আসছে ফায়ারফক্সের প্রিমিয়াম ভার্সন

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

 

মোজিলার মতো কর্পোরেশন সকলকে ফ্রিতে ফায়ারফক্স ব্যবহার করতে দিয়ে নিজেরা কিভাবে অর্থ উপার্জন করে? মারাত্মক জনপ্রিয় ব্রাউজার মোজিলা ফায়ারফক্স-এর সিইও ঈযত্রং ইবধত্ফ এক সাক্ষাত্কারে জানান, তাঁরা এই মুহূর্তে দুইটি প্রধান সোর্স থেকে রেভিনিউ জেনারেট করেন। একটি হচ্ছে গুগলকে ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে সেট করে রেখে এবং দ্বিতীয়ত; পকেট অ্যাপ ডিফল্টভাবে ব্রাউজারে সেট করে রেখে! কিন্তু তাদের প্রায় ৯০% রেভিনিউ আসে গুগল সার্চ থেকে! কোম্পানিটি তাদের ইনকাম এর সোর্স বাড়াতে চাচ্ছে। এখনো পর্যন্ত মোজিলা ফায়ারফক্স ফ্রিতে ব্যবহারকারীরা ব্যবহার করতে পারেন, ২০১৭ সালে এই ব্রাউজারে মারাত্মক পরিবর্তন আনা হয়, যেটাকে ফায়ারফক্স কোয়ান্টাম ভার্সন বলা হয়, এরপরে ব্রাউজারটি গুগল ক্রোমের সাথে টক্কর দেওয়ার মতো ক্ষমতা অর্জন করে। — যাইহোক, কোম্পানিটি বর্তমানে প্রিমিয়াম ভার্সন বের করার পরিকল্পনা করছে এবং ২০১৯ এর শেষের দিকে এই নতুনটি দেখতে পাওয়া যেতে পারে।

প্রিমিয়াম ভার্সনের মধ্যে তারা নিরাপদ ক্লাউড সেবা ও প্রিমিয়াম ভিপিএন সেবা প্রদান করতে পারে। তবে ভিপিএন-এর দুইটি পার্ট থাকবে, প্রথমত ফ্রি ব্যবহারকারীরাও কিছুটা শেয়ারড ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করতে পারবে এবং প্রিমিয়ামরা লিমিটলেস ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করতে পারবেন।

এখন ফায়ারফক্স সম্পূর্ণ নতুন একটি প্রোডাক্ট বানাবে নাকি এড-অনস-এর মাধ্যমে প্রিমিয়াম ফিচারগুলো প্রদান করবে এই ব্যাপারে খানিকটা দ্বন্দ্ব রয়েছে। তবে ফায়ারফক্স থেকে জানা যায়, তারা প্রিমিয়াম ভার্সনকে আলাদা সার্ভিস হিসেবেই রাখবে প্রথমে। তারপরে যেটা বেস্ট কাজ করবে সে অনুসারে ভবিষ্যতে সামনের দিকে এগোবে।

বর্তমান ফ্রি ইউজারদের প্যারা নেওয়ার কোনই দরকার নেই, কেননা আপনারা যেটা আজকে ফ্রিতে উপভোগ করছেন সেটা আজীবন ফ্রিই থাকবে। প্রিমিয়াম ইউজাররা নতুন কিছু বেনিফিট পাবেন। আশা করা যাচ্ছে, সামনের মোজিলা ফায়ারফক্স জাস্ট একটি ওয়েব ব্রাউজার থেকেই অনেক বেশি কিছু অফার করবে।

রিসেন্টলি কোম্পানিটি তাদের ব্রাউজারে অলরেডি কিছু কুল ফিচার অ্যাড করেছে। যেমন- ফাইল শেয়ারিং ফিচার, বিল্ডইন পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ইত্যাদি।