ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬
২৫ °সে


আজ ভারত যাচ্ছেন টেস্ট স্পেশালিস্টরা

টেস্ট প্রস্তুতি নিয়ে আত্মবিশ্বাসী মিরাজ

টেস্ট প্রস্তুতি নিয়ে আত্মবিশ্বাসী মিরাজ

টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিয়েই এখন ব্যস্ত বাংলাদেশ দল। কিন্তু ভেতরে ভেতরে টেস্টের প্রস্তুতিও চলছে। আজ টেস্ট স্কোয়াডের আট সদস্য ভারতে রওয়ানা হয়ে যাচ্ছেন। একটু আগেভাগেই তারা যোগ দিচ্ছেন দলের সঙ্গে। ভারত যাওয়ার আগে গত কিছুদিন টেস্ট দলের এই আট সদস্য আলাদা করে অনুশীলন করেছেন। আর এই অনুশীলনের অভিজ্ঞতা থেকে স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ বলছেন, তিনি টেস্ট সিরিজের ব্যাপারেও খুব আত্মবিশ্বাসী।

টেস্ট দলে যোগ দিতে আজ ঢাকা ছাড়ছেন ইমরুল কায়েস, সাদমান ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, সাইফ হাসান, নাঈম হাসান, আবু জায়েদ রাহি, এবাদত হোসেন এবং অধিনায়ক মুমিনুল হক। মিরাজ বলছিলেন, এই যাওয়ার আগে তারা যে রকম প্রস্তুতি নিয়েছেন, তাতে তারা সন্তুষ্ট, ‘ভারতের মাটিতে টেস্ট আমাদের জন্য এত সহজ হবে না, অনেক চ্যালেঞ্জ নিয়ে খেলতে হবে। আমি মনে করি আমরা সেভাবেই প্রস্তুত। যেভাবে আমাদের প্রস্তুতি চলছে তাতে আমরা ভালো কিছুই করতে পারব। আমরা এখন আত্মবিশ্বাসী।’

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের বোলারদের একটা বড়ো চ্যালেঞ্জ হবে এই শক্তিশালী লাইনআপের ২০টি উইকেট তুলে নেওয়া। মিরাজ বলছিলেন, সাকিব না থাকায় চ্যালেঞ্জটা আরো কঠিন হবে, ‘আমাদের বোলারদের জন্য এটা বড়ো একটি চ্যালেঞ্জ। ওদের ২০ উইকেট নেওয়াটা। কতটুকু আমরা মানসিকভাবে শক্ত থাকব বা কতটুকু আমরা মানসিকভাবে এগিয়ে থাকব এটা আমাদের অনুশীলনের ওপর নির্ভর করছে। আমরা জানি সাকিব ভাই আমাদের দলে থাকলে আমরা এগিয়ে থাকি। কিন্তু তিনি খেলবেন না। অবশ্যই স্পিনারদের জন্য একটা বাড়তি চাপ থাকবে।’

মিরাজ এবার টি-টোয়েন্টি দলে সুযোগ পাননি। আর এই সময়টা নিজের ক্যারিয়ার বড়ো করার জন্য ফিটনেস নিয়ে অনেক কাজ করেছেন বলে বলছিলেন, ‘আমি গত ১০-১২ দিনে যে কাজটা করেছি, আমার কাছে মনে হয় আমি এমন একটি সুযোগ চেয়েছি, এ রকম একটু টাইম নিয়ে ব্যাটিং-বোলিং, আমার শারীরিক ফিটনেসে যে ঘাটতিগুলো আছে সেগুলোর উন্নতি করা। দীর্ঘদিন ক্রিকেট খেলার জন্য। আমি চাই অনেক বছর ক্রিকেট খেলতে। অনেকদিন ক্রিকেট খেলতে হলে ফিটনেস, স্কিলের উন্নতি করতে হয়।’

এই সিরিজে মিরাজদের খেলতে হবে একটি ফ্লাড লাইটের নিচে টেস্ট। পিংক বলের সেই টেস্ট নিয়ে মিরাজ বলছিলেন, ‘এখন পর্যন্ত আলাদা কোনো কাজ করছি না। আমি যতটুকু শুধু মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছি। আশা ইন্ডিয়াতে যে কোচ আছে ওদের সঙ্গে কথা বলব, বসব, ওদের সঙ্গে বসে হয়তো আলাপ করব কীভাবে কি করলে ভালো হয়।’

গোলাপী বলে অবশ্য মিরাজরা দেশে কিছুটা অনুশীলন সেরে নিয়েছেন। সেই অভিজ্ঞতা থেকে এই বল সম্পর্কে বলছিলেন, ‘এখন পর্যন্ত আমি যা বল করেছি, আমার কাছে মনে হয় বলটা ড্রিফট করে, বল নড়াচড়া করে। কিন্তু আরো ভালো পরিষ্কার হব যখন কোচদের সঙ্গে কথা বলব, ওখানে গিয়ে অনুশীলন করব।’

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৪ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন