ঢাকা বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
২৬ °সে


পুঁজিবাজারের কপারটেক ইস্যুতে বড়ো শাস্তির মুখে অডিটর

কোনো ধরনের কোম্পানিই নিরীক্ষা করতে পারবে না কাঞ্চিলাল দাসের মালিকানাধীন আহমেদ এন্ড আক্তার
পুঁজিবাজারের কপারটেক ইস্যুতে বড়ো শাস্তির মুখে অডিটর

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) তালিকাভুক্তির জন্য বহুল আলোচিত কপারটেক লিমিটেড নামে একটি কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনে অস্বচ্ছতার অভিযোগে তা তালিকাভুক্ত হয়নি। কোম্পানিটির আর্থিক প্রতিবেদন অধিকতর পর্যবেক্ষণে নিরীক্ষক প্রতিষ্ঠান আহমেদ অ্যান্ড আক্তার এর কাছ থেকে প্রত্যাশিত সহযোগিতা পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল পেশাদার হিসাববিদদের সংগঠন আসিএবি আহমেদ অ্যান্ড আক্তার নামে ওই নিরীক্ষক প্রতিষ্ঠানের মালিক কাঞ্চিলাল দাসের লাইসেন্স নবায়ন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে কাঞ্চিলাল দাস তথা তার সিএ ফার্ম আহমেদ অ্যান্ড আক্তার পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বা অতালিকাভুক্ত—কোনো ধরনের কোম্পানিরই অডিট কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে না। আইসিএবি সূত্র জানিয়েছে, সনদধারী কোনো হিসাববিদের এ ধরনের ইস্যুতে লাইসেন্স নবায়ন না করার সিদ্ধান্ত এটিই প্রথম। এটি সংশ্লিষ্ট হিসাববিদ ও অডিট ফার্মের জন্য বড় ধরনের শাস্তি। এর ফলে কপারটেকের ডিএসইতে তালিকাভুক্ত হওয়ার চেষ্টা নতুন করে জটিলতার মুখে পড়লো। অবশ্য এর একদিন আগে, বুধবার পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) একই ইস্যুতে আহমেদ অ্যান্ড আক্তার এর তালিকাভুক্ত কোম্পানির নিরীক্ষায় রাশ টেনেছিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ডিএসইতে তালিকাভুক্তির অপেক্ষায় থাকা কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ইতিমধ্যে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) তালিকাভুক্ত হয়েছিল। তবে প্রতিষ্ঠানটির আর্থিক প্রতিবেদনের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন ছিল বিভিন্ন মহলে। ফলে ডিএসইতে অনুমোদন পাচ্ছিল না। এরপর নানা আলোচনার পর আলোচ্য প্রতিষ্ঠানের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনার পেশাগত হিসাববিদদের প্রতিষ্ঠান আইসিএবিতে পাঠায় ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কাউন্সিল (এফআরএ)। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটির কাছে সহযোগিতা না পাওয়ায় আইসিএবির পরিচালনা পর্ষদ গতকাল এক সভায় কাঞ্চিলাল দাসের লাইসেন্স নবায়ন না করার সিদ্ধান্ত নেয়।

এর আগে গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহের অনুমোদন দিয়েছিল নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি সাধারণ শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজকে ২০ কোটি টাকা উত্তোলনের অনুমোদন দেয় বিএসইসি। সেই অনুমোদন নিয়ে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে থেকে কোম্পানিটি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের আবেদন গ্রহণ করেছে। ইতিমধ্যে পুঁজিবাজার থেকে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করে। এ জন্য প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নেওয়া হয়েছে ১০ টাকা।

কিন্তু কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেয়নি ডিএসই। তবে ডিএসইর হিসেবে থাকা প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের টাকা কোম্পানির হিসেবে দিয়ে দেওয়ার জন্য গত মঙ্গলবার সিদ্ধান্ত হয়। গত ৯ জুন আইপিওর বরাদ্দ পাওয়া কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ার শেয়ারহোল্ডারদের বিও হিসাবে জমা হয়েছিল। গত ৩০ এপ্রিল লটারির মাধ্যমে কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেওয়া হয়।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৩ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন