ঢাকা শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬
২৮ °সে


বিদ্যুত্ ও গ্যাসের স্থিতিশীলতা

বিদ্যুত্ ও গ্যাসের স্থিতিশীলতা

অনেক শিল্পবাণিজ্য বিশ্লেষক মনে করেন, গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি বড়ো সমস্যা নহে, যদি এইসবের সরবরাহ ও স্থিতিশীলতা বজায় থাকে। এই ব্যাপারে টেলিফোন ও ইমেইলে পাওয়া পাঠকদের অভিমত তুলিয়া ধরা হইল

বিদ্যুত্ ও গ্যাসের স্থিতিশীলতা নিয়ে আমাদের দেশে সব সরকারের আমলেই কথা উঠেছে। এটা নতুন কোনো বিষয় নয়। অনেক আগে দেশে লোকসংখ্যা কম ছিল, কর্মসংস্থানও তেমন ছিল না। এখন সব কিছুই বেড়েছে। অর্থনৈতিক/সামাজিক ক্ষেত্রে অনেক বড় কাঠামো তৈরি হয়েছে। জীবনমাত্রার মান বেড়েছে। মানুষের আয় বেড়েছে। কলকারখানা-শিল্পপ্রতিষ্ঠানে উত্পাদন বেড়েছে। সর্বোপরি বিদ্যুত্ ও গ্যাসের ব্যবহার অনেক মাত্রায় বেড়েছে। সেক্ষেত্রে গ্যাসের চাপ ও বিদ্যুতের স্থিতিশীলতা থাকাটা অসম্ভবও বটে।

সুলতানা জামান

মানিকনগর, ঢাকা

অর্থনৈতিক উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি হলো বিদ্যুত্ ও গ্যাস। বিদ্যুত্ হঠাত্ চলে গেলে শিল্প কলকারখানা, অফিস আদালত, ব্যবসাবাণিজ্য, হাসপাতাল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রভৃতি ক্ষেত্রে কাজের স্থবিরতা বিরাজ করে। তাই বিদ্যুত্ সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন রাখার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া একান্ত আবশ্যক। আমাদের দেশে গ্যাসের চাহিদা ব্যাপক। কিন্তু সরবরাহ অপ্রতুল। এছাড়া রয়েছে অপব্যবহার। গ্যাসের সরবরাহ বৃদ্ধি এবং সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিত হলে সর্বক্ষেত্রে উন্নয়নের চাকা আরো গতিশীল হবে।

মোহাম্মদ ইসলাম

পায়ের খোলা, চৌদ্দগ্রাম, কুমিল্লা

ব্যবসা বাণিজ্য, শিল্পকলকারখানা ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মূল চালিকাশক্তি হচ্ছে বিদ্যুত্ ও গ্যাস। কাজেই এ দুটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ দুটো না থাকলে আমাদের সব কিছুই স্থবিরতা বিরাজ করে। আর আমাদের বিদ্যুত্ ও গ্যাসের অপচয়ের ব্যাপারে আমাদের প্রত্যেককেই সচেতন হতে হবে। শুধু দাম বাড়ার বিষয় নিয়ে আন্দোলন করলেই হবে না, অপচয় রোধের বিষয়টির প্রতি নজরদারিত্বে রাখতে হবে।

মো. হানিফ মিয়া

মনেশ্বর লেন, হাজারীবাগ, ঢাকা

বিদ্যুত্ ও গ্যাসের স্থিতিশীলতা নিয়ে বহুল প্রকাশিত ‘দৈনিক ইত্তেফাক’ পাঠকের মতামতে চেয়েছে। খুবই জরুরি একটি বিষয়। এ ধরনের বিষয়ের মতামতের জন্য ধন্যবাদ জানাই ইত্তেফাক কর্তৃপক্ষকে। গ্যাসের চাপ ও বিদ্যুতের স্থিতিশীলতা কীভাবে থাকবে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ কথা। এখানে লোকসংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। শিল্পকারখানা, ব্যবসাবাণিজ্যসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিদ্যুতের ও গ্যাসের ব্যবহার বেড়েছে। এমতাবস্থায় গ্যাস ও বিদ্যুতের স্থিতিশীলতা থাকা কঠিন বিষয়।

আলমগীর

পিলখানা, ঢাকা

জ্বালানি হিসেবে বিদ্যুত্ ও গ্যাসের কারণে আজ উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তোলা হচ্ছে। বিদ্যুতের সুযোগ-সুবিধা এখন সুদূর গ্রাম-গঞ্জে পৌঁছে গেছে। এই সুবিধা থেকে শিক্ষিত বেকার তরুণ-তরুণীরা কর্মসংস্থান পেয়েছে। গ্যাস নির্ভর বাংলাদেশ বিদেশে গ্যাস রপ্তানি করতে না পারলেও সবচেয়ে বেশি রান্না কাজে ও শিল্প কলকারখানায় গ্যাস ব্যবহার করা হচ্ছে।

ফারুক আহমেদ

বাঘমারা, রাজশাহী

বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে উন্নয়নের পথে। আর এই উন্নয়নের প্রধান বাহক ও ধারক হচ্ছে বিদ্যুত্ ও গ্যাস। আর এর সুবিধা পাচ্ছে গোটা বাংলাদেশ। সর্বত্র গ্যাসের ব্যবহার চলছে। বিদ্যুতের উন্নয়নে কথা বলে শেষ হবে না। এখন দেশে লোডশেডিং নেই। ফলে জীবনযাত্রার মান অনেক উন্নত এখন। তবে গ্যাসের ও বিদ্যুতের স্থিতিশীলতা রেখে আরো বড়ো বড়ো প্রযুক্তির বিষয়ে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব।

এস কে মোহাম্মদ রমিজউদ্দিন

আয়কর আইনজীবী

কাজীপাড়া, মিরপুর, ঢাকা

গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি বিষয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু এ দুটো জিনিসের মূল্যবৃদ্ধির সাথে অন্য বিষয়গুলি জড়িত রয়েছে। গরিব মানুষের জন্য এটি একটি দুর্বিষহ বিষয়। আর ধনী মানুষের জন্য বড়ো ধরনের লাভের বিষয়। সুতরাং বিষয়টি ভাবনার বটে।

মো. মোজাহারুল ইসলাম

ব্যাংক কলোনী, সাভার

গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি বাংলাদেশের মতো সীমিত সম্পদের দেশে বাড়তি চাপ তৈরি করবে। দেশের অনেক শিল্পপ্রতিষ্ঠান গ্যাসের ওপর নির্ভরশীল হওয়ায় গ্যাসের দাম বেড়ে গেলে অনেক শিল্পকারখানা প্রতিযোগিতামূলক বাজারমূল্য দিতে ব্যর্থ হবে। এসব মিলিয়ে দেশের অর্থনীতিও ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সে ক্ষেত্রে এ বিষয়গুলো মাথায় রেখে সমন্বিত পরিকল্পনা করা দরকার। বিদ্যুত্ উত্পাদন বাড়ানো দরকার। কিন্তু তাই বলে একের পর এক মেগা প্রকল্প অনুমোদন দিলেই হবে না। যথাযথ গবেষণার মাধ্যমে চুলচেরা বিশ্লেষণ করে ভোক্তা প্রান্তে জ্বালানি দক্ষতা ও বিদ্যুত্ সাশ্রয়ভিত্তিক পরিকল্পনার মাধ্যমে প্রকৃত চাহিদার প্রাক্কলন করা দরকার। এর ফলে সম্পদ বাঁচবে এবং দামও সহনীয় পর্যায়ে রাখা সম্ভব হবে। এ ব্যাপারে সরকারকে অতটা বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হবে না বলে মনে করি।

অমিত বণিক

মানবসম্পদ ব্যবস্থাপক, উত্তরা, ঢাকা।

বিশ্লেষকদের সঙ্গে আমি বিপরীত মত পোষণ করে বলতে চাই, গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি সাধারণত জনগণের জন্য অনেক বড়ো সমস্যা। বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম অনেক কমেছে। বাংলাদেশে দাম কমানো হয়নি। কিন্তু গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হলো। এতে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়ে যাবে। শিল্পে উত্পাদন খরচ বাড়বে। সিএনজির দাম বাড়ানোর ফলে পরিবহন খরচও বাড়বে। এতে সীমিত আয়ের মানুষের ব্যয় নির্বাহ আরও কঠিন হবে।

সাদিয়া সুলতানা মাহি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সাভার, ঢাকা

গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে, যার ফলে আবাসিক খাত থেকে শুরু করে পরিবহন, শিল্প খাতের মতো অনেক ক্ষেত্রেই গ্রাহকেরা প্রভাবিত হবেন। এসবের সরবরাহ ও স্থিতিশীলতা যতই ঠিক থাকুক না কেন, এর ফলে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত হবে মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যরা। সাধারণ মানুষের জন্য অনেক কষ্টের হয়ে যাচ্ছে বিদ্যুত্ ও গ্যাসের বিল বহন করা। তাই সরকারের উচিত শিল্প-বাণিজ্যের উন্নয়নের সঙ্গে সাধারণ মানুষের কথা ভাবা।

সাবরিনা সুলতানা

ন্যাশনাল কলেজ অব হোম ইকোনমি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

আমরা বরাবরই দেখেছি, ভর্তুকির কথা বলে মূল্যবৃদ্ধির শর্টকাট পথে সরকার এগোয়। দুর্মূল্যের বাজারে এমনিতেই জনসাধারণের নাভিশ্বাস অবস্থা। তার ওপর গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি ‘মড়ার উপর খাঁড়ার ঘায়ের’ মতোই। বেশির ভাগ যানবাহন যেমন ট্রাক, লরি এখন গ্যাসচালিত। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির ফলে যাত্রীভাড়া বাড়বে। বাড়বে পণ্যদ্রব্য বহনের খরচও। এর ফলে নিত্যপণ্যের বাজার আরো অস্থির হবে।

মেনহাজুল ইসলাম তারেক

মুন্সিপাড়া, পার্বতীপুর, দিনাজপুর।

বিশ্ববাজারে গ্যাসের দাম যখন কমে গেছে, তখন ‘দাম বেশি’র অজুহাত দিয়ে দাম বাড়ানোর কোনো যুক্তি থাকতে পারে না। ‘গ্যাসের দাম বাড়ার কারণে গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুতের দাম বেড়ে যাবে। সেই সঙ্গে কারখানার উত্পাদন খরচ বেড়ে যাবে। তাছাড়া গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করা হলেও গ্যাসের চাপ ও বিদ্যুতের স্থিতিশীলতাই বড় সমস্যা। অনিয়ম-দুর্নীতি দূর করা সম্ভব না হলেও সরকার তো তা কমাতে পারে।

মোহাম্মদ শহীদউল্যা

হক ভিলা, মেরাদিয়া,

সিপাহীবাগ, ঢাকা

বিদ্যুত্ এবং গ্যাস সরবরাহ প্রায়ই স্বাভাবিক কিন্তু কথায় আছে অভাবে স্বভাব নষ্ট। জনগণ বাধ্য হয়ে দেশের বিদ্যুত্ অপচয় করে থাকে। ওয়াসা কর্তৃক সরবরাহকৃত পানি একটি ইলেকট্রিক মোটর দিয়ে টেনে রিজাভ ট্যাংকিতে ভরতে এবং আর একটি ইলেকট্রিক মোটর দিয়ে সেই পানি ওপরে তুলতে হয়। আর ঢাকা শহরের বাড়িগুলো একটির সঙ্গে একটি লাগানো থাকায় কাপড়-চোপড় ফ্যান দিয়ে শুকাতে হয়— এভাবে বিদ্যুতের অপচয় হয়।

খন্দকার কামরুজ্জামান

৩৬৩/১০ উত্তর পীরেরবাগ, ঢাকা

গ্যাসের চাপ এবং বিদ্যুতের অস্থিতিশীলতা দেশের সর্বত্র পরিলক্ষিত হলেও কোনো কোনো জায়গায় গ্যাস সরবরাহ এবং বিদ্যুতের কোনো ব্যতিক্রম ঘটে না। এগুলো সাধারণত ভিআইপি এলাকায় হয়ে থাকে। তবে বিশ্বকাপ চলাকালীন বিদ্যুতের বিভ্রাট তেমন দেখা যায়নি, সবসময় যে একই অবস্থায় বিরাজ করবে তা আশা করা যায় না। কারখানা এবং গৃহস্থালীতে গ্যাস সরবরাহ প্রায় সমবসয়ই ব্যাহত হয়, এ কারণে বোধ হয় কারখানার মালিক এবং গ্যাস গ্রাহকরা বলেছেন, সরবরাহ অব্যাহত রেখে মূল্যবৃদ্ধি করলে তারা অখুশি হবেন না।

মাখরাজ খান

সাটুুরিয়া, মানিকগঞ্জ

আমরা বাংলাদেশি যারা গ্যাস ও বিদ্যুতের ওপরই সম্পূর্ণভাবে নির্ভরশীল। আমাদের এই দুটি নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের নিয়মিত সরবরাহে বিঘ্ন ঘটলে জীবন একেবারেই দুর্বিষহ হয়ে ওঠে। তাই এর দাম বাড়ুক বা না বাড়ুক সেটা বড়ো কথা নয়, মূলত কথা হলো এ দুটির চাহিদা পূরণ করা সরকারের একান্ত উচিত বলে জনসাধারণ মনে করেন। কাজেই যেভাবেই হোক না কেন, গ্যাস ও বিদ্যুতের সরবরাহ যেন বিঘ্ন না ঘটে সে দিকে বর্তমান সদাশয় সরকারকে সুদৃষ্টি রাখতে হবে।

আলহাজ মো. হাফিজুল ইসলাম চৌ. (হিফজু)

প্রধান উপদেষ্টা , নজরুল একাডেমি

হাউজিং রাজশাহী ৬২০২

অনেক শিল্প বাণিজ্য বিশ্লেষক যেসব কথা মনে করছেন আমরা মনে করি তা অনেকাংশ সত্য। গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির কারণে অনেক সমস্যা দেখা দেয়, আমরা অতীতেও তা দেখেছি। সুতরাং বিষয়গুলোয় এখনই সতর্ক দৃষ্টি দিতে হবে।

মাসুদ আলম বিপ্লব

উর্দু রোড, লালবাগ, ঢাকা

গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি বড়ো সমস্যা নয়—একথা ঠিক নয়। কারণ গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি পেলে শিল্পকারখানার উত্পাদিত সব জিনিসপত্রের মূল্যবৃদ্ধি পাবে ও যানবাহনসহ সকল ক্ষেত্রে অরাজকতা সৃষ্টি হবে। এতে করে দরিদ্র, নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির লোক সংসার চালাতে সংকটে পড়বে। তারা সমাজজীবনে বাঁচার জন্য এবং সংসারে ভরণ-পোষণ দিতে গিয়ে নানা ধরনের অপকর্মে লিপ্ত হবে। যা সমাজজীবনে ভয়াবহ পরিস্থিতি ডেকে আনবে। গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি বর্তমান সময়ের ক্ষেত্রে একটি অযাচিত সিদ্ধান্ত।

মোহাম্মদ আবুল আজাদ

সর্দারবাড়ি, মুন্সীগঞ্জ

গ্যাসের চাপ ও বিদ্যুতের স্থিতিশীলতার চেয়ে সবচেয়ে বড়ো কথা হচ্ছে এর নিয়মিত সরবরাহ। সরবরাহ যদি ঠিক থাকে তাহলে স্থিতিশীলতা থাকাটা স্বাভাবিক হবে বলে আমরা মনে করি। তাই আমাদের প্রত্যাশা গ্যাস ও বিদুতের স্থিতিশীলতা ও নিয়মিত সরবরাহ।

মারুফ

বাসাবো, ঢাকা

দেশে আবাসিক ও পরিবহন খাতে পাইপলাইনের গ্যাসের পরিবর্তে এলপিজির ব্যাপারে গুরুত্ব দিতে হবে। তা না হলে পাইপলাইনের গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি সহজভাবে গ্রহণ করাই আবশ্যক। আমাদের দেশে সব সময়ই গ্যাসের ও বিদ্যুতের স্থিতিশীলতা নিয়ে কথা ওঠে। কথা আসবে। যেহেতু এখানে দিনে দিনে শিল্পকারখানা বৃদ্ধি ও এর প্রসার ঘটছে। সেহেতু গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য অস্থিতিশীল হওয়াটাই স্বাভাবিক।

আল মায়ামী

ফুলবাড়িয়া, সাভার

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন