ঢাকা সোমবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৭
১৪ °সে

বঙ্গবন্ধু বিপিএল শুরু আজ

ভালো শুরুর আশায় চট্টগ্রাম-সিলেট

ভালো শুরুর আশায় চট্টগ্রাম-সিলেট
মিরপুরে গতকাল সন্ধ্যায় ফটোসেশনে অংশ নেন ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর অধিনায়করা। ঢাকায় মাশরাফির হয়ে ছিলেন মুমিনুল হক, ছিলেন না কেবল রংপুরের মোহাম্মদ নবি —মোশারফ হোসেন

স্পোর্টস রিপোর্টার

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অনুশীলন করেছেন সেই দুপুরে। একাকী ব্যাটিং অনুশীলন করে ফিরে গেছেন তিনি। গতকাল বিসিবি একাডেমি মাঠে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে মাহমুদউল্লাহর দল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স অনুশীলন করেছে পড়ন্ত বিকালে। দলের সঙ্গে মাহমুদউল্লাহর অনুশীলনের কারণ সবারই জানা। বিপিএলের প্রথম দুই ম্যাচ খেলতে পারবেন না ইডেন টেস্টে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে পড়া মাহমুদউল্লাহ। জাতীয় দলের ফিজিওর অনুমতি না পাওয়ায় বিশ্রামে থাকবেন তিনি। অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটারকে ছাড়াই আজ বিপিএল মিশন শুরু করবে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

মাহমুদউল্লাহর অনুপস্থিতিতে চট্টগ্রামের অধিনায়কত্বের ভার পড়েছে ইমরুল কায়েসের কাঁধে। গত আসরের চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক ছিলেন ইমরুল। মাহমুদউল্লাহকে না পেলেও টুর্নামেন্টে ভালো শুরুর আশা করছেন তিনি। আজকের ম্যাচে জয়টাই চট্টগ্রামের মূল লক্ষ্য।

আজ বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে চট্টগ্রামের প্রতিপক্ষ সিলেট থান্ডার। মিরপুর স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর দেড়টায়।

প্রতিপক্ষের মতো বদলি অধিনায়কের ধাক্কা নেই সিলেট শিবিরে। চায়ের দেশের দলটির অধিনায়ক এবার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। তরুণ এই অলরাউন্ডার মতে, সিলেটের দলটা ভারসাম্যপূর্ণ। হেড কোচ হার্শেল গিবসের অধীনে গতকালই প্রথমবার গোটা দল নিয়ে অনুশীলন করেছিল সিলেট। আজ প্রথম ম্যাচে জয়ের লক্ষ্যেই খেলবে দলটি।

মাহমুদউল্লাহকে না পেলেও ইমরুল, নাসির, রুবেল, নুরুল হাসান সোহান, এনামুল জুনিয়র, জুনায়েদ সিদ্দিকী, পিনাক ঘোষরা আছেন চট্টগ্রামে। বিদেশিদের মধ্যে আভিস্কা ফার্নান্দো, রায়াদ এমরিট, রায়ান বার্লরা খেলবেন।

জয় দিয়ে বিপিএল শুরুর আশা করছেন ইমরুল। গতকাল চট্টগ্রামের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক বলেছেন, ‘শুরুটা আসলে ভালোই করতে চায় সবাই। যদি প্রথম ম্যাচে জিততে পারি সবার আত্মবিশ্বাস বাড়বে। সবাই আত্মবিশ্বাসী আছে, সবাই আন্তরিকভাবে চাইবে প্রথম ম্যাচটি জিততে।’

মাহমুদউল্লাহর না থাকার সুযোগটা কাজে লাগাবেন তরুণরা, এমনটাই আশা ইমরুলের। মাহমুদউল্লাহকে মিস করবেন জানিয়ে বাঁহাতি এই ওপেনার বলেছেন, ‘রিয়াদ (মাহমুদউল্লাহ) ভাইয়ের না থাকায় কঠিন হবে কম্বিনেশনটা ঠিক করা। উনাকে দুটো ম্যাচ মিস করব। বিদেশি প্লেয়ারও খেলতে পারে আবার স্থানীয় প্লেয়ারও খেলতে পারে ঐ জায়গাটায়। যারাই এই জায়গায় সুযোগ পাবে তারা এটা সঠিক ব্যবহার করার চেষ্টা করবে।’

মিঠুন, নাজমুল অপু, সোহাগ গাজী, রনি তালুকদার, নাঈম হাসানের মতো স্থানীয়রাই সিলেটের বড়ো ভরসা। বিদেশিদের মধ্যে জীবন মেন্ডিস, নাভিন উল হক, শফিকউল্লাহ শাফাকরা খেলবেন সিলেটের হয়ে।

সব মিলিয়ে দলটা ভারসাম্যপূর্ণ মনে করেন অধিনায়ক মোসাদ্দেক। গতকাল অনুশীলন শেষে তিনি বলেছেন, ‘বিদেশি ও স্থানীয় খেলোয়াড় মিলে সবাই আজ (গতকাল) অনুশীলন করলাম। আমার মনে হয়, আমরা ভালো একটা দল। কাল (আজ) ভালো একটা ম্যাচ খেলব ইনশাআল্লাহ?। এখানে সব দলই ভালো। কারো বিদেশি খেলোয়াড় ভালো, কেউ আবার দেশি খেলোয়াড় ভালো নিয়েছে। আমি মনে করি সব দলই একইরকম। সব দলেই ভারসাম্য আছে।’ মোসাদ্দেকের আশা মাঠে লড়বে সিলেট থান্ডার। সেখানে স্থানীয় ক্রিকেটারদের ওপরই বেশি আস্থা রাখছেন তিনি। গতকাল বলেছেন, ‘আমরা ৩-৪ জন আছি যারা জাতীয় দলে বর্তমানে খেলছি। জাতীয় দলে ঢুকবে এমনও কয়েক জন আছে। এছাড়াও যারা আছে ওরাও এক সময় খেলেছেন। বিদেশিরাও নিজ দেশের জাতীয় দলের খেলোয়াড়। তাই আমি মনে করি, টুর্নামেন্টে লড়াই করার মতো ভারসাম্যপূর্ণ দল আমরা।’

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৭ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন