ঢাকা শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬
৩০ °সে


গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে সংসদে ক্ষোভ

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে সংসদে ক্ষোভ

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়েছেন সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা রওশন এরশাদ। গতকাল বুধবার চলতি একাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম বাজেট অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে রওশন বলেছেন, বাজেট পাসের দিন গ্যাসের দাম বাড়ানো হলো। বাংলাদেশে যখন গ্যাসের দাম বাড়ানো হলো, তখন ভারতে দাম কমানো হয়েছে। বাংলাদেশে কেন গ্যাসের দাম বাড়ানো হলো? প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- উন্নয়ন চাইলে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি মেনে নিতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের সঙ্গে আমি একমত নই। আমরা উন্নয়ন চাই, কিন্তু গ্যাসের দাম বাড়াতে চাই না। এটাই আসল কথা। এটা আমার কথা নয়, জনগণের কথা।

অন্যদিকে, গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধিতে গতকালও সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ওয়ার্কার্স পার্টি সভাপতি রাশেদ খান মেনন। গ্যাসের মূল্য নিয়ে সংসদে আলোচনা করার জন্য কার্যপ্রণালি বিধির ৬৮ বিধিতে দেওয়া নোটিশ দিয়ে কোনো সাড়া না পাওয়ায় গতকাল সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে ফ্লোর নিয়ে মেনন বলেন, এই সংসদে এর আগে মইন উদ্দীন খান বাদল বলেছেন- আমরা (এমপিরা) হচ্ছি বকাউল্লাহ-বকে যাই, সরকার শোনাউল্লাহ-শুনে যান, আর সংসদ হচ্ছে গরিবউল্লাহ। গ্যাসের দাম নিয়ে আলোচনা না হলে এই সংসদ আরও গরিব হয়ে যাবে।

অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে শিশুদের প্রতি সহিংসতা ও ধর্ষণের অপরাধে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার দাবি জানিয়ে রওশন বলেন, এখন স্কুল, মাদ্রাসা কোনো জায়গায় শিশুরা সুরক্ষিত নয়, নিরাপদ নয়। শিক্ষার্থীদের নুসরাতের মতো জীবন দিতে হলে তা ভীষণ লজ্জা ও দুঃখজনক ব্যাপার। দেশে আইন আছে। সে আইনের প্রয়োগ করা প্রয়োজন। কোনো ফাঁক রাখা যাবে না। সরাসরি মৃত্যুদণ্ড দিতে হবে, যাতে শিশুদের নিরাপদ রাখা যায়।

জাপার আমলে এরশাদ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বিরোধীদলীয় নেতা এইচ এম এরশাদ অনেক অসুস্থ। তিনি হাসপাতালে চিকিত্সাধীন। এরশাদের জন্য সবার কাছে দোয়া চান স্ত্রী রওশন।

এদিকে, গ্যাসের দাম নিয়ে সংসদে আলোচনার জন্য ৬৮ বিধিতে দেওয়া নোটিশ গৃহীত হয়েছে না বাতিল হয়েছে, সে সম্পর্কে কিছু না জানানোর কারণে পয়েন্ট অব অর্ডারে ক্ষোভ প্রকাশ করে রাশেদ খান মেনন বলেন, রুলস অব প্রসিডিউরে আছে, সুতরাং এটা সম্পর্কে জানার অধিকার আমার আছে। অবশ্য আমাদের সংসদ সদস্য মইনউদ্দীন খান বাদল আমাকে বলছিলেন, খামোখা এটা নিয়ে ইনসিস্ট করে লাভ নেই। স্পিকারের উদ্দেশ্যে মেনন বলেন, যদি এই আলোচনাটা না হয় তাহলে সংসদ আরো গরিব হবে বলে আমার ধারণা। আমি এ ব্যাপারে আপনার বক্তব্য চাচ্ছি।

মেননের বক্তব্যের জবাবে সংসদের বৈঠকে সভাপতিত্বকারী ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, আপনারা শুধু বকাউল্লাহ নন, আর আমরা শোনাউল্লাহ নই, আপনারা বক্তব্য রাখেন— সে বিষয়ে কিন্তু সরকার কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করে। আপনার ৬৮ বিধির নোটিশটির বিষয়ে আমি সেদিনও বলেছি, এটা স্পিকারের বিবেচনাধীন আছে। বিবেচনা করা হবে না, এমনতো কোনো কথা নেই। বিষয়টি আমরা আপনাকে পরে অবহিত করব।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন