ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬
২৬ °সে


তিউনিসিয়া উপকূলে ১২ দিন ধরে ভাসছে ৬৪ বাংলাদেশি

তিউনিসিয়া উপকূলে ১২ দিন ধরে ভাসছে ৬৪ বাংলাদেশি

ইউরোপে পাড়ি জমাতে গিয়ে এবার তিউনিসিয়ার উপকূলে ১২ দিন ধরে নৌকায় ভাসছে ৬৪ বাংলাদেশিসহ মোট ৭৫ অভিবাসন প্রত্যাশী। তিউনিসিয়ার কর্তৃপক্ষ নৌকাটিকে তীরে ভেড়ার অনুমতি না দেওয়ায় সাগরে ভেসে বেড়াতে হচ্ছে তাদের। রেড ক্রিসেন্টকে উদ্ধৃত করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

তিউনিসিয়ার জলসীমায় মিসরের একটি উদ্ধারকারী নৌকা তাদের উদ্ধার করলেও তিউনিসিয়ার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের অভিবাসী আশ্রয় কেন্দ্রগুলো এখন কানায় কানায় পূর্ণ। নতুন করে কোনো অভিবাসন প্রত্যাশীকে জায়গা দেওয়া সম্ভব নয়। এ কারণে তারা নৌকাটিকে উপকূলে ভিড়তে অনুমতি দিচ্ছে না। এমন অবস্থায় উদ্ধারকৃত অভিবাসীদের নিয়ে উপকূলীয় জারজিস শহর থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে মিসরের নৌকাটি। তিউনিসিয়ার এক সরকারি সূত্রকে উদ্ধৃত করে রয়টার্স জানিয়েছে, সাগরে ভাসমান অভিবাসীরা খাবার ও চিকিত্সা সহায়তা নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। তারা ইউরোপে পাড়ি জমানোর অনুমতি চাইছে। তারা মনে করছে, ইউরোপে পৌঁছতে পারলে তাদের ভাগ্য পরিবর্তিত হবে।

রেড ক্রিসেন্টের কর্মকর্তা মঙ্গি স্লিম রয়টার্সকে জানিয়েছেন, সাগরে ১২ দিন ধরে ভাসতে থাকা অভিবাসীদের অবস্থা খুব খারাপ। ভাসমান অভিবাসীদের চিকিত্সা সহায়তা দিতে চিকিত্সকদের একটি দল নৌকাটির কাছে পৌঁছে। তবে অনেকেই এই সেবা নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, আটকে পড়াদের মধ্যে ৬৪ বাংলাদেশি ছাড়াও মরক্কো, সুদান ও মিসরের অভিবাসীরা রয়েছেন।

খবরে বলা হয়েছে, এর আগে গত মাসের শুরুতে ইউরোপে প্রবেশের চেষ্টাকালে ভূমধ্যসাগরের তিউনিসীয় উপকূলে নৌকা ডুবে অন্তত ৬৫ অভিবাসীর মৃত্যু হয়। এর মধ্যে ৪০ বাংলাদেশি ছিলেন। ২০১৯ সালের প্রথম চার মাসে ভূ-মধ্যসাগরে ১৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৭ জুন, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন