ঢাকা শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৭
২২ °সে

প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়, সম্পদ

প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়, সম্পদ

আলোকপাত

ম-মিজানুর রহামান

প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়। তারা সমাজ তথা দেশের উন্নয়নের অন্তরায়ও নয়। যথাযথ পরিচর্যার মাধ্যমে তাদের দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করে যে কোনো উন্নয়নে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে সম্পৃক্ত করা যেতে পারে। প্রতিবন্ধিতা কোনো রোগ নয়। এটি জীবনের একটি অবস্থামাত্র। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা যে কোনো ধরনের উন্নয়নে অবদান রাখতে পারে।

বিভিন্ন সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী ১৫ শতাংশ মানুষ কোনো না কোনোভাবে প্রতিবন্ধিতার শিকার। এই বৃহত্তর জনগোষ্ঠীকে উন্নয়নে সম্পৃক্ত করতে যথোপযুক্ত পরিচর্যা ও প্রশিক্ষণ প্রয়োজন। তাদের যথেষ্ট মেধা বা প্রতিভা রয়েছে। শুধু প্রয়োজন তাদের পরিচর্যা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করা।

১৯৮০ সালে জাতিসংঘের ৩৭তম সাধারণ সভায় নির্ধারিত সংজ্ঞানুযায়ী প্রতিবন্ধিতা বলতে বোঝায়, মানুষের শারীরিক বা মানসিক ক্ষতিগ্রস্ততার কারণে উদ্ভূত এমন কোনো বাধা বা সীমাবদ্ধতা, যা কোনো মানুষের স্বাভাবিক কার্যক্রমকে আংশিক বা পূর্ণভাবে বাধাগ্রস্ত করে।

প্রতিবন্ধীদের অসহায়ত্বকে পুঁজি করে এমন কিছু বলা বা মন্তব্য করা উচিত নয়, যা তাদের মধ্যে হতাশা সৃষ্টি করতে পারে কিংবা তাদের অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে। তাদের দিকে দয়া বা করুণার দৃষ্টিতে না তাকিয়ে ভাবা প্রয়োজন তাদের অধিকারের কথা। দান বা করুণামূলক সাহায্যের কথা না ভেবে তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠা ও বাস্তবায়নে এগিয়ে আসা জরুরি। কর্মক্ষেত্র, অবকাঠামো নির্মাণ, আইন প্রণয়নসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকারের বিষয়টি ভাবনায় রাখা আবশ্যক। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা বিশেষ কোনো শ্রেণি নয়; তাদেরও নাগরিক সুযোগ-সুবিধা ভোগের অধিকার রয়েছে। তাদের নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

পূর্বে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার এবং তাদের উন্নয়ন নিয়ে তেমন করে ভাবা না হলেও বর্তমান সরকার প্রতিবন্ধীদের অধিকার সুরক্ষা, উন্নয়ন ও সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে যুগোপযোগী কার্যক্রম গ্রহণ করেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়ন ও সার্বিক কল্যাণে নিরলসভাবে যে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন, তা বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত।

সরকারের আন্তরিক ও নিরলস প্রচেষ্টার পাশাপাশি অ্যাকসেস বাংলাদেশ, সুইড বাংলাদেশ, বিপিকেএস, ডিইউডিএসএফসহ আরো অনেক সংস্থা, সংগঠন এমনকি ব্যক্তিগতভাবেও অনেকে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের নাগরিক অধিকার সুরক্ষা ও তাদের উন্নয়নে এগিয়ে এসেছেন এবং প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নে কাজ করছেন।

সর্বোপরি মানুষকে প্রতিবন্ধী ব্যক্তি এবং প্রতিবন্ধিতাবিষয়ক পরিভাষা সম্পর্কে সচেতন করে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার আদায়ে সর্বসাধারণকে যুক্ত করতে হবে। একটি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবান্ধব ভবিষ্যত্ গড়ার প্রত্যয়ে এগিয়ে আসতে হবে সবাইকে।

n লেখক :গবেষক

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন