ঢাকা সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬
৩৫ °সে

দিল্লিতে সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭

নাগরিকদের সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র
দিল্লিতে সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সহিংসতার সঙ্গে নিহতের সংখ্যা বাড়ছে। গতকাল পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ২৭ জনে। মুসলিমদের বাড়িঘর ও দোকানপাটে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত এক দশকের মধ্যে চলমান ঘটনাবলিকে ভারতে সবচেয়ে ভয়াবহ সহিংসতা বলে উল্লেখ করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র দিল্লিতে তাদের নাগরিকদের চলাচলে সতর্কতা জারি করেছে। ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল পরিস্থিতি শান্ত বলে জানিয়েছেন। খবর বিবিসি ও এনডিটিভির

ভারতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের পক্ষ ও বিপক্ষ গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষের সূচনা হয়েছিল রবিবার, যা পরে সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় রূপ নেয়। ছবি ও ভিডিওতে সয়লাব হয়ে গেছে সোশ্যাল মিডিয়া। এসব ছবিতে দেখা গেছে, অগ্নিসংযোগের পাশাপাশি লাঠি-রড নিয়ে মুখোমুখি অবস্থানে দুই পক্ষ। নিহতদের মধ্যে মুসলমান ও হিন্দু উভয় ধর্মীয় সম্প্রদায়ের মানুষই আছে। আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছে প্রায় ২০০।

মঙ্গলবার রাতে পুলিশ জাফরাবাদ মেট্রো স্টেশন ও মৌজপুর চক থেকে বিক্ষোভকারীদের জোরপূর্বক সরিয়ে দিয়েছে। গভীর রাতে এবং গতকাল সন্ধ্যায় ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল সহিংসতা হয়েছে এমন কিছু এলাকা ঘুরে দেখেছেন এবং শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি সিলমপুর, জাফরাবাদ, মৌজপুর ও গোকুলপুরি চক এলাকা পরিদর্শন করেন। পরে তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে পরিস্থিতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানান। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ইনশাআল্লাহ, পরিস্থিতি শান্ত আছে। পুলিশের নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। এদিকে জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় এবং জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়ার শিক্ষার্থীরা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বাড়ির সামনে গিয়ে মঙ্গলবার রাতে বিক্ষোভ করেছেন। পুলিশ জলকামান দিয়ে রাত সাড়ে ৩টা নাগাদ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। আবার রাতেই এক নজিরবিহীন আদেশে হাইকোর্ট তিন দিন ধরে চলা সহিংসতায় আহতদের নিরাপদে হাসপাতালে নেওয়া ও জরুরি চিকিত্সা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসনকে।

রাতেই বিভিন্ন হাসপাতালের ডাক্তারদের পিটিশনের শুনানি হয়েছে বিচারপতি এস মুরলীধরের বাসায় দুজন বিচারপতির বেঞ্চে। সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ পুলিশ ও অন্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। সংঘর্ষকারীদের কারো কারো হাতে বন্দুক দেখা গেছে। সহিংসতা হয়েছে মূলত উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে মুসলিম অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে। মসজিদে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের পদত্যাগ দাবি করেছেন।

গতকাল একটি নির্দেশিকা জারি করে দিল্লির হিংসার ঘটনার বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরে সাবধান করা হয়েছে ভারতে থাকা মার্কিন নাগরিকদের। বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে হিংসাত্মক প্রতিবাদ চলছে। ভারতে থাকা মার্কিন নাগরিকদের সেই কারণে সাবধানে চলাফেরা করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। যেসব এলাকায় গণ্ডগোল চলছে, সেগুলো এড়িয়ে চলুন।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
৩০ মার্চ, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন