ঢাকা শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৩ কার্তিক ১৪২৬
৩৪ °সে


আত্মসমালোচনাই বুদ্ধিমানের কাজ

আত্মসমালোচনাই  বুদ্ধিমানের কাজ

সামাজিক প্রাণী হিসেবে সমাজে বাঁচতে হলে আমাদের ভুলের শত সহস্র অবস্থা ডিঙিয়ে মাড়িয়ে নিজের অবস্থানকে ধরে রাখতে হয়। ভুলগুলোকে সহজেই পাশ কাটিয়ে যাই আমরা! আর ভুল এবং অসঙ্গতিগুলোই বাঁচে শক্তপোক্তভাবে। অন্যের সমালোচনা করতে করতে আমরা ভুলেই যাই যে, আমরাও ভুলের ঊর্ধ্বে নই! যে অনৈতিক কার্যকলাপ অন্যের দ্বারা ঘটছে সেগুলো আমাদের দ্বারাও ঘটতে পারে। এর অন্যতম কারণ হতে পারে আত্মকেন্দ্রিকতা। কারণ নিজেদের করা ভুলগুলো আমাদের চোখে পড়ে না। অথবা চোখে ধরা দিলেও আমরা এড়িয়ে চলতে চাই। যেমন নোংরা রাস্তা দেখলে আমরা সমালোচনায় মুখর হই; অথচ কতো সময় আমরাই আনমনে অথবা ইচ্ছে করেই ব্যবহূত অনেক কিছু ফেলি চলার পথে। ফুটওভারব্রিজ ব্যবহার না করেই ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হই আবার দোষ দিয়ে ফেলি সিস্টেমকে। এভাবে নিত্যদিনই আরো অনেক অনেক ক্ষেত্রে আমাদের দ্বারাই ঘটে যাচ্ছে ভুল কার্যকলাপ। দেশটা আমাদের। সমাজটা আমাদের। বসবাস করতে হবে আমাদেরকেই। সেইসঙ্গে বসবাস উপযোগী করে যেতে হবে আগামী প্রজন্মের জন্য। অন্যের দোষ-ত্রুটি কম খুঁজে আমরা যদি আজ থেকেই নিজেদের কাজকে সংযত করি এবং কর্তব্য যথাযথভাবে পালন করি, তাহলে সমাজ আমাদের উপহার দেবে সুস্থ এবং সঙ্গত জীবনধারা! চলুন আমরা অন্যের সমালোচনা না করে আত্মসমালোচনার দ্বারা আত্মশুদ্ধি সাধন করি।

মিতা কলমদার

লোকপ্রশাসন বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন