ঢাকা মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬
৩২ °সে


ছাত্রলীগকে কলঙ্কমুক্ত করতে কাজ করবেন জয়-লেখক

ছাত্রলীগকে কলঙ্কমুক্ত করতে কাজ করবেন জয়-লেখক
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, বাম পাশে সাদা পাঞ্জাবি পরিহিত ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। গতকাল মধুর ক্যান্টিনে -ইত্তেফাক

দায়িত্ব গ্রহণ আজ, বিতর্কিত ১৯ জনের নাম প্রকাশ করা হবে

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার

নানা অনিয়ম, দুর্নীতি আর বিতর্কের পর ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর অপসারণের পর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন আল নাহিয়ান খান জয় এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে লেখক ভট্টাচার্য। নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত এই নেতৃত্ব ছাত্রলীগকে কলঙ্কমুক্ত করতে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন। গতকাল রবিবার ইত্তেফাককে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে এসব কথা বলেন তারা।

নতুন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, ‘ছাত্রলীগ চাঁদাবাজ-সন্ত্রাসীদের প্রশ্রয় দেয় না। ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশিত পথে থেকে ছাত্রলীগের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে কাজ করব। সংগঠনের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারে আপ্রাণ চেষ্টা করব।’ কমিটির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা একটা চ্যালেঞ্জিং সিচুয়েশনে এসেছি। আমাদের নেতৃত্বে আসার প্রেক্ষাপট সম্পূর্ণ আলাদা। আমরা আমাদের সিনিয়র বড়ো ভাইদের এবং প্রাণপ্রিয় নেত্রীর সঙ্গে কথা বলে সংগঠন পরিচালনা করব।’

পরে দুপুরে মধুর ক্যানটিনে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য আজ সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন বলে জানান। তারা জানান, ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে সংগঠনের দায়িত্ব নেবেন তারা। এ সময় তাদের সঙ্গে ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, সারাদেশে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের যে কোনো অভিযোগ কিংবা দাবি থাকলে আমাদের জানাতে পারেন। আমাদের কাছে আসতে কোনো লবিং কিংবা মধ্যস্থতা লাগবে না। সংগঠনকে শক্তিশালী করতে নতুন নেতৃত্ব কাজ করবে বলেও জানান তিনি।

সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সময় ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি থেকে বাদ দেওয়া বিতর্কিত ১৯ জনের নাম দ্রুত প্রকাশ করা হবে বলে জানান লেখক ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, গত কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে কেন অপসারণ করা হয়েছে আমরা সে দিকে না যাই। প্রধানমন্ত্রী আমাদের দায়িত্ব দিয়েছেন, আমরা আমাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করার চেষ্টা করব। ছাত্রলীগের সর্বোচ্চ অভিভাবক শেখ হাসিনার ছাত্রলীগ নিয়ে যে অভিযোগ রয়েছে আমাদের প্রথম কাজ হবে সেগুলো ওভারকাম করা। গত কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এসেছে আমাদের বিরুদ্ধে সে ধরনের অভিযোগ যেন না আসতে পারে।

বিতর্কিত ১৯ জন সম্পর্কে তিনি বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে খুব দ্রুত তাদের তালিকা প্রকাশ করব। অনেক পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঝুলে আছে। তারপর আমরা একটা কর্মিসভা করব। কর্মী সভার মাধ্যমে সবাই মিলে একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতির পর গতকাল রাত ১টায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এসেছিলেন ছাত্রলীগের অব্যাহতিপ্রাপ্ত সদ্য সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ের সঙ্গে টিএসসি পর্যন্ত এলে নেতাকর্মীরা ‘জয় ভাইয়ের আগমন, শুভেচ্ছা স্বাগতম’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন।

এদিকে শনিবার দিবাগত রাতে ছাত্রলীগের অব্যাহতিপ্রাপ্ত সভাপতি রেজওয়ানুল হক শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন সংগঠনটির পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে তারা বিক্ষোভ করেন।

ভিপির আবেদন : এদিকে নিয়মবহির্ভূতভাবে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সান্ধ্যকালীন কোর্সে ভর্তি হওয়া ছাত্রলীগের ৩৪ জন শিক্ষার্থীর ছাত্রত্ব বাতিলের আবেদন করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর। একই সঙ্গে চিঠিতে ডাকসুর কোষাধ্যক্ষ ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের অপসারণও দাবি করা হয়। ডাকসুর সভাপতি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বরাবর এই আবেদন করা হয়।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৫ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন