ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬
২৯ °সে

তথ্যপ্রযুক্তিতে অবদান রাখায় ‘লিজেন্ড অব আইসিটি’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন ৭ ব্যক্তি

তথ্যপ্রযুক্তিতে অবদান রাখায় ‘লিজেন্ড অব আইসিটি’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন ৭ ব্যক্তি

সম্প্রতি রাজধানীতে ‘লিজেন্ড অব আইসিটি’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ। প্রতিষ্ঠানটির কিছু সদস্য তাদের মেধা ও যোগ্যতার স্বীকৃতিস্বরূপ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে উচ্চ পর্যায়ে পদোন্নতি পেয়েছেন। মুলত:তাদেরকে সংবর্ধনা প্রদানের জন্যই এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সংবর্ধিত তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা হলেন মো. আবুল হোসেন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, কর্মসংস্থান ব্যাংক, কাজী আলমগীর, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, কানন কুমার রায়, সদস্য (টেক্স পলিসি), জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, দেবদুলাল রায়, নির্বাহী পরিচালক, বাংলাদেশ ব্যাংক, তাহের আহমেদ চৌধুরী, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, মো. আবদুল্লাহ আল মামুন, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড ও মো. মতিনুর রহমান, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক, আই.এফ.আই.সি ব্যাংক লিমিটেড।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে সম্মাননা প্রদান করেন বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের কিউরেটর মো. নজরুল ইসলাম খান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন হাইটেক পার্ক অথরিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব এবং জাতীয় জনসংখ্যা গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (নিপোর্ট) এর মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার সাহা।

সিটিও ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তপন কান্তি সরকার তার স্বাগত বক্তৃতায় বলেন, সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ তার জন্মলগ্ন থেকে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। সিটিও ফোরাম ২০১১ সাল থেকে এই পর্যন্ত ১০০টিরও বেশি টেকনিক্যাল সভার আয়োজন করেছে। কিন্তু আজকে আমরা সম্পূর্ণ এক ভিন্ন প্রেক্ষাপটে এইখানে মিলিত হয়েছি।

আজকে আমরা যেসব আইটি ব্যক্তিত্বকে সম্মানিত করতে যাচ্ছি, তারা তাদের নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে তাদের মেধা ও অভিজ্ঞতার সমন্বয়ে তথ্যপ্রযুক্তিখাতের উন্নয়নে কাজ করে চলেছেন। আজ আমরা সম্মানিত বোধ করছি আমাদের ফোরামের সংবর্ধিত সদস্যরা ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সর্বোচ্চ পর্যায়ে জায়গা করে নিয়েছেন। তথ্যপ্রযুক্তিখাতের সঙ্গে সম্পৃক্ত সকলের জন্য এই এক বিশাল অর্জন।

বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে তথ্যপ্রযুক্তিখাতের কোনো বিকল্প নেই। এতদিন তথ্যপ্রযুক্তিখাত সংশিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে সেইভাবে মূল্যায়ন করা হয়নি। কিন্তু তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরাও যে একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান পরিচালনার সক্ষমতা রাখে এইসব পদ্দোন্নতি তার প্রমাণ। সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ গঠনের এই তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা ছিল অগ্রণী ভূমিকায়। আমরা আশা করি, তাদের এই পদোন্নতি আমাদের সকলকে অনুপ্রাণিত করবে।

সংবর্ধিত অতিথিদের জীবনবৃত্তান্ত একটি ভিডিও প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে উপস্থাপন করা হয় এবং সিটিও ফোরামের পক্ষ থেকে ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। সংবর্ধিত তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা তাদের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন এবং সিটিও ফোরামকে ধন্যবাদ জানান। তারা বলেন, নিজেদের সংগঠন থেকে এই ধরনের সম্মাননা আমাদের কাজের ক্ষেত্রে অনুপ্রাণিত করবে।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শেষভাগে একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন