ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬
৩১ °সে


সোনারগাঁওয়ে মহাসড়কের পাশে ময়লার ভাগাড়

সোনারগাঁওয়ে মহাসড়কের পাশে ময়লার ভাগাড়

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় মহাসড়কের পাশে ময়লার ভাগাড়। দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দু’পাশে মোগড়াপাড়া চৌরাস্তার বিভিন্ন দোকান ও বিভিন্ন বাড়ির ময়লা-আবর্জনা ফেলা হচ্ছে। ফলে নষ্ট হচ্ছে ওই এলাকার পরিবেশ। পথচারীদের নাকে রুমাল চেপে ওই এলাকায় চলাচল করতে হচ্ছে। কেউ কেউ হাত দিয়ে নাক-মুখ চেপে চলাচল করছেন। ময়লা-আবর্জনার কারণে পথচারী, শিক্ষার্থী, চাকরিজীবী, ব্যবসায়ীসহ হাজার হাজার মানুষ অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। এছাড়া আবর্জনার কারণে ফুটপাত বন্ধে হয়ে যাওয়ায় পথচারী ও স্থানীয় স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে মহাসড়কের উপর দিয়ে চলাচল করছেন। ফলে মাঝে মাঝে ঘটে দুর্ঘটনা। গত ২৩ মে মোটর সাইকেলের ধাক্কায় মুন্না (১২) নামে এক কিশোর মারা যায় এ ময়লার ভাগাড়ের পাশে।

জানা যায়, মোগরাপাড়া চৌরাস্তা থেকে মেনীখালি সেতু পর্যন্ত ময়লার স্তূপের কারণে স্বাভাবিক যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে প্রায়ই যানজটের সৃষ্টি হয়। এ সময় ওই এলাকায় যানজটে আটকা যাত্রীদের ময়লার দুর্গন্ধে বমি হওয়ার উপক্রম হয়। এ বিষয়ে এলাকাবাসী একাধিকবার মোগড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে অভিযোগ দায়ের করলেও কোনো প্রতিকার হচ্ছে না বলে অভিযোগ।

সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ও পিরোজপুর গ্রামের বাসিন্দা আল আমিন জানান, মহাসড়কের পাশে ময়লা-আবর্জনা ফেলে রাখায় আমাদের চলাচলে বেশ সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। এ জন্য আমাদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। পিরোজপুর ব্রিজের উপর পৌঁছলে ময়লার দুর্গন্ধে দম বন্ধ হয়ে আসে।

মোগরাপাড়া এইচজিজিএস স্মৃতি বিদ্যায়তনের শিক্ষার্থী আয়েশা সিদ্দিকা, আফরিন, সুরাইয়া, সাদিয়া জানান সড়কের পাশে ময়লা ফেলে রাখার কারণে চলাচলে আমাদের খুব অসুবিধা হয়। তাদের দাবি এখানে ময়লা আবর্জনা ফেলা বন্ধ করতে হবে।

পিরোজপুর গ্রামের রিয়াদ জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক একটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা। এখান দিয়ে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ চলাচল করে থাকে। দ্রুত এ সমস্যার সমাধান চাই।

মোগরাপাড়া চৌরাস্তা বাজারের ব্যবসায়ী আমিনুল ও বাসেদ জানান, অন্য কোথাও ময়লা ফেলার জায়গা না থাকায় বাধ্য হয়েই বাজারের ও আশপাশের এলাকার ময়লা এখানে ফেলতে হচ্ছে। প্রশাসন যদি ময়লা ফেলার একটি নির্দিষ্ট স্থান করে দিত তাহলে এখানে কেউ ময়লা ফেলতো না।

মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু জানান, ময়লা ফেলার বিকল্প স্থান খোঁজা হচ্ছে। স্থানীয় প্রশাসনের সাথে আমার কথা হয়েছে। এ বিষয়ে অতি দ্রুতই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার জানান, মহাসড়কের মোগড়াপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় ময়লার স্তূপ করে রাখা হয়েছে। এতে সাধারণ মানুষ দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। আমি বার বার বিষয়টি সড়ক ও জনপথ বিভাগকে (সওজ) অবগত করেছি। তারা ময়লা সরানোর কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করেনি। তাই আমি নিজ উদ্যোগে এখানকার ময়লা আবর্জনা সরানোর জন্য ব্যবস্থা নিয়েছি। আশা করি অল্প কিছু দিনের মধ্যে মহাসড়ক থেকে ময়লা সরানো সম্ভব হবে।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৭ জুন, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন