াজ আমদানি করে নিয়ে আসছি। তবে আমরা দেখতে চাই, এই ধরনের চক্রান্তের সঙ্গে কেউ জড়িত আছে কি না।’ তিনি বলেন, ‘স্বাভাবিকভাবে আবহাওয়ার কারণে অনেক সময় অনেক পণ্য উত্পাদন বাড়ে বা উত্পাদন কমে। আর যেহেতু পেঁয়াজটা বেশি দিন রাখা যায় না, কিন্তু কেউ যদি এখন হোল্ডিং করে দাম বাড়িয়ে দুই পয়সা কামাতে চায়, তাদের এটাও চিন্তা করতে হবে, পেঁয়াজ তো পচেও যাবে।’ তিনি বলেন, ‘এখন পচা পেঁয়াজও শুকানোর চেষ্টা হচ্ছে। তবে মানুষকে কষ্ট দেওয়াটা কেন? এভাবে কারা এর পেছনে আছে, সেটাও আমাদের দেখতে হবে।’

ভারতেও পেঁয়াজের দাম বেশি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সেখানে ১০০ রুপিতে এখন প্রতি কেজি কিনতে পারে। ভারতের শুধু একটা স্টেটে (রাজ্য) তাদের পেঁয়াজ বেশি, কিন্তু ঐ স্টেটের বাইরে যেতে দেয় না, শুধু সেখানেই পেঁয়াজের দাম একটু কম। তাছাড়া সার্বিকভাবে সেখানেও দাম বেশি।’ তিনি বলেন, ‘আমরা যেখান থেকে কিনছি, আমাদের বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। কিন্তু এই সমস্যা যাতে না থাকে, তাই কার্গো ভাড়া করে আমরা পেঁয়াজ আনা শুরু করেছি। দু-এক দিনের মধ্যেই এই বিমানে পেঁয়াজ এসে পৌঁছাবে।’

দুর্নীতি-সন্ত্রাস-মাদকের বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রাখার কথা পুনর্ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, চাঁদাবাজি, দুর্নীতি, অসত্ উপায়ে অর্থ উপার্জন করে সেই টাকায় ফুটানি করলে দেশের মানুষ কখনো বরদাশত করবে না। কেন দুর্নীতি ও চুরি করে টাকা বানাতে হবে? ঐ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, চাঁদাবাজি, দুর্নীতি, অসত্ উপায়ে অর্থ উপার্জন করে সেটা দিয়ে আবার বিলাসবহুল জীবন যাপন করা কেউ মেনে নেবে না। অসত্ পথে উপার্জিত অর্থ দিয়ে বিরিয়ানি খাওয়ার থেকে সত্ পথে নুন-ভাত খাওয়া অনেক মর্যাদার। আমরা দেশ থেকে মাদক-সন্ত্রাস-দুর্নীতি দূর করতে চাই। এর বিরুদ্ধে যে অভিযান, তা অব্যাহত রাখব। কারণ দেশের মানুষের শান্তি-নিরাপত্তা আমরা নিশ্চিত করতে চাই।’ দেশবাসীকে সজাগ ও সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তাদের (বিএনপি-জামায়াত জোট) এই স্বভাব কোনো দিন যাবে না। ঐ খুনি, দুর্নীতিবাজরা যেন আর কোনো দিন এই দেশে ক্ষমতায় আসতে না পারে, বাংলাদেশের জনগণকে সে ব্যাপারে সচেতন করতে হবে। এরা ক্ষমতায় আসা মানেই মানুষের ফের দুর্ভোগ, এরা ক্ষমতায় থাকা মানেই দেশকে একেবারে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাওয়া। দেশ আবারও সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদে ভরে যাওয়া।’

কারো অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষের জন্য একটা সুন্দর জীবন দেওয়াই তার সরকারের মূল লক্ষ্য। ‘দেশে একটা শ্রেণি আছে, একটি গোষ্ঠী আছে, মানুষ যত ভালো থাকবে তারা তখন মনোকষ্টে ভোগে, অসুস্থতায় ভোগে। এখন তাদের এই রোগ কীভাবে সারানো যায়, এটা জনগণই বিচার করবে। জনগণই এটা দেখবে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর থেকে জনগণের যে সেবা দিচ্ছে, এই কথাগুলো মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। আমাদের দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এই গতি আমাদের অব্যাহত রাখতে হবে।

স্বেচ্ছাসেবক লীগ সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রঞ্জন গুহের সভাপতিত্বে এবং সদস্যসচিব গাজী মেজবাহুল হক সাচ্চুর সঞ্চালনায় সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। দুপুরে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় অধিবেশনে কাউন্সিলরদের মতামত ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করা হয়।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দুর্নীতিবাজ, চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ ও ভূমিদস্যুদের ‘না’ বলার জন্য নেতাকর্মীদের আহ্বান জানিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশ দারিদ্র্য ও ভিক্ষুকমুক্ত দেশে পরিণত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে তিনি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১০ ডিসেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন