ঢাকা সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬
৩২ °সে


বুথ ফেরত জরিপে চাঙ্গা বিজেপি

জোট নেতাদের নিয়ে অমিত শাহের নৈশভোজ আজ
বুথ ফেরত জরিপে চাঙ্গা বিজেপি

বুথ ফেরত জরিপে সহজ জয়ের আভাস পাওয়ার পর চাঙ্গাভাব বিরাজ করছে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মধ্যে। জয়ের ইঙ্গিত পাওয়ার পর আজ মঙ্গলবার এনডিএ জোটের শরিকদের জন্য নৈশভোজের আয়োজন করেছেন বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। নয়াদিল্লির ‘দ্য অশোক’ হোটেলে এনডিএ জোটের নেতাদের স্বাগত জানাবেন বিজেপি সভাপতি নিজেই। সেখানে জোটের পরবর্তী কৌশল নিয়ে আলোচনা হবে। আগামী বৃহস্পতিবার লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা হবে। এর আগে রবিবার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রকাশ করা বুথ ফেরত জরিপের ফলে বলা হচ্ছে, বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট ৩০২টি আসনে জয় পেতে পারে। অন্যদিকে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোট পেতে পারে ১২২টি আসন। জরিপ অনুযায়ী উত্তরপ্রদেশে বিজেপি খারাপ ফল করলেও সেই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারছে ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গে। ওড়িশায় গতবারের দুটি আসন থেকে এবার ১৪টি আসনে জয় পেতে পারে বিজেপি। ফলে ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দলের (বিজেডি) সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে চলেছে বিজেপির। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে ২১টি আসনের মাত্র ২টি আসন পেয়েছিল বিজেপি।

এই দুই রাজ্যের সাফল্য অনেকাংশেই উত্তরপ্রদেশে বিজেপির ব্যর্থতাকে ঢেকে দেবে বলে মনে করা হচ্ছে। ২০১৪ সালে বিজেপি উত্তর প্রদেশের ৮০টির মধ্যে ৭১টি আসন পেয়েছিল। কিন্তু এবার তারা ৪৯টি আসন পাবে বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও বিরোধী দলগুলো বুথ ফেরত জরিপকে একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছে। কিন্তু জম্মু-কাশ্মিরের ন্যাশনাল কনফারেন্সের মুখ্য ওমর আবদুল্লাহ সম্ভাব্য ফলাফলকে মেনে নেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেছেন, প্রতিটি বুথ ফেরত জরিপের ফল ভুল হতে পারে না। টিভি বন্ধ করে দেওয়ার এবং সোশ্যাল মিডিয়া থেকে লগ আউট করে দেওয়ার সময় এসেছে। দেখা যাক, ২৩ মের পরে পৃথিবী নিজের অক্ষে আবর্তন করে কি না।

তবে এ ধরনের জরিপের ফল আগেও ভুল প্রমাণিত হয়েছে। ২০০৪ সালের নির্বাচন এর বড় উদাহরণ। সেবার বলা হয়েছিল বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসছে অটলবিহারী বাজপেয়ীর সরকার। বাস্তবে ঘটেছিল অন্যরকম। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে মমতা ব্যানার্জির সরকার হেরে যাবে বলে জরিপে বলা হয়েছিল। সেখানে দেখা যায়, তৃণমূল কংগ্রেস দুইশোর বেশি আসন পেয়ে সরকার গঠন করেছিল। ফলে ২৩ মে দিল্লির সিংহাসন কার দখলে যায় এবং পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি কত আসন পায় সেটাই এখন দেখার বিষয়।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন