ঢাকা সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
২৬ °সে

অ্যাপল ছাড়ছেন আইফোনের ডিজাইনার জনি আইভ

অ্যাপল ছাড়ছেন আইফোনের ডিজাইনার জনি আইভ
অ্যাপল সিইও টিম কুকের সঙ্গে স্যার জনি আইভ

মোজাহেদুল ইসলাম

আইফোন প্রস্তুতকারীর প্রতিষ্ঠান অ্যাপল থেকে চাকরি ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন আইফোনের ডিজাইনার স্যার জনি আইভ। আইম্যাক, আইপড ও আইফোনের এ ডিজাইনার চলতি বছরের শেষের দিকেই অ্যাপল ছাড়বেন বলে জানিয়েছেন । বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এ ঘোষণার কথা জানিয়েছেন জনি আইভ। তিনি আরো জানান, পরবর্তীতে তিনি নিজেই একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে চান।

বিগত দুই দশকের বেশি সময় ধরে অ্যাপলকে বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান কোম্পানিতে পরিণত করতে কাজ করে গেছেন ব্রিটিশ এই নাগরিক। আইফোন ছাড়াও অ্যাপলের ‘ফ্ল্যাগশিপ’ বিভিন্ন পণ্য আইপ্যাড মিনি, আইপ্যাড এয়ার, আইফোন, অ্যাপল ওয়াচ, এয়ারপ্যাডের ডিজাইন তাঁরই করা।

স্যার জনি আইভ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ৩০ বছর ও অসংখ্য প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করার পর একটি চমত্কার ডিজাইনের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি গর্বিত।

অন্যদিকে জনি আইভর কৃতিত্ব তুলে ধরে এ বিষয়ে অ্যাপল বস টিম কুক বলেছেন, ‘বিশ্বের এক নাম্বার কোম্পানি হিসেবে অ্যাপল প্রতিষ্ঠায় স্যার জনি আইভের অবদান কখনো ভোলার নয়।’ তিনি আরো বলেন, অ্যাপল পুনরুজ্জীবনে তার ভূমিকা অতুলনীয়।’

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে, তিনি মূলত লাভফ্রম নামে একটি ক্রিয়েটিভ ফার্মের কাজ শুরু করবেন। লাভফ্রম সম্পর্কে এখনো তেমন কিছু বিস্তারিত জানানো হয়নি। তবে ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি এক বিশেষ প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করবে বলে জানা যাচ্ছে। এই ফার্মটির প্রথম গ্রাহক হতে যাচ্ছে অ্যাপল নিজেই।

জানা গেছে, অ্যাপলে তাঁর সহকর্মী মার্ক নিউসনও লাভফর্মে সঙ্গে যোগ দিতে যাচ্ছেন। নতুন প্রতিষ্ঠান তাঁর ডিজাইনের বাইরেও অনেক কিছু নিয়ে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

অ্যাপল ছাড়ার বিষয়ে জনি আইভ আরো বলেন, এটি কোনো অস্বাভাবিক কোনো বিষয় নয়, এটি পরিবর্তনের খুব স্বাভাবিক ও বিনয়ী একটি পদক্ষেপ। ’

জনি আইভ-এর নিজের প্রতিষ্ঠানে ‘লাভফ্রম’ নিয়ে ব্যস্ত হবেন অ্যাপল থেকে অবসর গ্রহণের পর। এতে তার সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন অ্যাপলের সহকর্মী মার্ক নিউসন। জানা গেছে, জনি আইভ এর নতুন কোম্পনিতে সদ্য ছেড়ে আসা প্রতিষ্ঠান অ্যাপলই হতে যাচ্ছে তাদের প্রথম ক্লায়েন্ট।

জনি আইভ ১৯৯৬ সালে অ্যাপলের প্রধান ডিজাইন হিসেবে যোগদান করেন । সে সময় সংস্থার আর্থিক অবস্থা বেশ খারাপ ছিল। ১৯৯৮ সালে আইম্যাক ডিজাইনের মাধ্যমে বিশ্বকে চমক দেখান আইভ। ২০০১-এ আইপড ডিজাইনের পর থেকে অ্যাপলকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। এর পর ২০০৪ সালে আইপ্যাড মিনি, ২০০৭ সালে আইফোন, ২০০৮ সালে ম্যাকবুক, ২০১০ সালে আইপড, ২০১৫ সালে অ্যাপল ওয়াচ, ২০১৬ সালে এয়ারপডের ডিজাইন করেও বেশ সফলতা লাভ করেন তিনি। অসামান্য প্রতিভার জন্য ২০১২ সালে আইভকে নাইটহুডে ভূষিত করেন রানি এলিজাবেথ। এদিকে জনি আইভর অ্যাপল ছাড়ার ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে বিশ্ববাজারে অ্যাপলের শেয়ারের দাম এক দশমিক ৭৪ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
০১ জুন, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন