ঢাকা শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
৩৪ °সে


উইন্ডিজকে সেমিতে চান লারা

উইন্ডিজকে সেমিতে চান লারা

ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটের আগের সেই সৌন্দর্য এখন আর নেই বললেই চলে। এমনকি আসছে বিশ্বকাপের মঞ্চে সুযোগ পেতেও তাদের অতিক্রম করতে হয়েছে বাছাইপর্বের বাধা। যদিও, এত কিছুর পরও দলটির ওপর ভরসা রাখছেন দেশটির কিংবদন্তি ক্রিকেটার ব্রায়ান লারা। তিনি মনে করেন, ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপে চমকে দিতে পারে জেসন হোল্ডারের দল।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) উপলক্ষে ‘ক্রিকেটের বরপুত্র’ খ্যাত লারা এখন আছেন ভারতে। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি এই লিগের বিশেষজ্ঞ ধারাভাষ্যকারদের প্যানেলে ঠাঁই হয়েছে তার। ভারতে বসেই দেশটির শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার সঙ্গে ক্যারিবিয়ানদের বিশ্বকাপ সম্ভাবনার ব্যাপারে খোলামেলা আলাপ করেন।

লারা মনে করেন, বিশ্বকাপে ভালো করতে ধারাবাহিকতার কোনো বিকল্প নেই। তিনি বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজকে অবশ্যই প্রথমে ধারাবাহিক ক্রিকেট খেলতে হবে। আমরা দেখিয়েছি যে আমরা ইংল্যান্ড বা ভারতকে হারাতে পারি। নিজেদের দিনে যে কাউকেই হারাতে পারি। আবার এটাও সত্যি যে, আমরা বাংলাদেশ বা আফগানিস্তানের কাছে হেরে বসতে পারি। এ হারগুলোকে এড়াতে হবে। আমি সেমিফাইনালে ক্যারিবিয়ানদের দেখার জন্য মুখিয়ে আছি।’

গেল তিনটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মধ্যে দুটিতেই চ্যাম্পিয়ন দলের নাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অথচ, ওয়ানডে ক্রিকেটে এখন তারা বড় দলের তকমা হারিয়েছে। সাবেক অধিনায়ক লারা সেই তকমা ফেরত চান। তিনি মনে করেন, বিশ্বকাপের মঞ্চে চমকে দেওয়ার ক্ষমতা ওয়েস্ট ইন্ডিজের আছে। বললেন, ‘গেল কয়েকটা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আমাদের দলটা ছিল চমকে ভরপুর। প্রতিটা দলই আমাদের কথা মাথায় রেখে খেলতে নেমেছিল। অনেক হিসাব নিকাশ করতে হয়েছিল বাকিদের। আমি মনে করি, চমকে দেওয়ার সব উপকরণই আমাদের মধ্যে আছে। আমাদের খেলোয়াড়রা বিশ্বের নানা প্রান্তে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট মাতিয়ে চলেছে। আর সবাই এক হলে তারা কী করতে পারে, সেটা দুটো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ট্রফি দিয়েই প্রমাণ হয়ে যায়। সেটা ওয়ানডেতেও সম্ভব। এর জন্য সবার আগে দরকার ধারাবাহিকতা।’

আগামী ৩০ মে থেকে শুরু হবে বিশ্বকাপের আসর। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ঠিক এর পরদিনই শুরু করবে নিজেদের বিশ্বকাপ মিশন। প্রথম ম্যাচে নটিংহ্যামে তাদের প্রতিপক্ষ পাকিস্তান।

লারা সেমিফাইনালের লাইন আপে আরো দুটো দলের কথা বললেন। তারা হলো ভারত ও ইংল্যান্ড। তিনি বলেন, ‘আমি যে দুটো দলের কথা বলব তাদের নিয়ে কোনো ঝুঁকি নেই। কারণ, ওরা বড়ো ম্যাচগুলো জিততে জানে। প্রথমেই আসবে ইংল্যান্ডের কথা। এ দলটা বেশ ভারসাম্যপূর্ণ। এরপরই আসবে ভারত। এই দুটি দল অবশ্যই সেমিফাইনাল খেলবে।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ওয়ানডেতে ১০ হাজারের ওপর রান করা লারা মনে করেন, ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে কন্ডিশন একটা বড়ো ভূমিকা ফেলতে পারে। এজন্য তিনি ক্রিকেটারদের প্রয়োজনীয় কিছু টিপসও দিলেন। বললেন, ‘ইংল্যান্ড একটা বিচিত্র জায়গা। বিষয়টা খুব খারাপ না। যখন আমি ইংল্যান্ডে খেলেছি, উপভোগ করেছি। ইংল্যান্ডে ভালো করার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো নিজেকে চেনা। নিজের ভালো দিকটা জানতে হবে, সীমাবদ্ধতাও জানতে হবে, সেই অনুযায়ী খেলতে হবে। তাহলেই ধীরে ধীরে কন্ডিশনটা আয়ত্তে চলে আসবে।’

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন