ঢাকা বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
৩০ °সে


সোনা নিন, টাকা দিন

গরু নিয়ে ঋণ সংস্থার কার্যালয়ে পশ্চিমবঙ্গের কৃষক
সোনা নিন, টাকা দিন

সম্প্রতি ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ দাবি করেন দেশি গরুর দুধে ‘সোনা’ আছে। তার এই দাবির পর সমালোচনার ঝড় বইছে। এর মধ্যেই পশ্চিমবঙ্গের এক কৃষক গরু নিয়ে হাজির হয়েছেন ঋণ প্রদানকারী একটি সংস্থার কার্যালয়ে। তিনি গরুর বিনিময়ে ঋণ চেয়েছেন। তার বক্তব্য ‘সোনা নিন, টাকা দিন’। আনন্দবাজার পত্রিকার এক খবরে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের হুগলির চণ্ডীতলার গরলগাছা এলাকায়। পেশায় কৃষক সুশান্ত মণ্ডল একটি মাঝারি আকারের গরু ও একটি বাছুর নিয়ে হাজির হন একটি ঋণ প্রদানকারী সংস্থার কার্যালয়ে। এই গরু আর বাছুর জমা রেখে তাকে ঋণ দেওয়ার দাবি জানান। এই ঋণ নিয়ে তিনি ব্যবসা বাড়াবেন বলে জানান।

সুশান্তের ২০টি গরু আছে। তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘কয়েক দিন ধরেই গণমাধ্যমে দিলীপ ঘোষের বক্তব্য শুনেছি। তিনি বলেছেন, গরুর কুঁজে স্বর্ণনাড়ি আছে। তাতে সূর্যের আলো পড়লেই সোনা বেরোবে। তাই আমি গিয়েছিলাম। ঋণ পেলে ব্যবসা বাড়ানোর ইচ্ছে ছিল। কিন্তু ওরা নিতেই চাইলো না। ঋণ সংস্থার কার্যালয় থেকে বেরিয়ে ঐ কৃষক সোজা চলে যান স্থানীয় তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধানের বাড়িতে। পঞ্চায়েত প্রধান মনোজ সিংও সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, দিলীপ ঘোষের ঐ কথার পর তাকে এরকম ঘটনার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এর আগেও নাকি বেশ কয়েকজন তাকে গরু বন্ধক রেখে ঋণ পাওয়ার ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করেছেন। তিনি বলেন, গরুর দুধে সোনা আছে, এটা আবিষ্কারের জন্য দিলীপ ঘোষকে নোবেল দেওয়া উচিত।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার বর্ধমানের টাউন হলে ‘ঘোষ এবং গাভীকল্যাণ সমিতি’র এক অনুষ্ঠানে দিলীপ ঘোষ বলেন, গরুর দুধে সোনার অংশ থাকে। তাই দুধের রঙ হলুদ হয়। তিনি ব্যাখ্যা দেন যে, দেশি গরুর কুঁজের মধ্যে স্বর্ণনাড়ি থাকে। সূর্যের আলো পড়লে, সেখান থেকে সোনা তৈরি হয়। এ সময় বিদেশি গরু নিয়েও কথা বলেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ। তার ভাষায়, বিদেশ থেকে যে গরু আনা হয়, তা হাম্বা আওয়াজ করে না। আর যে হাম্বা ডাকে না, সে গরুই না। এগুলো গোমাতা নয়, আন্টি। আন্টির পূজো করে দেশের কল্যাণ হবে না।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন