ঢাকা সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬
৩৫ °সে

জাতিসংঘ মহাসচিবের উদ্বেগ, ওআইসির নিন্দা

জাতিসংঘ মহাসচিবের  উদ্বেগ, ওআইসির নিন্দা

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সহিংসতায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেস। মুসলিমদের টার্গেট করে এ হামলার নিন্দা জানিয়েছে ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি)।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে (সিএএ) কেন্দ্র করে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া ঐ সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা ৪০ জন ছাড়িয়ে গেছে। আহত হয়েছেন কয়েক শ মানুষ। গত বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘটনায় জাতিসংঘ মহাসচিবের উদ্বেগের কথা জানান তার মুখপাত্র স্টিফেন ডুজাররিক। তিনি বলেন, জাতিসংঘ মহাসচিব নিবিড়ভাবে দিল্লি পরিস্থিতি নজরে রেখেছেন। বিক্ষোভকারীদেরকে শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ করতে দেওয়া এবং নিরাপত্তা বাহিনীর সংযত থাকা উচিত। একই সঙ্গে যত দ্রুত সম্ভব পরিবেশ শান্ত করা এবং স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনা জরুরি বলেও মনে করেন জাতিসংঘ মহাসচিব। তিনি জানান, ব্যক্তি জীবনে মহাত্মা গান্ধীর শিক্ষায় অনুপ্রেরণা পান জাতিসংঘ মহাসচিব। গান্ধীর আদর্শের আলোকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পরিবেশ তৈরির আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের বৈঠকে ভারতের নাগরিকত্ব আইন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাশেলেট। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ভারতের সব গোষ্ঠীর মানুষেরা বিরাট সংখ্যায়, মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবেই এই আইনের বিরোধিতা করেছেন। আস্থা রেখেছেন তাদের দেশে ধর্মনিরপেক্ষতার দীর্ঘ ঐতিহ্যে। মুসলিমরা আক্রান্ত, পুলিশ নিষ্ক্রিয়। শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদীদের ওপরে পুলিশি বাড়াবাড়ি হয়েছে। আমি উদ্বিগ্ন। সহিংসতা বন্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

এক বিবৃতিতে দিল্লিতে সহিংসতার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে ওআইসি। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারতে মুসলিমদের বিরুদ্ধে সহিংসতা চালানো হয়েছে। মুসলিমদের সম্পদ বিনষ্ট করা হয়েছে। স্বজন হারানো পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে সহিংসতায় উসকানি দেওয়া বক্তিদের বিচারের মুখোমুখি করে মুসলিমদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি। তবে ওআইসির এই বিবৃতি নাকচ করে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, সংস্থাটির বক্তব্য তথ্যগতভাবে অসত্য ও ভুল। মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার ওআইসির মতো সংস্থাকে সংবেদনশীল সময়ে দায়িত্বহীন বিবৃতি না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক কমিশন জানায়, দিল্লিতে বেছে বেছে সংখ্যালঘুদেরই টার্গেট করে হামলা চালানো হয়েছে। তবে ভারত সরকার এই দাবি নাকচ করে বলেছে, মার্কিন কমিশন ও সংবাদমাধ্যমের একাংশ কেন্দ্রীয় সরকারকে দোষারোপ করে যা বলছে তা মিথ্যা। রাজনৈতিক স্বার্থে তারা এই কাজ করছে। মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, সহিংসতা থামিয়ে দিল্লিতে শান্তি ও স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছে আইনশৃঙ্খলার দায়িত্বে থাকা সংস্থাগুলো। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজে শান্তি ও সৌহার্দ ফেরানোর আবেদন জানিয়েছেন।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
৩০ মার্চ, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন