ঢাকা শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৭
১৫ °সে

‘ফেরা’টা সুখকর হলো না মরিনহোর

‘ফেরা’টা সুখকর হলো না মরিনহোর

এক বছর আগে এই ওল্ড ট্র্যাফোর্ড থেকেই চাকরি হারিয়েছিলেন হোসে মরিনহো। সেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মাঠে পর্তুগীজ এই কোচ ফিরলেন টটেনহ্যাম হটস্পারের দায়িত্ব পাওয়ার তৃতীয় সপ্তাহেই। তবে সেটা মোটেও সুখকর হয়নি তার। মার্কাস রাশফোর্ডের জোড়া গোলে ২-১ ব্যবধানে হেরে ফিরেছে টটেনহ্যাম। ফলে প্রিমিয়ার লিগে ইউনাইটেডকে তাদেরই মাঠে প্রথমবারের মতো হারানোর স্বাদ পাওয়ার অপেক্ষাটা অন্তত আরো এক বছর দীর্ঘায়িতই হলো ‘দ্য স্পেশাল ওয়ান’-এর।

বুধবার রাতে ম্যাচের ছয় মিনিটেই ভাঙলো টটেনহ্যাম রক্ষণ। ডেভিনসন সানচেজ থেকে বলটা পেয়েই দারুণ এক শটে সফরকারীদের জালে বল জড়ান রাশফোর্ড। এরপর টটেনহ্যামের ম্যাচে ফেরার চেষ্টাটা ৩৯ মিনিটে ডেলে আলির গোলে সফল হলেও বিরতির পর তা ভেস্তে যায় রাশফোর্ড আবারও স্বাগতিকদের এগিয়ে দিলে। লম্বা সময় ধরে ভিএআর পরীক্ষার পর পেনাল্টি থেকে গোলটি করেন ইংল্যান্ড ফরোয়ার্ড।

ইউনাইটেডের দুর্দশার একটা চিত্র পাওয়া যায় প্রিমিয়ার লিগ হ্যাটট্রিকের দিকে তাকালেও। ২০১৩ সালে অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে রবিন ফন পার্সির হ্যাটট্রিকের পর থেকে শেষ ছয় লিগ মৌসুমে হ্যাটট্রিক আসেনি আর কোনো ইউনাইটেড ফরোয়ার্ডের পা থেকেই। এদিকে সেটা ঘোচানোর সুযোগটা এসেছিল রাশফোর্ডের কাছে। তবে স্পার্স গোলরক্ষক পাওলো গাজ্জনিগার দারুণ প্রতিরোধ ভাঙতে ব্যর্থ হওয়ায় সেটা সম্ভব হয়নি তার পক্ষে। ইউনাইটেড ফরোয়ার্ড অবশ্য চলতি মৌসুমে নয়টি প্রিমিয়ার লিগ গোল করেছেন। আরেকটা গোল পেয়ে গেলেই ছুঁয়ে ফেলবেন নিজের ক্যারিয়ার-সেরা লিগ পারফর্মেন্সটিকেও।

স্পার্সদের বিপক্ষে এমন পারফর্মেন্সের পর কোচ ওলে গুনার সোলসারের পক্ষ থেকে একরাশ প্রশংসাই পেলেন ইংল্যান্ড ফরোয়ার্ড। ইউনাইটেড কোচের ভাষ্য, ‘আজ সে আমার অধীনে সেরা ম্যাচটা খেলেছে। সে অনেক পরিণত ছিল আজ এবং ভালো ভালো সব প্রিমিয়ার লিগ খেলোয়াড়দের বিপক্ষে দারুণ খেলেছে। পেনাল্টিটা ঠান্ডা মাথায় নিয়েছে এবং প্রথম গোলটা! আমরা সবাই সে এমন গোল করতে পারে। আরো তিন চারটা সুযোগ পেয়েছিল সে।’

রাশফোর্ডের দ্বিতীয় গোলটাই ম্যাচ থেকে ছিটকে দিয়েছে স্পার্সদের, অভিমত মরিনহোর। তিনি বলেন, ‘দ্বিতীয়ার্ধটা এমন এক গোল হজম করে শুরু করেছি যেটা হজম করা কঠিন। থ্রো-ইনের সময় সজাগ ছিলাম না আমরা এবং রাশফোর্ডকে আক্রমণ করার সুযোগ দিয়েছি। বক্সে চলে এলে তাকে আটকানো কঠিন। আর সে দারুণ বুদ্ধিমত্তা নিয়ে স্পর্শের জন্যে অপেক্ষা করছিল। আর প্রথমার্ধে তারা আরো আক্রমণাত্মক ছিল। সম্ভবত ২-০ গোলেও এগিয়ে যেতে পারত, এরপর আমরা ম্যাচের দখল নিয়েছিলাম।

মরিনহোর ওল্ড ট্র্যাফোর্ড প্রত্যাবর্তনের দিনে মার্সিসাইড ডার্বিতে এভারটনকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে লিভারপুল। দলটির স্বভাবসুলভ পাঁচটি গোল এসেছে চারজনের পা থেকে। দিভোক অরিগির জোড়া গোলের পাশাপাশি লক্ষ্যভেদ করেন জেরদ্রান শাকিরি, সাদিও মানে ও জর্জিনিও ওয়াইনাল্ডাম। এই জয়ের ফলে ১৫ ম্যাচ থেকে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থানে আট পয়েন্টের ব্যবধান ফিরে পেলো লিভারপুল। এর আগে জয় নিয়ে ব্যবধানটা যথাক্রমে আট আর পাঁচে নামিয়ে এনেছিল ম্যানচেস্টার সিটি ও লেস্টার সিটি।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন